শিক্ষা

School Uniform – পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত স্কুলে বদলে গেল স্কুল ড্রেস। এই নিয়ম মানতেই হবে।

Adv

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষ থেকে প্রত্যেকটি সরকারি স্কুল এ বিনামূল্যে স্কুল ড্রেস (School Uniform) দেওয়া চালু করেছে সরকার। এবং এই পোশাক বিলির কাজ কিছু দিন আগেই শুরু হয়েছে স্কুল গুলি তে। তবে এবার এই স্কুল ড্রেস নিয়ে নতুন নিয়ম চালু করতে চলেছে রাজ্য সরকার। প্রত্যেকটি স্কুল এর একটি নিজস্ব নিজেস্ব পোশাক থাকে এবার রাজ্য সরকার এই স্কুল ড্রেস এর এক নিয়ম চালু করতে চলেছে। রাজ্যের স্কুল শিক্ষা দফতর (WB Education Department) সূত্রে জানা গিয়েছে।

School Uniform Rule Change By Government Of West Bengal.

দ্রুত এই পোশাক বিতরণের কাজ সেরে ফেলার লক্ষ্য মাত্রা নেওয়া হয়েছে। মূলত স্বনির্ভর গোষ্ঠীগুলি এই পোশাক তৈরি করেছে। আগের বছর সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল রাজ্যের সব সরকারি এবং সরকার পোষিত স্কুলের ছাত্র ছাত্রীদের পোশাকের (School Uniform) রং এক হবে। নীল সাদা রঙের পোশাক পরতে হবে সব ছাত্র ছাত্রীদের। এই নিয়ে সেই সময় প্রবল বিতর্ক দেখা দিয়েছিল, স্কুল এর ছাত্র ছাত্রীরা রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ‌ও দেখায়।

Ad

কিন্তু রাজ্য সরকারের (Government Of India) এই সিদ্ধান্ত বুঝিয়ে দিল তারা সেই ঘোষিত অবস্থান থেকে একটুও পিছু হটেনি। যা জানা গিয়েছে তাতে দুর্গা পুজোর পর স্কুল খুললেই সকল পড়ুয়াকে রাজ্য সরকারের দেওয়া নতুন পোশাক (School Uniform) পরেই স্কুলে আসতে হবে। এর মধ্যেই মালদার একটি স্কুলের পড়ুয়াদের হাতে এই নতুন পোশাক তুলে দেওয়া হয়েছে।

শোনা যাচ্ছে রাজ্যের অন্যান্য জেলার স্কুল গুলিতে আগামী সপ্তাহের মধ্যেই বেশিরভাগ পড়ুয়ার জন্যই এই নীল সাদা রঙের ইউনিফর্ম (School Uniform) পৌঁছে যাবে। কিন্তু রাজ্য সরকারের এই ইউনিটারি ইউনিফর্ম বা একই ধরনের স্কুল পোশাক নিয়ে এর মধ্যে বিতর্ক তৈরি হয়েছে। গত বছর বিষয়টি নিয়ে সরকার বেশি অগ্রসর না হওয়ায় এক সময় এই সংক্রান্ত বিতর্ক ধামাচাপা পড়ে গিয়েছিল।

কিন্তু সম্প্রতি তারা বিষয়টি কার্যকর করতে উঠে পড়ে লাগায় ফের অশান্তি ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা করছেন কেউ কেউ। রাজ্যের সব স্কুল পড়ুয়াদের জন্য এক রঙের ড্রেস (School Uniform) করার এই সরকারি সিদ্ধান্তকে কেউ কেউ সমর্থন করেছেন। তাদের মতে, এর ফলে ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে ভেদাভেদ কমে একতাবোধ বাড়বে। তবে বেশিরভাগ শিক্ষাবিদ, শিক্ষক, বিশেষজ্ঞ রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করেছেন।

তাদের বক্তব্য, রাজ্যের প্রতিটি সরকার পোষিত স্কুলের স্বতন্ত্রতা এর ফলে নষ্ট হবে। গোটা দেশের মধ্যে বাংলায় যেহেতু শিক্ষার চল আগে থেকে শুরু হয়েছিল তাই এই রাজ্যে প্রচুর ঐতিহ্য জড়ানো এবং ঐতিহাসিক স্কুল আছে। যাদের নিজস্ব রঙের পোশাক (School Uniform) অস্তিত্বের সঙ্গে মিশে হয়ে গিয়েছে। এই রং নির্বাচন, পোশাকের উপর বিশেষ অলঙ্করণের মাধ্যমে বিভিন্ন স্কুল নিজেদের মতো করে অনেক গুরুত্বপূর্ণ বার্তাও দিয়ে থাকে।

সরকারি কর্মী (WB Government Employees)

কিন্তু রাজ্য সরকারের এই সকলকে নীল সাদা পোশাক পরানোর সিদ্ধান্তের ফলে সেই ঐতিহ্য ধাক্কা খাবে। রাজ্যের বেশিরভাগ স্কুলের ছাত্রছাত্রীরাও নিজেদের ঐতিহ্যগত স্কুল ইউনিফর্ম ছেড়ে রাজ্য সরকারের নীল সাদা পোশাক (School Uniform) পরতে রাজি নয়। ফলে আগের বছরের মতো এবারও স্কুল পড়ুয়ারা নানান জায়গা পথ অবরোধ করতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন অনেকে।

Electricity Bill Payment – এবার থেকে কারেন্ট বিল দিন ভাগে ভাগে। নতুন পরিষেবা চালু করলো বিদ্যুৎ বিভাগ।

বাংলার অনেক স্কুলে আগে থেকেই নীল সাদা রঙের ইউনিফর্ম (School Uniform) প্রচলিত। তবে তা সব জায়গায় আছে এমনটা নয়। বরং স্কুল ইউনিফর্মের রঙের বৈচিত্র এই রাজ্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য। স্কুল ইউনিফর্ম দেখেই এর ফলে সহজে চিনে যাওয়া যেত কে কোন স্কুল এর পড়ুয়া। কিন্তু রাজ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তের ফলে এক বড় গন্ডগোল এর আশংকা করছেন অনেকে।

Vishwakarma Yojana – বিশ্বকর্মা পুজোর দিন চালু বিশ্বকর্মা প্রকল্পের। প্রত্যেক খেটে খাওয়া মানুষ পাবে

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(104) ""