অর্থনীতি

Cash Withdrawal – 6 মাস টাকা তুলতে পারবেন না গ্রাহকরা। এই ব্যাংকের ওপর কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি করলো RBI.

Adv

আনন্দ অনুষ্ঠানের মাঝেই এলো খারাপ খবর। এবারে Cash Withdrawal বা টাকা তোলার নিয়ম নিয়ে আবার বড় খবর। আবার আর একটি ব্যাংকের উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করল রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া (Reserve Bank Of India). এই ব্যাংক থেকে টাকা তোলার উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করল রিজার্ভ ব্যাংক। এই ব্যাংকে যাদের একাউন্ট আছে তারা এই মুহুর্তে কন রকমের লেনদেন করতে পারবে না। পর্যাপ্ত মাত্রায় টাকা তুলতে পারবেন না তারা।

Cash Withdrawal Will Suspended By RBI In This Bank.

সেভিংস, কারেন্ট বা অন্য যে কোনো ধরনের একাউন্ট থেকেই টাকা তুলতে (Cash Withdrawal) পারবেনা গ্রাহকরা। এই নিষেধাজ্ঞা জারির ফলে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে এই ব্যাংকের গ্রাহকদের মধ্যে। মহারাষ্ট্র ভিত্তিক শিরপুর মার্চেন্ট কো অপারেটিভ ব্যাংকের উপরে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে রিজার্ভ ব্যাংক। এই বছর খানেক ধরে একের পর এক সমবায় ব্যাংক গুলো বন্ধ (Cash Withdrawal) হয়ে যাচ্ছে।

Ad

আর এক্ষেত্রে বিপদ আঁচ করে আগাম পদক্ষেপ নিয়েছে রিজার্ভ ব্যাংক। তবে এই শিরপুর মার্চেন্ট সমবায় ব্যাংকের লাইসেন্স বাতিল করা হয়নি। শুধুমাত্র আগামী 6 মাসের জন্য এই ব্যাংকে থাকা সব একাউন্ট থেকে টাকা তোলার উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে অর্থাৎ গ্রাহকরা তাদের সেভিংস, কারেন্ট, রেকারিং কোনো থেকেই টাকা তুলতে পারবে (Cash Withdrawal Block) না আগামী 6 মাস। গত 8 ই এপ্রিল থেকে এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

Cash Withdrawal বন্ধ থাকলেও রিজার্ভ ব্যাংক জানিয়েছে গ্রাহকরা চাইলে এই ব্যাংকে রাখা টাকা দিয়ে নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে Loan EMI মেটাতে পারবেন। শিরপুর মার্চেন্ট কো অপারেটিভ ব্যাংক বর্তমানে কোনো গ্রাহকদের থেকে টাকা জমা বা কোথাও বিনিয়োগ করা, টাকা তোলা এই সব কাজ করতে পারবে না। তবে অন্য ব্যাংকিং কাজ চলিয়ে যেতে পারবে। এই সময় ব্যাংকের কোনো সম্পত্তি (Cash Withdrawal) বিক্রি করা যাবে না।

RBI তার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, গ্রাহকদের জমানো আমানত ঝুঁকির মুখে পরে যাওয়াতেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই বিষয় নিয়ে এই ব্যাংকের গ্রাহকদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে গিয়েছে। অনেকেই ভাবছেন তাদের পুরো জমানো টাকাটা বুঝি মার খেয়ে গেল। তবে এমনটা নয়। রিজার্ভ ব্যাংক জানিয়েছে, শিরপুর মার্চেন্ট কো অপারেটিভ ব্যাংকের লাইসেন্স (Cash Withdrawal) তারা বাতিল করছে না।

Aadhaar Card Loan (আধার কার্ড লোন)

তবে এই নিষেধাজ্ঞার ফলে তাদের হাল আবার ফিরে আসবে। এই দিকে Deposit Insurance and Credit Guarantee Corporation বা DICGC এর কাছে ব্যাংকের প্রতিটি একাউন্টের 5 লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিমা করা থাকে। তাই যদি আগামী দিনেক এই ব্যাংক গ্রাহকদের টাকা ফেরত দিতে না পারে তাহলে ভেঙ্গে পড়ার দরকার নেই। কারন এই বীমার ফলে আপনি সর্বোচ্চ 5 লক্ষ টাকা পর্যন্ত ক্ষতিপুরণ পাবেন।

ATM এ লাইন দিয়ে টাকা তোলার দিন শেষ! বাড়িতে বসেই এইভাবে টাকা তুলুন।

আর এই টাকা তোলা বা Cash Withdrawal নিয়ে নিষেধাজ্ঞা শুধুমাত্র পূর্বে উল্লেখিত ব্যাংকের জন্যই। আর বাকি সকল ব্যাংকের গ্রাহকরা খুবই সহজে আগের মত এই কাজ সম্পন্ন করতে পারবেন এবং পশ্চিমবঙ্গের কোন ব্যাংককে এই ধরণের নির্দেশ দেওয়া হয়নি, তাই নববর্ষের মুহূর্তে কাউকেই এই নিয়ে কোন চিন্তা করার দরকার নেই।
Written by Ananya Chakraborty.

5 লাখ টাকা দিচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার। টাকা পেতে কিভাবে আবেদন করবেন?

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(102) ""