প্রকল্প

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে এখনও আবেদন করেননি? সরকার দিলো আরো বড়ো সুযোগ

Adv

পশ্চিমবঙ্গের জনগণের হাতের মুঠোয় রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে কার্যকরী বিভিন্ন প্রকার প্রকল্প, যোজনার সুবিধা পৌঁছে দেওয়ার স্বার্থেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে দুয়ারে সরকার ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়েছে। ইতিপূর্বে রাজ্য সরকারের ঘোষণা অনুসারে, বিগত মাসের অর্থাৎ নভেম্বর মাসের ১ তারিখ থেকে ৩০ তারিখ পর্যন্ত রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় দুয়ারে সরকারের ক্যাম্প আয়োজন করা হয়েছিলো। তবে তাতে অনেক দুর্গম স্থানের জনগণ বিভিন্ন প্রকল্প, যোজনা বা স্কলারশিপের জন্য আবেদন জানাতে পারেননি, আর তাই সেইসকল মানুষের কথা মাথায় রেখে পুনরায় দুয়ারে সরকারের সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফে।

যদিও শুধুমাত্র দুয়ারে সরকারের সময়সীমা বৃদ্ধি করেই ক্ষান্ত হয়নি রাজ্য সরকার, এর পাশাপাশি দুয়ারে সরকারের পরিষেবাও বৃদ্ধি করা হয়েছে রাজ্য সরকারের তরফে। এতোদিন পর্যন্ত দুয়ারে সরকারের ক্যাম্পে যেসকল পরিষেবা পাওয়া যেতো আগামী দিনে তার তালিকায় আরও দুটি নাম যুক্ত হতে চলেছে।

Ad

চলতি বছরের অর্থাৎ ২০২২ সালের নভেম্বর মাসের শেষে দুয়ারে সরকার শেষ হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু তার আগেই হিঙ্গলগঞ্জের শামশেরনগরে সরকারি পরিষেবা প্রদান অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে ওই গ্রামের সাধারণ জনগণ অভিযোগ জানিয়েছিলেন যে, কম সময়ের জন্য তারা অনেকক্ষেত্রেই আবেদনপত্র জমা দিতে পারেননি। আর এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে পরদিনই নবান্নের তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ডিসেম্বর মাসের ৫ তারিখ অর্থাৎ ৫ই ডিসেম্বর পর্যন্ত দুয়ারে সরকারের ক্যাম্পগুলোতে পরিষেবা পাবেন নাগরিকরা। এরপর পুনরায় রাজ্যবাসীর সুবিধার কথা মাথায় রেখে দুয়ারে সরকার কর্মসূচির সময়সীমা বাড়িয়ে ডিসেম্বর মাসের শেষ পর্যন্ত করা হয়েছে। অর্থাৎ গোটা ডিসেম্বর মাস জুড়ে রাজ্যের প্রতিটি জেলায় দুয়ারে সরকারের ক্যাম্প আয়োজিত হবে। বিগত শুক্রবার রাজ্যের মুখ্য সচিব এক নির্দেশিকা মারফত সমগ্র রাজ্যবাসীর উদ্দেশ্যে এসম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানিয়েছেন।

স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপের অধীনে কোন কোর্সে কতো টাকা পাবেন জেনে নিন

তবে এখানেই শেষ নয়, এই নির্দেশিকায় নবান্নের তরফে আরও জানানো হয়েছে, খাদ্যসাথী, স্বাস্থ্যসাথী, কন্যাশ্রী, লক্ষ্মীর ভান্ডারের মতো ২৫ টি প্রকল্পের পাশাপাশি বকেয়া বিদ্যুৎ বিল জমা দেওয়ার সুবিধা পাবেন নাগরিকরা। এছাড়াও দুয়ারে সরকারের ক্যাম্প থেকে জমির পাট্টার জন্যও আবেদন জানাতে পারবেন রাজ্যবাসী। এর পাশাপাশি নাগরিকদের দুয়ারে সরকারের ক্যাম্পে গিয়ে যাতে কোনোরূপ হয়রানির শিকার না হতে হয় তার দিকেও নজর দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে প্রশাসনের তরফে। এমনকী যেসকল নাগরিকরা দুর্গম এলাকায় থাকার কারণে ক্যাম্পে আসতে পারেন না তাদের কাছে মোবাইল ভ্যান নিয়ে পৌঁছে যেতে হবে। এর পাশাপাশি পাড়ায় সমাধান কর্মসূচিও কার্যকরী করা হবে এই একই সময়ে।

এরকম আরো গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সবার আগে পেতে যুক্ত হন আমাদের টেলিগ্রাম গ্রুপে – Link

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(101) ""