গুরুত্বপূর্ণ খবর

E Shram Card – ভোটের আগে টাকা দিচ্ছে সরকার। এই কার্ড করলেই, ছেলে মেয়ে সকলেই প্রতিমাসে পাবেন 3000 টাকা করে।

Adv

সামনেই লোকসভা ভোট আর এই ভোটের কথা মাথায় রেখে E Shram Card বা ই শ্রম কার্ড নিয়ে মোদী সরকারের (Modi Government) তরফে আবার তোড়জোড় শুরু করা হল। আর ভোটের আগে সাধারন মানুষদের জন্যে নানা রকমের জনমুখী প্রকল্প থেকে শুরু করে নানা রকম সুবিধা নিয়ে আসা হয় সরকারের তরফে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (PM Narendra Modi) ই শ্রম কার্ড বলে একটি প্রকল্প চালু করেছে দেশের গরিব মানুষদের জন্যে।

E Shram Card Online Apply Process.

এই E Shram Card এর মাধ্যমে প্রতিমাসে 3000 টাকা করে পাবে গরিব মানুষরা। এই টাকা পাওয়ার জন্য কন ঝক্কি পোহাতে হবে না শুধু আবেদন করলেই হয়ে যাবে। প্রমান হিসেবে শুধু নথিপত্র। আপনারও যদি প্রতি মাসে 3 হাজার টাকা পেতে চান তাহলে এই প্রতিবেদনটি বিস্তারিত পড়ুন। প্রধানমন্ত্রী 2014 সালে ক্ষমতায় আসার পর থেকে অনেক জনমুখী প্রকল্প চালু করেছে।

প্রধানমন্ত্রী উজ্জ্বলা যোজনা (PM Ujjwala Yojana), আয়ুষ্মান ভারত যোজনা (Ayushman Bharat Yojana), রোজগার মেলা (PM Rojgar Mela), প্রধানমন্ত্রী কিষান যোজনা (PM Kisan Yojana) ও আরো অনেক। আর এই কারণের জন্য আপনারা এই ই শ্রম কার্ড দেওয়ার মাধ্যমে দেশের কোটি কোটি অসংগঠিত শ্রেণীর কর্মীদের ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত করার জন্য নিয়ে আসা হয়েছে।

এগুলোর মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য একটি হল E Shram Card. এই প্রকল্পের মুল উদ্দেশ্য হল যারা অসংগঠিত ক্ষেত্রে কাজ করেন, যারা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী যাদের কোনো নির্দিষ্ট রোজগার নেই তাদের ভবিষৎ এর নিরাপত্তার জন্যে এই প্রকল্প চালু করেছে সরকার। 16 বছর বয়স হলেই এই প্রকল্পে আবেদন করা যায়। আর 60 বছর বয়স হলে পাওয়া যায় 3000 টাকা পেনশন। এখনো পর্যন্ত দেশের মোট 20 কোটি মানুষ E Shram Card নাম নথিভুক্ত করেছেন। যার মধ্যে 2 কোটি মানুষকে সুবিধা দিয়েছে সরকার।

E Shram Card Benefits

১. এই কার্ড এর মাধ্যমে যাদের কোনো স্থায়ী রোজগার নেই তারা প্রতি মাসে 3000 টাকা করে পেনশন পাবেন।
২. এই কার্ড সারা ভারতে যে কোনো প্রান্তে গ্রাহ্য হয়।
৩. সুবিধাভোগীদের স্বয়ংক্রিয়ভাবে সরকার প্রধানমন্ত্রী সুরক্ষা বীমা যোজনার আওতায় নাম তুলে দেয়। PMSBY এর মাধ্যমে কোন ব্যক্তি যদি দুর্ঘটনা জনিত কারণে নিজের প্রাণ হারান বা পূর্ণাঙ্গ ভাবে বিকলাঙ্গ হয়ে পড়েন তবে তার পরিবারকে 2 লক্ষ টাকা বীমা প্রদান করা হয়।

৪. সেই ব্যক্তি যদি আংশিক আহত হন তাহলে 1 লক্ষ টাকা বীমা পায়।
৫. E Shram Card মালিকরা প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার ও সুবিধা পেয়ে থাকেন। যার মাধ্যমে কারোর যদি পাকা।
৬. বাড়ি বা নির্দিষ্ট বাসস্থান না থাকে সেটি বানিয়ে দেওয়ার জন্য টাকা দেয় সরকার।
৭. যদি কোন গর্ভবতী মহিলার E Shram Card থাকে এবং তিনি কাজ করতে সক্ষম না হন সেই পরিস্থিতিতেও।
৮ সরকার ওই মহিলার পরিবারকে নিয়মিতভাবে প্রতিমাসে বেতন প্রদান করে।
৯. এই কার্ড এর মাধ্যমে আবেদনকারীরা তাদের পড়াশোনার জন্য অর্থ সাহায্য পাবেন।

E Shram Card Online Apply Process

১. যারা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী, ভাগচাষ বা অন্যান্য অসংগঠিত ক্ষেত্রের কর্মী তাদেরই এই সুবিধা দেওয়া হয়।
২. আর যারা নিয়মিত আয়কর জমা দেন তারা আবেদন করতে পারবেন না। আবেদনকারী EPFO কিম্বা ESIC এর। ৩. মেম্বার হলে এই E Shram Card সুবিধা নিতে পারবেন না। এই প্রকল্পে সর্বনিম্ন 16 বছর এবং সর্বোচ্চ 59 বছর বয়সীরা আবেদন করতে পারবেন।
৪. এই E Shram Card আবেদন করার জন্যে আধার কার্ড, এক কপি পাসপোর্ট সাইজ ফোটো, প্যান কার্ড, ব্যাংক একাউন্ট আর বৈধ মোবাইল নম্বর।

SBI Personal Loan (স্টেট ব্যাংক পার্সোনাল লোন)

E Shram Card Online Apply Process

১. প্রথমে E Shram Card এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে জেটে হবে।
২. পেজের ডান পাশে থাকা New Registration বাটানে ক্লিক করুন।
৩. ‘Registration on E Labour অপশন নির্বাচন করুন।
৪. এরপর আপনার বৈধ মোবাইল নম্বরটি এন্টার করুন যেটিতে আধার নম্বর সংযুক্ত আছে।

একাউন্টে টাকা দেবে মোদী সরকার। ভোটের আগেই ঢুকে যাবে। কারা কারা পাবেন?

৫. Send OTP তে ক্লিক করুন।
৬. OTP লিখে Submit বটান এ ক্লিক করলে নতুন পেজ ওপেন হবে।
৭. এখানে একটি আবেদন পত্র দেখা যাবে। সেটিতে আপনার ব্যক্তিগত, কাজের এবং ব্যাঙ্কের বিবরণ সঠিক ভাবে লিখতে হবে।
৮. এরপর Submit বাটন প্রেস করলেই আবেদন শেষ।
Written by Ananya Chakraborty.

টাকার দরকার হলে মাত্র 5 মিনিটে পাবেন। বাজাজ ফাইন্যান্স পার্সোনাল লোন আবেদনের প্রক্রিয়া জানুন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(103) ""