পশ্চিমবঙ্গের খবর

Calcutta High Court – পুর নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় নয়া নির্দেশ হাইকোর্টের অবকাশকালীন ডিভিশন বেঞ্চের, পরবর্তী শুনানি কবে?

Adv

পুর নিয়োগ দুর্নীতি মামলা নিয়ে নয়া নির্দেশ দিলো Calcutta High Court. এর আগে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি নিয়ে একের পর এক তথ্য সামনে এসেছিলো। নবম-দশম শ্রেণি, গ্রুপ ডি, গ্রুপ সি-র পর এবার পুরসভার নিয়োগেও দুর্নীতির ইঙ্গিত মিলেছিল। অয়ন শীল, যিনি নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় গ্রেফতার হয়েছিলেন, তার সল্টলেক অফিসে তল্লাশি চালিয়ে বহু নথিপত্র পেয়েছিলেন তদন্তকারীরা। এরপরই একাংশের আশঙ্কা, পুরসভাগুলির নিয়োগের ক্ষেত্রেও দুর্নীতির আঁচ থাকতে পারে। মামলা গড়ায় হাইকোর্টে।

Calcutta High Court

সম্প্রতি সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, পুর নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় সিঙ্গল বেঞ্চের নির্দেশে স্থগিতাদেশ দেওয়া হবে না, জানাল হাইকোর্টের (Calcutta High Court) অবকাশকালীন ডিভিশন বেঞ্চ। অর্থাৎ তদন্ত চলতে থাকবে আগের মতোই। পাশাপাশি পরবর্তী শুনানির দিনও ঘোষণা করল অবকাশকালীন ডিভিশন বেঞ্চের বিচারপতিরা।প্রসঙ্গত, অয়ন শীলের বাড়ি থেকে পাওয়া বেশ কিছু নথিপত্রের উপর ভিত্তি করেই CBI এর উপর তদন্তের ভার দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়।

Ad

সূত্রের খবর, রাজ্যের একাধিক পুরসভায় নিয়োগসংক্রান্ত কাগজপত্রও (OMR শিট) পাওয়া যায়। এরপরই তদন্তকারীরা আশংকা করেন, নিয়োগ দুর্নীতি কেবলমাত্র শিক্ষক নিয়োগে নয়, পুরসভায় নিয়োগের ক্ষেত্রেও হয়েছে। পুর নিয়োগে দুর্নীতির অভিযোগের তদন্তের জন্য আদালতের দ্বারস্থ হয় এজেন্সি। সেই সময় বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের একক বেঞ্চ নির্দেশে জানানো হয়েছিল সিবিআই পুর নিয়োগ দুর্নীতির অভিযোগের তদন্ত করতে পারবে।

36000 শিক্ষকের চাকরি বাতিল, কোন শর্তে চাকরি বাঁচতে পারে?

প্রয়োজনে এড এর পাওয়া নথিপত্রকে সূত্র ধরে তদন্ত চালাতে পারবে সিবিআই, এমনটাও জানায় হাইকোর্ট। এরপরই দেশের শীর্ষ আদালতের নির্দেশে এক সপ্তাহের জন্য অন্তর্বর্তী স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়। পাশাপাশি রাজ্য সরকারকে রিভিউ পিটিশন দাখিলেরও নির্দেশ দেওয়া হয়। পরবর্তীতে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মতো বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের বেঞ্চ থেকে শিক্ষক নিয়োগ ও পুর নিয়োগ দুর্নীতি মামলা সরে যায় এবং বিচারপতি অমৃতা সিনহার সিঙ্গেল বেঞ্চে আসে।

বিচারপতি অমৃতা সিনহা বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের নির্দেশ বহাল রাখেন। রাজ্য পুর নিয়োগ দুর্নীতিতে সিবিআই তদন্তের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে যায় সুপ্রিম কোর্টে। আবারও সুপ্রিম কোর্টের রায় অনুসারে হাইকোর্টের সিঙ্গেল বেঞ্চের রায়কে পুর্ণবিবেচনা করার জন্য ডিভিশন বেঞ্চে বিষয়টি আসে। এরপরই এই নিয়ে নির্দেশ দিলো হাইকোর্টের (Calcutta High Court) অবসরকালীন ডিভিশন বেঞ্চ।

প্রাথমিকে প্রায় 12 হাজার শূন্যপদে নিয়োগের নির্দেশ দিলো সুপ্রিম কোর্ট।

কবে পুর নিয়োগ দুর্নীতি মামলার পরবর্তী শুনানি?
সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, অবসরকালীন ডিভিশন বেঞ্চের বিচারপতি বিশ্বজিৎ বসু ও বিচারপতি অপূর্ব সিনহা রায় জানান, আগামী ৬ জুন পরবর্তী শুনানি হবে। সেই শুনানি নিয়মিত বেঞ্চে হবে। আরো নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, ইডি কে পরবর্তী শুনানিতে শিক্ষক নিয়োগের সঙ্গে পুর নিয়োগ দুর্নীতি মামলা জড়িয়ে রয়েছে সেই তথ্য পেশ করতে হবে, অর্থাৎ যেমনটা তদন্তকারী আধিকারিকরা দাবি করেছিলেন।
এই সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(103) ""