ট্রেন্ডিং

Weather Update – তীব্র গরমে নাজেহাল হতে হবে। সমস্ত রেকর্ড ভাঙবে এবার। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা 50 ডিগ্রি পার?

Adv

যত দিন এগোচ্ছে আবহাওয়ার পরিবর্তন হচ্ছে তীব্র গতিতে (Weather Update). আবহাওয়াবিদরা বলছে গত বছরের তুলনায় এই বছর গরমের পরিমান বাড়তে পারে। 2 ডিগ্রির কাছাকাছি বাড়তে পারে তাপমাত্রা। ফেব্রুয়ারি মাসে যেখানে ঠান্ডার আমেজ উপভোগ করার কথা সেখানে অনেক জায়গায় এখন ফ্যান পরিষ্কার করতে হচ্ছে। একাধিক রাজ্যে কনকনে ঠান্ডা কমে তাপমাত্রা ঊর্ধ্বমুখী।

Weather Update For Upcoming Summer Season.

দেশজুড়ে বিভিন্ন জেলায় গড়ে 7 ডিগ্রি করে তাপমাত্রা বেড়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়াবিদরা। একদিকে ভারতের বিভিন্ন রাজ্য কনকনে ঠান্ডা উপভোগ করছে আর অপর দিকে দক্ষিন ভারতে এখনই গরমের দাপট শুরু হয়ে গিয়েছে। IMD এর আবহাওয়া বিজ্ঞানী এ প্রসাদ জানিয়েছেন, গত বছরের তুলনায় চলতি শীতের মরশুমে নূন্যতম গড় তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেয়েছে (Weather Update).

Ad

চলতি বছরে দক্ষিণ ভারতের গড় তাপমাত্রা বেড়েছে 31.7 ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা গত বছর ছিল 30 ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি (Weather Update). এক বছরে গড়ে 1 দশমিক 2 ডিগ্রি তাপমাত্রা বেড়েছে। আবহাওয়া বিজ্ঞানী এ প্রসাদের কথা অনুযায়ী এই ঘটনাটি ঘটার মুল করণ হল ‘এল নিনো’। এই এল নিনোর (El Nino) প্রভাবে তাপমাত্রা বাড়ছে। সবার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে এই এল নিনো কি?

এটি হল একতি সামুদ্রিক ঘটনা পুর্ব প্রশান্ত মহাসাগরের টপিক্যাল অঞ্চলে এটি দেখা যায়। ভুপৃষ্ঠে জলের উষ্ণায়নের জেরে এই এল নিনো তৈরি হয়। এর সরাসরি প্রভাব পরে আবহাওয়ার উপরে। এর প্রভাবে কোথাও অতি বৃষ্টি কোথাও অনা বৃষ্টি এর জেরে হবে খরা। এই এল নিনোর প্রভাবে গত বছর ভারতীয়রা (Weather Update) সব থেকে বেশি ক্ষতি গ্রস্থ হয়েছিল (Weather Update). এবার এই বছর কি হতে চলেছে এল নিনোর প্রভাবে?

এই প্রসঙ্গে এ প্রসাদ জানিয়েছেন, ‘অস্ট্রেলিয়ায় এর সর্বাধিক প্রভাব কাজ করছে। বঙ্গোপসাগরেও এবার এর প্রভাব পড়তে শুরু করবে। দক্ষিন আমেরিকায় (South America) ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি পড়বে। আর অস্ট্রেলিয়ায় (Australia) দেখা দেবে খরা। ভারত মহাসাগর (Indian Ocean) উপকূলেও একই পরিস্থিতি তৈরি হবে। চলতি বছর গ্রীষ্মে অন্য বছরের তুলনায় গরম বাড়বে। এল নিনো’ই এর মূল কারণ।

Cooking Gas (রান্নার গ্যাস)

আবহাওয়াবিদদের মতে সাধারন এল নিনোর পরের গ্রীষ্মে হিটওয়েভ অনেক বেশি বারে অর্থাৎ চলতি বছরে এটি হওয়ার সম্ভবনা বেশি। বিজ্ঞানীদের মতে একদিকে গ্লোবাল ওয়ার্মিং (Global Warming) এবং অপর দিকে এল নিনো এর প্রভবে এই বছর রেকর্ড (Weather Update) গরম পড়বে। তবে একটি স্বস্তির খবর ও আছে চলতি বছরে জুন ও আগস্ট এর মধ্যে ‘লা নিনো’ প্রবেশ করতে পারে।

কারেন্ট বিল কমাতে বিরাট উদ্যোগ। সরকারের এই প্রকল্পে উপকৃত কয়েক কোটি পরিবার।

আবহাওয়াবিদদের কথায়, ভারতে এল নিনো ENSO অবস্থায় রূপান্তরিত হলেও বর্ষা গত বছরের তুলনায় ভালো হবে বলে আশা করা হচ্ছে। তবে আশংকা করা হচ্ছে তাপমাত্রা বাড়ার কারনে ঘূর্ণিঝড়ের দাপট ও বাড়তে পারে। আর এরকম হলে সকলের বেঁচে থাকা মুশকিল হতে চলেছে বলে মনে করছেন অনেকে (Weather Update). এবারে দেখার অপেক্ষা যে আগামীদিনে এই নিয়ে কি হতে চলেছে।
Written by Ananya Chakraborty.

হটাৎ টাকার দরকার হলে টাকা দেবে বন্ধন ব্যাংক। এই কার্ড করে নিন, যখন খুশি টাকা তুলুন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(103) ""