পশ্চিমবঙ্গের খবর

Essential Commodities – সাধারণ মানুষের খরচ বাড়লো, অগ্নিমূল্য আলু পটল থেকে মাছ মাংসের দাম, তালিকা দেখুন।

Adv

ক্রমশ বাড়ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের (Essential Commodities) দাম। অথচ হচ্ছে না বেতন বৃদ্ধি। মধ্যবিত্ত পরিবারের সদস্যরা তাও এই খরচ এদিক ওদিক করে চালাতে পারবেন। তবে সমস্যায় পড়েছেন নিম্নবিত্ত পরিবারের সদস্যরা। এছাড়া দেশের আর্থিক দিক থেকে দুর্বল শ্রেণির মানুষেরা। এমনিতেই দিন আনা দিন খায়, এই রকম পরিবারের সংখ্যা এদেশে নেহাতই কম নয়। উপরন্তু যদি নানা দিক থেকে বাড়তি খরচ আসে, হিমশিম খেতে হয় পরিবারের রোজেগেরে মানুষটাকে, পাশাপাশি পরিবারের অন্যেনাও সদস্যরাও এর অঙ্গীভূত হন।

Essential Commodities check price list.

যেমন ধরুন মোবাইলের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে হয়, সেক্ষেত্রে যদি রিচার্জ প্ল্যানের দাম বাড়ানো হয়, কিংবা সবজির দাম বাড়ে, সেটুকুও কেনার সামর্থ্য থাকে না। জুন মাসের শুরুর দিকে সবজি বা অন্যান্য বাজারজাত জিনিসের দাম কিছুটা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে থাকলেও আরো বাড়লো দাম। সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, কলকাতা ও শহরতলীতে জুন মাসের শুরুর দিকেও মাছের চড়া ছিল। আরো বাড়লো দাম।

Ad

সবজির দাম কত ছিল?
নতুন মাস পড়ে গেছে সবে প্রথমদিন হল। গত মাসের শুরুতেই জ্যোতি আলুর কেজিপ্রতি দাম ছিল ১৬ টাকা থেকে ২০ টাকা। চন্দ্রমুখী আলুর দাম ছিল ২৪ টাকা থেকে ২৫ টাকা। অন্যান্য সবজি কেনার সামর্থ্য না থাকলেও খিদে মেটাতে অন্তত আলু সেদ্ধ-ভাত তো খেতেই হবে। তাতেও প্রায় বাজারে আগুন। চলতি মাসে বাজারে আলুর দাম প্রতি কেজিতে হয়েছে জ্যোতি আলুর কেজিপ্রতি দাম ছিল ১৬ টাকা থেকে ১৮ টাকা। চন্দ্রমুখী আলুর দাম ছিল ২০ টাকা থেকে ২২ টাকা।

অন্যান্য সবজির ক্ষেত্রে (Essential Commodities)
আগে,
টমেটোর দাম ছিল প্রতি কেজিতে ২০ থেকে ৩০ টাকা।
বেগুন, উচ্ছের দাম প্রতি কেজিতে ৪০ টাকা থেকে ৫০ টাকা।
পেঁপের প্রতি কেজির দাম রয়েছে ২৫ টাকা থেকে ৩০ টাকা।
পটল প্রতি কেজিতে ২০ টাকা থেকে ৩০ টাকা।
ঝিঙের প্রতি কেজিতে ৭০ টাকা থেকে ৮০ টাকা।

বর্তমানে,
টমেটোর দাম ছিল প্রতি কেজিতে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮০ টাকায়। অর্থাৎ দ্বিগুনেরও বেশি দাম।
বেগুনের দাম প্রতি কেজিতে ১৪০ টাকা থেকে ১৫০ টাকা।
উচ্ছের দাম প্রতি কেজিতে ৬০ টাকা থেকে ৮০ টাকা।
করলার দাম প্রতি কেজিতে ৮০ টাকা থেকে ১০০ টাকা (Essential Commodities).
পেঁপের প্রতি কেজির দাম রয়েছে ৩০ টাকা থেকে ৪০ টাকা।
পটল প্রতি কেজিতে ৪০ টাকা থেকে ৫০ টাকা।
ঝিঙের প্রতি কেজিতে ৮০ টাকা।
আদা প্রতি কেজিতে ৩০০ টাকা।
কাঁচা লঙ্কা প্রতি কেজিতে ১০০ টাকা থেকে ১৫০ টাকা।

ঘরে বসে স্কিন কেয়ার, মাত্র 2 মিনিটের ত্বকে আসবে ঝলমলে ভাব, জেনে নিন এই 4 টি টিপস।

এবার আসি আমিষ বাজারে। বাঙালি বলে কথা মাছে ভাতে না খেলে অনেকের মনই ভরে না। কিন্তু তা কিনতে গেলেও লাগবে পকেটে বড়োসড় ধাক্কা (Essential Commodities).
আগে,
গোটা রুই মাছ প্রতি কেজি দাম ছিল ২০০ থেকে ২২০টাকা।
কাটা রুই মাছ প্রতি কেজিতে ২৬০ থেকে ২৮০ টাকা।
কাতলা মাছ দাম প্রতি কেজিতে ৪০০ টাকার বেশি।
বাগদা চিংড়ি প্রতি কেজিতে ৩৫০ টাকা থেকে ৪০০ টাকা।
গলদা চিংড়ি প্রতি কেজিতে ৭০০ টাকার বেশি।
ছোট চিংড়ি ১০০ গ্রামে ৩০ টাকা।
চিকেন প্রতি কেজিতে ২২০ টাকা থেকে ২৩০ টাকা।
পাঁঠা প্রতি কেজিতে ৭৬০ টাকা থেকে ৮২০ টাকা।

বর্তমানে,
রুই মাছ প্রতি কেজি দাম ছিল ২৫০ থেকে ৩০০টাকা।
কাতলা মাছের দাম প্রতি কেজিতে ৩৫০ টাকা থেকে ৪০০ টাকা।
বড় চিংড়ি প্রতি কেজিতে ৫০০ টাকা থেকে ৭০০ টাকা।
ছোট চিংড়ি ১০০ গ্রামের দাম ৩০ টাকা।
চিকেন প্রতি কেজিতে ২৫০ টাকা।
পাঁঠা প্রতি কেজিতে ৮৬০ টাকা।

মাত্র 5 মিনিটে লোন দিচ্ছে স্টেট ব্যাংক। Home Loan, Car Loan, Personal Loan কিভাবে পাবেন জেনে নিন।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ রাজ্যের জেলাগুলির বিভিন্ন শহরের বাজারে এই জিনিসের দামে পার্থক্য থাকতে পারে (Essential Commodities)। তাই এখানে দামের দিক থেকে পুরোপুরি সঠিকভাবে বলা হচ্ছে না। এই প্রতিবেদনে জানানো সকল জিনিসের দাম গড়ভিত্তিক।
এই সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।
Written by Manika Basak.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(105) ""