স্কলারশিপ

রাজ্যজুরে চালু হলো মেধাশ্রী প্রকল্প। প্রত্যেক ছাত্র-ছাত্রী পাবে ৮০০ টাকা

Adv

রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে পশ্চিমবঙ্গের ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য নানাবিধ স্কলারশিপ থেকে শুরু করে বিভিন্ন ধরনের প্রকল্প কার্যকরী করা হয়েছে। ঐক্যশ্রী, কন্যাশ্রী, শিক্ষাশ্রী, স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড, স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপ থেকে শুরু করে ওয়েসিস স্কলারশিপ সহ আরও বিভিন্ন ধরনের প্রকল্প এবং স্কলারশিপের নাম রয়েছে এই তালিকায়। তবে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য কার্যকরী এই সমস্ত প্রকল্পের তালিকায় এবারে আরও একটি নতুন প্রকল্পের নাম যুক্ত হলো।

পশ্চিমবঙ্গের পিছিয়ে পড়া শ্রেণীর মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের কথা মাথায় রেখে রাজ্য সরকারের তরফে কার্যকরী এই নতুন প্রকল্পটি রাজ্যব্যাপী মেধাশ্রী প্রকল্প (Medha Shree Prakalpa) নামে পরিচিত। রাজ্য সরকারের তরফে প্রকাশিত তথ্য অনুসারে জানা গিয়েছে যে, পশ্চিমবঙ্গের অভাবী পরিবারের পড়ুয়ারা যাতে শিক্ষাক্ষেত্রে এগিয়ে যেতে পারে তার জন্যই এই প্রকল্পটি কার্যকরী করা হয়েছে। বিগত বৃহস্পতিবার আলিপুরদুয়ারের হাসিমারায় এক প্রশাসনিক সভার আয়োজন করা হয়েছিলো, আর সেই সভা থেকেই মেধাশ্রী প্রকল্পের (Medha Shree Prakalpa) কথা ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

Ad

এর পাশাপাশি আরও জানানো হয়েছে যে, কেবলমাত্র ওবিসি সম্প্রদায়ভুক্ত ছাত্র-ছাত্রীরাই এই মেধাশ্রী প্রকল্পের অধীনে নিজেদের নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে শুধুমাত্র পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণীভুক্ত পড়ুয়ারাই মেধাশ্রী প্রকল্পের অধীনে অনুদান পাবেন। মেধাশ্রী প্রকল্পের অধীনে প্রত্যেক পড়ুয়াকে প্রতি বছরে ৮০০ টাকা করে অনুদান দেওয়া হবে বলেই জানানো হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফে। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে কার্যকর নির্দেশিকা অনুসারে আগামী দিনে পশ্চিমবঙ্গের ২ লক্ষ ৬০ হাজার ওবিসি সম্প্রদায়ভুক্ত শিক্ষার্থী এই প্রকল্পের আওতায় অনুদান পাবেন।

পিএম কিষাণের নিয়মে আনা হলো বড়ো পরিবর্তন। সবাইকে করতে হবে এই কাজ। নাহলে পাওয়া যাবে না কিস্তির টাকা

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে জানানো হয়েছিলো যে, ওবিসি ছাত্র-ছাত্রীরা প্রি-ম্যাট্রিক স্কলারশিপের আওতায় আর কোনোভাবেই অনুদান পাবেন না। আর তাই এবারে পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য সরকারের তরফে ওবিসি সম্প্রদায়ভুক্ত ছাত্র-ছাত্রীদের প্রি-ম্যাট্রিক স্কলারশিপের দায়িত্ব নেওয়া হলো, এমনটাই দাবি করা হয়েছে বিভিন্ন সূত্র মারফত। যার ফলস্বরূপ এই নতুন প্রকল্পটি লঞ্চ করা হয়েছে। তবে রাজ্য সরকারের এহেন সিদ্ধান্তে যথেষ্ট খুশি পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন প্রান্তে বসবাসকারী ছাত্র-ছাত্রী সহ অভিভাবকরা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(112) ""