গুরুত্বপূর্ণ খবর

Eshram Card – ভোটের আগে নতুন কার্ড দিচ্ছে মোদী সরকার। এই কার্ড পেলেই মাসে পাবেন 3 হাজার টাকা।

Adv

Eshram Card বা ই শ্রম কার্ড আমাদের দেশের আর এক নতুন অনবদ্য পরিচয়পত্র হয়ে উঠতে চলেছে, এমনই মনে করছেন অনেকে। আমাদের দেশের যত জনসংখ্যা সেই জনসংখ্যার কিছু অংশ সংগঠিত ক্ষেত্রে কাজ করে আর কিছু অংশ অসংগঠিত ক্ষেত্রে কাজ করছে। সংগঠিত ক্ষেত্রে বলতে সরকারি আর বেসরকারি চাকরির কথা বলা হয় আর অসংগঠিত ক্ষেত্রে বলতে শ্রমিকদের বোঝায়।

Eshram Card Registration.

40 কোটির বেশি মানুষ প্রতিদিন অসংগঠিত ক্ষেত্রে কাজ করছে। কিন্তু তাদের আর্থিক নিরাপত্তা বা ভবিষ্যত সঞ্চয় বলে কিছু নেই। তাই সেই সব মানুষদের কথা ভেবে কেন্দ্র সরকার (Central Government) এই Eshram Card চালু করেছে। এই কার্ড এর মাধ্যমে এইসব অসংগঠিত ক্ষেত্রে কাজ করা মানুষদের নানা ধরনের সুবিধা দিচ্চে সরকার। 60 বছর বয়সের পর কি করে রোজগার করবেন সংসার চালাবেন কি করে তার কিছুই জানেন না এইসব শ্রমিকরা।

Ad

কাজে না গেলে বেতন কেটে নেওয়া হয়। তাই কেন্দ্র এই বিপুল সংখ্যক মানুষদের স্বস্তি দিতে Eshram Card এনেছেন। কেন্দ্র সূত্রে খবর এখন পর্যন্ত দেশের 20 কোটি মানুষ ই-শ্রম কার্ডের জন্য আবেদন করেছেন। তার মধ্যে 2 কোটি মানুষ এই কার্ড এর অন্তর্ভুক্ত পরিষেবা গুলো পাচ্ছে। কেন্দ্রীয় শ্রম মন্ত্রক এর তরফ থেকে বলা হয়েছে বাকিদেরও খুব তাড়াতাড়ি এই পরিষেবার আওতায় আনা হবে।

Eshram Card – ভারতে যেমন প্রমান পত্র হিসেবে আধার কার্ড কে গুরুত্বপূর্ণ করে তুলেছে। সব কাজের ক্ষেত্রে আধার কার্ড লাগছে আধার কার্ড না থাকলে কোন কাজ হয় না। ঠিক তেমনই অসংগঠিত ক্ষেত্রে কাজ করা শ্রমিক ও সমাজের প্রন্তীক মানুষদের জন্যে ই- শ্রম কার্ড কে বাধ্যতামুলক করা হয়েছে। এই কার্ডে আপনার নাম নথিভুক্ত করা থাকলে PMAY, PMJAY, PM Kisan এর মত কেন্দ্রের আরও সব সমাজিক প্রকল্প গুলোর সুবিধা নিতে পারবেন।

এই কার্ড এ নাম থাকলে অসংগঠিত কর্মী হিসেবে 3000 টাকা করে পেনশন পেতে পারবেন। এছাড়াও বিভিন্ন বিমা, আয়ুষ্মান ভারত, কৃষকদের সাহায্য ইত্যাদি পেতে গেলেও Eshram Card নাম নথিভুক্ত করতে হবে। এর জন্য কেন্দ্রীয় সরকার ই-শ্রম পোর্টাল খুলেছে। এই কার্ড এর সুবিধা – 60 বছর বয়সের পর প্রতিমাসে 3 হাজার টাকা করে পেনশন পাবেন। কর্মরত অবস্থায় কোন কারনে পঙ্গু বা অঙ্গহানি হয়ে গেলে 1 লক্ষ টাকা পর্যন্ত আর্থিক সাহায্য পাবেন। মৃত্যু হলে 2 লক্ষ টাকা আর্থিক সাহায্য পাবেন (Eshram Card).

Para Teacher (পার্শ্বশিক্ষক নিয়োগ পশ্চিমবঙ্গে)

কারা এই কার্ড এর জন্য আবেদন করতে পারবেন এছাড়াও বিভিন্ন বিমা, আয়ুষ্মান ভারত, কৃষকদের সাহায্য ইত্যাদি পেতে গেলেও Eshram Card নাম নথিভুক্ত করতে হবে। এর জন্য কেন্দ্রীয় সরকার ই-শ্রম পোর্টাল খুলেছে।
16 থেকে 59 বছর বয়সিরা এই কার্ড এর জন্যে আবেদন দিতে পারবেন। যারা কর্মচারী ভবিষ্যৎ নীধি (EPF) ও ESI সুবিধা পান না তাঁরা এই প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করতে পারবেন।

সম্পূর্ণ বিনামূল্যে স্মার্টফোন দেবে রাজ্য সরকার, সবাই পাবে। এই মুহূর্তে বড় ঘোষণা।

কি কি নথি প্রয়োজন – এই কার্ডে আবেদন করার জন্যে আধার কার্ড, বৈধ মোবাইল নম্বর, ও ব্যাংক Account লাগবে। আবেদন কিভাবে করবেন – আপনি বাড়িতে বসে ফোন এর মাধ্যমে নিজে এই Eshram Card এর জন্যে আবেদন করতে পারবেন। এর জন্যে আপনাকে eshram.gov.in পোর্টালে গিয়ে দরকারি সমস্ত তথ্য পূরন করতে হবে। অথবা আপনার নিকটবর্তী কোনো CSC সেন্টারে গিয়েও ই-শ্রম কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন।
Written by Ananya Chakraborty.

খাদ্য দপ্তরে গ্রুপ সি ও গ্রুপ ডি কর্মী নিয়োগ। মোট 17500 জনের চাকরি

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(96) ""