প্রকল্প

দুয়ারে সরকার শিবিরে পাবেন নতুন নতুন পরিষেবা, কোনটি আপনার জন্য? আপনার এলাকায় কবে?

Adv

দুয়ারে সরকার শিবিরে নতুন ২টি পরিষেবা।

পহেলা সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে দুয়ারে সরকার পরিষেবা। সমস্ত এলাকায় এই পরিষেবা পাবেন রাজ্যের সমস্ত নাগরিকেরা। এবার কি কি সুবিধা পাবেন, শিবির শুরু আগে জেনে নিন।
সিপিআইএম পরিচালিত বামফ্রন্ট সরকারকে হঠিয়ে দিয়ে রাজ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই রাজ্য জুড়ে সমস্ত স্তরের মানুষের জন্য একের পর এক নিত্যনতুন জনমুখী পরিষেবা দেওয়ার লক্ষ্যে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। সেই সমস্ত সামাজিক প্রকল্প রচনা এবং বাস্তবায়িত হওয়ার ফলে রাজ্যের অসংখ্য মানুষ উপকৃত হয়েছেন।

Ad

দুয়ারে সরকার প্রকল্পের লক্ষ্য

রাজ্য সরকারের জনমুখী পরিষেবার তালিকায় খুবই গুরুত্বপূর্ণ হল দুয়ারে সরকার ক্যাম্প (Duare Sarkar Camp) এই দুয়ারে সরকার ক্যাম্পের মাধ্যমে রাজ্যের প্রত‍্যন্ত এলাকার সাধারণ মানুষ যেভাবে সরকারি পরিষেবা পেয়ে থাকেন, সেই চিত্র আগে কখনোই দেখা যেত না। স্বাভাবিক নিয়মে সমস্ত মানুষকে সরকারি প্রকল্পের পরিষেবা অথবা সরকারি দপ্তরের কোনো প্রয়োজনীয় কাজ করতে হলে সরকারের সেই নির্দিষ্ট অফিসে গিয়ে দিনের পর দিন লাইন দিয়ে ছুটোছুটি করতে হতো।

আর সেই পরিস্থিতির বদল ঘটিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ২০২০ সালে দুয়ারে সরকার শিবির চালু করেন তিনি। যার মাধ্যমে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে যায় রাজ্য সরকার। রাজ্যের সমস্ত স্তরের মানুষ নিজের এলাকায় বাড়ির সামনেই দুয়ারে সরকার শিবিরের মাধ্যমে সরকারি সমস্ত পরিষেবা পেয়ে থাকেন। আর দেশ জুড়ে এই দুয়ারে সরকার শিবির প্রশংসিত হয়েছে।

এবার ফের লোকসভা নির্বাচনের (Loksabha Election 2024) আগে ১ সেপ্টেম্বর থেকে ১৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রাজ্য জুড়ে দুয়ারে সরকার শিবির অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। ইতিমধ্যেই সরকারের তরফে ঘোষণা করে জানানো হয়েছে। সপ্তম দফার দুয়ারে সরকার শিবির 1 সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে।

নতুন পরিষেবা

এবার সেপ্টেম্বর মাস থেকে যে দুয়ারে সরকার শুরু হচ্ছে, তাতে নতুন ২টি প্রকল্পের সুবিধা পাবেন রাজ্যবাসী। একটি প্রকল্প হলো, বার্ধক্য ভাতা (Old Age Pension) এবং দ্বিতীয়টি হল, পরিযায়ী শ্রমিকদের নাম নথিভুক্তিকরণ বা রেজিস্ট্রেশন (Migrant Workers Registration) রাজ্যের যে সমস্ত ৬০ বছরের বেশি বয়সী মানুষ রয়েছেন, তারা প্রয়োজনীয় নথিপত্র সমেত বাড়ির কাছে দুয়ারে সরকার শিবিরে গিয়ে বার্ধক্য ভাতার জন্য আবেদন করতে পারবেন।

রাজ্য সরকারের তরফে প্রতি মাসে ১০০০ টাকা করে বার্ধক্য ভাতা দেওয়া হবে। এছাড়াও পরিযায়ী শ্রমিকদের নাম রেজিস্ট্রেশন এর প্রক্রিয়া এবার দুয়ারে সরকার শিবিরে চলবে। শ্রমিকদের জন্য রাজ্য সরকার একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। যেহেতু সেই সমস্ত শ্রমিকেরা বাইরের বিভিন্ন রাজ্যে জীবিকার তাগিদে কাজ করতে যান, তাই তারা কোনো সমস্যার সম্মুখীন হলে যাতে রাজ্য সরকারের তরফে চটজলদি পদক্ষেপ নেওয়া যায়, সেই লক্ষ্যে পরিযায়ী শ্রমিকদের নাম রেজিস্ট্রেশন এর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

Duare Sarkar (দুয়ারে সরকার)

তাছাড়াও বিভিন্ন ধরনের সরকারি সুবিধার বিষয়েও রাজ্য সরকার সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে। আর প্রত‍্যন্ত এলাকা যেমন সুন্দরবনের দ্বীপ সংলগ্ন এলাকা, উত্তরবঙ্গের কালিম্পং, কার্শিয়াংয়ের পাহাড় এলাকায় মোবাইল ক্যাম্পের মাধ্যমে দুয়ারে সরকার শিবিরের পরিষেবা (Duare Sarkar Mobile Camp) দেওয়া হবে। এছাড়াও রাজ্যজুড়ে দুয়ারে সরকার শিবিরের অঙ্গ হিসেবে মানুষের বাড়ির দোরগোড়ায় গিয়েও সরকারি পরিষেবা দেওয়ার সিদ্ধান্ত এর আগেই গ্রহণ করেছিল রাজ্য সরকার।

আরও পড়ুন, 11 টি নতুন কয়েন ও নোট বাজারে এলো, সবার আগে জেনে নিন।

ফলে এবারের দুয়ারে সরকার শিবিরে নতুন ২টি সরকারি পরিষেবা প্রদান করা হবে। সর্বমোট 35 টি সরকারি পরিষেবার সুবিধা পাবেন রাজ্যবাসী। এছাড়াও ইতিমধ্যেই রাজ্যের বিভিন্ন ব্লকে শিল্পের সমাধান নামকরণে নতুন কর্মসূচি পরিচালনা করেছে রাজ্য সরকার। যার মাধ্যমে ব্যক্তি, স্বনির্ভর গোষ্ঠী থেকে শুরু করে যারা বিভিন্ন ধরনের ক্ষুদ্র শিল্প ইউনিটের স্থাপন করতে চান বা ছোটখাটো ব্যবসা করতে চান, তারা ঋণের জন্য আবেদন করতে পারেন। তার সঙ্গে শিল্প সংক্রান্ত কোনো সমস্যা থাকলে সেই সমাধানের লক্ষ্যেও রাজ্য সরকারের তরফে তাকে সহযোগিতা করা হবে।

আরও পড়ুন, ফ্রী অফার ফিরে এলো, সারা বছর কলিং, ডেটা আনলিমিটেড।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(103) ""