অর্থনীতি

Bank Privatisation – বেসরকারি হচ্ছে SBI, PNB, Canara Bank, Indian Bank, Bank of Baroda এবং Union Bank? কি জানালো কেন্দ্র সরকার।

Adv

বেসরকারিকরণের পথে মোদি সরকার, তবে এই ব‍্যাঙ্কগুলো এক্ষুনি Bank Privatisation হচ্ছে না, সরকারের হাতেই থাকছে।

একের পর এক রাষ্ট্রায়ত্ত্য সংস্থা ও Bank Privatisation বা বেসরকারিকরণ করছে মোদি সরকার। সরকারি সংস্থাকে বেসরকারীকরণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাচ্ছে দেশজুড়ে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো। কিন্তু তারপরেও মোদি সরকারের তরফে সিদ্ধান্ত থেকে পিছিয়ে আসা হয়নি। ফলে দেশের সমস্ত অধিকাংশ সরকারি সংস্থা বেসরকারীকরণের (Privatization) মধ্যে দিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার তাদের আয় বাড়ানোর চেষ্টা করছে।

এবার ব্যাংক বেসরকারিকরণ বা Bank Privatisation নিয়ে নতুন খবর পাওয়া গিয়েছে। বেশ কিছুদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল, মোদি সরকার সরকারি ব্যাংক প্রাইভেটাইজেশন (Bank Privatization) করতে চলেছে। যা নিয়ে দেশ জুড়ে বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর তরফে বিভিন্ন ভাবে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। কিন্তু তারপরে এই মুহূর্তে ব্যাংক বেসরকারিকরণ নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে যে তথ্য সামনে এসেছে তাতে জানা যাচ্ছে, ২০১৯ সালের আগস্ট মাসে ১০টি ব্যাংক ৪টি ব্যাংকে মিশিয়ে দেওয়া হয়েছিল।

Ad

যার পরে সরকারি ব্যাংকের সংখ্যা ২৭ এর জায়গায় এসে দাঁড়িয়েছে ১২ তে। ফলে এক্ষুনি কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে ৬টি ব্যাংক প্রাইভেটাইজেশন করা হবে না বলেই জানা গিয়েছে। অর্থমন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, ৬টি ব্যাংককে বেসরকারীকরণ বা Bank Privatisation করা হচ্ছে না। সেই ব্যাংকগুলির তালিকায় রয়েছে, SBI, PNB, Canara Bank, Indian Bank, Bank of Baroda এবং Union Bank.

সরকারি আধিকারিকদের তথ্য অনুযায়ী জানা গিয়েছে, যারা সরকারি ব্যাংক একত্রীকরণের অংশ ছিলেন তাদেরকে বেসরকারিকরণের বাইরে রাখা হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে IDBI ব্যাংকের শেয়ার বিক্রির সিদ্ধান্ত জানা গিয়েছিল। আইডিবিআই ব্যাংকে কেন্দ্রীয় সরকারের ৬০.৭২ শতাংশ শেয়ার ছিল। সেই শেয়ার বিক্রি করে ৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার কোষাগারে আনার চেষ্টা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

একটু পরিশ্রম, স্বল্প পুঁজি, আর একটু বুদ্ধি দিয়ে শুরু করে দিন এই ব্যবসা, মুনাফা হবে সারা বছর।

একাধিক অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞ বেশ কিছু ব্যাংক প্রাইভেটাইজেশনের (Bank Privatisation) পক্ষে মত দিয়েছেন। তবে আইডিবিআই ব্যাঙ্কের শেয়ার বিক্রি নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে যে ঘোষণা করা হয়েছিল, তা থেকে আদৌ ওই পরিমাণ টাকা তোলা সম্ভব কিনা সেই বিষয়েও সন্দেহ রয়েছে।

ব্যাংক একাউন্ট থেকে আধার নম্বর দিয়ে টাকা তোলার উপায়, লাগবে না একাউন্ট নম্বর।

যদিও একবার যখন প্রশ্ন উঠেছে, তাহলে আজ হোক আর কাল, Bank Privatisation করেই ছাড়বে সরকার। এই গুঞ্জন ভাসছে অর্থনৈতিক মহলে। আর সেক্ষেত্রে সাধারণ মানুষের টাকা কতটা সুরক্ষিত থাকবে, প্রশ্ন থেকে যায়। আর ইতিমধ্যেই দেশের সেরা ৩ ব্যাংকের তকমা পেয়েছে SBI, HDFC ও ICICI Bank. অর্থাৎ ৩ টির মধ্যে দুটি বেসরকারি ব্যাংক। সুতরাং ভবিষ্যতে কি হবে তার ইঙ্গিত এখনই পাওয়া যাচ্ছে।
Written by Rajib Ghosh.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(109) ""