শিক্ষা

উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়ে বড়ো আপডেট দিল শিক্ষা দপ্তর। বদলে গেল পরীক্ষার ধরন

Adv

২০২২ শেষ হতে আর মাত্র কয়েকটা দিন বাকি আর তারপরই শুরু হয়ে যাবে নতুন বছর অর্থাৎ ২০২৩ সাল। আর এই নতুন বছরের মার্চ মাস থেকে শুরু হতে চলেছে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। ইতিপূর্বে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা সংক্রান্ত নানাপ্রকার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ্যে আনা হলেও এবারে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ঠিক আগেই উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা সংক্রান্ত আরও এক নতুন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ্যে আনা হলো পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের তরফে। জানা গিয়েছে যে, আগামী বছর অর্থাৎ ২০২৩ সালে যেসমস্ত পরীক্ষার্থীরা উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে চলেছেন তাদের উত্তরপত্রের ক্ষেত্রে এক বড় বদল আনা হবে পর্ষদের তরফে।

ইতিপূর্বে পর্ষদের তরফে এক বিজ্ঞপ্তি মারফত সমগ্র রাজ্যের শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী এবং অভিভাবকদের জানানো হয়েছিলো যে, ২০২৩ সালে যে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে চলেছে তার প্রশ্নপত্রে বদল আনা হবে পর্ষদের তরফে। প্রাথমিকভাবে জানানো হয়েছিলো যে, ছাত্র-ছাত্রীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখেই এই নতুন ধরনের প্রশ্নপত্রের প্রবর্তন করা হয়েছে। আর এবারে সেই প্রশ্নপত্রের উপযোগী উত্তরপত্র তৈরি করতে গিয়ে উচ্চমাধ্যমিকের উত্তরপত্রেও বদল আনতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ।

Ad

ইতিপূর্বে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার ক্ষেত্রে ছাত্র-ছাত্রীদের উত্তরপত্রের দুটি অংশ ছিল, পার্ট-এ এবং পার্ট-বি। পার্ট-এ অংশে ছাত্র-ছাত্রীদের সমস্ত বড় প্রশ্নের উত্তর লিখতে হতো এবং পার্ট-বি অংশে ছাত্র-ছাত্রীদের এমসিকিউ এবং এসএকিউ প্রশ্নগুলি থাকতো, যার উত্তর এই অংশে লিখেই পার্ট-এ এর সাথে যুক্ত করে জমা দিতে হতো। তবে আগামী দিনে প্রশ্নপত্র অথবা উত্তরপত্র কোনোটাই এভাবে দুটি অংশে বিভক্ত করা থাকবে না। নতুন উত্তরপত্রে প্রথম তিন পাতা জুড়ে মাল্টিপল চয়েজ প্রশ্ন এবং শর্ট অ্যানসার লেখার জায়গা থাকবে। এই অংশে সর্বাধিক ৩০ টা প্রশ্নের উত্তর লেখার জন্য জায়গা করা থাকবে।

পয়লা জানুয়ারি থেকে ব্যাঙ্কে চালু হচ্ছে নতুন নিয়ম। সকলকে মানতে হবে।

দ্বিতীয় এবং তৃতীয় পাতায় থাকবে SAQ-এর উত্তর লেখার জায়গা। এসএকিউ-এর ক্ষেত্রে একটি বক্সে সর্বাধিক দুই লাইনের উত্তর লিখতে পারবেন একজন শিক্ষার্থী। চতুর্থ পাতা থেকে সাধারণ প্রশ্নের উত্তর লেখা শুরু করতে হবে। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, ছাত্র-ছাত্রীদের পাশাপাশি এই নতুন ধরনের উত্তরপত্রের ফলে আগামী দিনে যারা খাতা দেখবেন তাদেরও যথেষ্ট সুবিধা হবে। আগে উত্তরপত্রের পৃথক দুটি অংশ থাকায় অনেকক্ষেত্রেই যারা খাতা দেখতেন তাদের নানাধরনের সমস্যা হতো। আগামী দিনে আর তা হবে না বলেই মনে করা হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের তরফে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(83) ""