শিক্ষা

ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির পড়ুয়াদের পরীক্ষার দিনক্ষণ নিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি পর্ষদের, বিস্তারিত জানুন।

Adv

প্রচন্ড গরমে অস্থির রাজ্যবাসী। কবে হবে আবহাওয়ার উন্নতি? কার্যত এই প্রশ্ন ছিল সকলের মনে। এই পরিস্থিতিতে পড়ুয়ারা যাতে অসুস্থ না হয়ে পড়েন, তার জন্য স্কুল ছুটির তালিকার আগেই দেওয়া হয়েছে গরমের ছুটি। গত 15 জুন খুলেছে রাজ্যের সমস্ত সরকারি এবং সরকার নিয়ন্ত্রিত স্কুলগুলি। স্কুল খুললেও পরীক্ষার সিলেবাস কিভাবে শেষ হবে? সেই নিয়ে একটা চিন্তা রয়েছে শিক্ষক মহলে। ইতিমধ্যেই পর্ষদের তরফে পরীক্ষার সিলেবাস শেষ করানো নিয়েও নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

কি জানালো পর্ষদ?

পাশাপাশি রাজ্যের অনেক স্কুল পরীক্ষার সিলেবাস শেষ করতে নিয়েছে বিশেষ সিদ্ধান্ত। সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পর্ষদের পক্ষ থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানানো হয়েছে, ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির পড়ুয়াদের কবে নেওয়া হবে দ্বিতীয় সেমিস্টারের পরীক্ষা? গত 2 মে রাজ্য সরকারের নির্দেশ অনুসারে সরকারি স্কুলগুলিতে দেওয়া হয়েছিল গরমের ছুটি। 15 জুন খুলেছে সমস্ত সরকারি স্কুলগুলি।

Ad

কিন্তু কিভাবে পরীক্ষার সিলেবাস কী আদৌ শেষ করা সম্ভব হবে চিন্তায় শিক্ষক শিক্ষিকারা। এমনিতেই লোকসভা ভোটের কারণে আগামী বছরের মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার সময়কাল এগিয়ে এসেছে। তাই শেষ করতে হবে সিলেবাস। মধ্যশিক্ষা পর্ষদের তরফে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানানো হয়েছে আগস্ট মাসের মধ্যে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির দ্বিতীয় সামেটিভ পরীক্ষা নিতে হবে। হাতে দেড় মাসও সময় নেই।

অনলাইনে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের স্ক্রুটিনি, নম্বর বাড়ানোর শেষ সুযোগ, আবেদনের সময় বাড়ানো হল।

এর আগে অবশ্য মধ্যশিক্ষা পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছিল, পড়ুয়াদের অতিরিক্ত ক্লাস নিয়ে পরীক্ষার সিলেবাস শেষ করতে হবে। সেইমতো অনেক স্কুল শনিবার পুরোদমে ক্লাস নেওয়ার চিন্তাভাবনা করছিল। এই নিয়ে শিক্ষক মহলেও আলোচনা হয়েছিল৷ সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, এই সিদ্ধান্তে সম্মতি দিয়েছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। কত তারিখের মধ্যে নেওয়া হবে দ্বিতীয় সামেটিভ পরীক্ষা?
পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছে,

১) আগামী আগস্ট মাসের ১ তারিখ থেকে ৮ তারিখের মধ্যে পরীক্ষা নিতে হবে।
উল্লেখ্য, নির্দিষ্ট সময়ের আগে বা পরে পরীক্ষা নেওয়া যাবে না।
২) পরীক্ষার আগেই সিলেবাস শেষ করতে হবে।
৩) প্রয়োজনে অতিরিক্ত ক্লাস নিয়ে পরীক্ষার সিলেবাস শেষ করতে হবে।
৪) বহুদিন পঠন পাঠন না হওয়ার ফলে পড়ুয়াদের মধ্যে পড়াশোনার অভ্যাসে যে ঘাটতি হয়েছে। তার দিকে বিশেষ নজর দিতে হবে।

ফের বাড়লো গরমের ছুটি, স্কুল খুললেই শিক্ষক ও ছাত্রদের মানতে হবে এই নিয়ম, তালিকা দখুন।

অন্যদিকে উত্তরবঙ্গে বর্ষার আগমন হলেও দক্ষিণবঙ্গে এখনও প্রবেশ করেনি। তাই সামান্য বৃষ্টি হলেও তাপমাত্রার পারদ ওঠা নামা করবে। অস্বস্তিকর আবহাওয়া বজায় থাকবে। এই পরিস্থিতিতে আর স্কুল ছুটি না দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন শিক্ষক মহলের একাংশ। প্রয়োজনে স্কুলে মর্নিং ক্লাস করানোর কথা জানানো হয়েছে। পড়ুয়াদের পরীক্ষা সিলেবাস শেষ করতেও এই দাবি শিক্ষক মহলের।
শিক্ষা সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।
Written by Manika Basak.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(96) ""