ট্রেন্ডিং

Gold Jewellery – বাড়িতে সোনা কিনে মজুত করছেন? জেনে নিন কতটা সোনা বাড়িতে রাখা যায়!! বেশি হলেই বাজেয়াপ্ত।

Adv

বিয়ে মানেই সাজসজ্জা, নতুন পোশাক, অভিনব ডিজাইনের Gold Jewellery কেনা হয়। পাশাপাশি যেকোনো অনুষ্ঠান থেকে পুজো পার্বন, ধনতেরাসে সোনার গহনা (Gold Jewellery) কেনার লাইন লেগে যায় দোকানগুলিতে। কিন্তু জানেন কি বাড়িতে কত পরিমান সোনা রাখলে তা আইন বিরুদ্ধ হবে না? অনেকেই এই বিষয়ে জানেন না, জার ফলে ভবিষ্যতে কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে বাধ্য। এমনকি এই কারণে ব্যক্তির জেল পর্যন্ত হতে পারে। মহিলারাই যে কেবলমাত্র সাজতে পছন্দ করেন তা নয়।

Gold Jewellery কতটা রাখছেন বাড়িতে?

পুরুষরাও Gold Jewellery যেমন ব্রেসলেট, আংটি, চেন ইত্যাদি Gold Jewellery পরে থাকেন। কিন্তু পরিশ্রমের টাকা জমিয়ে সাধ পূরণ করতে গিয়ে বাড়িতে পরিমানের অধিক সোনা জমাচ্ছেন না তো? কিভাবে বুঝবেন কত পরিমান গহনা বাড়িতে রাখলে সমস্যায় পড়তে হবে না। ২০১৬ সালে সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ডিরেক্ট ট্যাক্স (CBDT) এক বিবৃতিতে জানিয়েছিল, যদি কোনও নাগরিকের কাছ থেকে নির্দিষ্ট পরিমাণের তুলনায় অধিক সোনা পাওয়া যায়, এবং ব্যক্তি সেই সোনা সংক্রান্ত সমস্ত তথ্যপ্রমাণ সরকারকে দেখাতে পারেন, তাহলে সংগুলি বাজেয়াপ্ত করা হবে না।

Ad

কত পরিমান সোনা বাড়িতে রাখা যাবে?
সরকারি নিয়ম অনুসারে, একজন বিবাহিত মহিলা বাড়িতে নিজের কাছে সর্বাধিক ৫০০ গ্রাম সোনা রাখতে পারেন। সেক্ষেত্রে এই পরিমাণ সোনা রাখলে কোনও বিধিনিষেধ আরোপ করা হবে না।
পাশাপাশি অবিবাহিত মহিলারাও বাড়িতে নিজের কাছে সোনা রাখতে পারেন। কিন্তু সেই পরিমান আলাদা। একজন অবিবাহিত মহিলা নিজের কাছে সর্বাধিক ২৫০ গ্রাম সোনা রাখতে পারবেন।

পুরুষদের ক্ষেত্রে-
পুরুষের ক্ষেত্রে বাড়িতে সোনা রাখার পরিমাণ মহিলাদের তুলনায় কম। তারা নিজের কাছে ১০০ গ্রামের বেশি Gold Jewellery রাখতে পারবেন না। নির্ধারিত পরিমাণের চেয়ে বেশি সোনার পরিমান বেশি হলে কি পদক্ষেদ নেওয়া হবে? সরকারি নির্ধারিত পরিমানের অধিক সোনা নিজের কাছে রাখলে তাকে আয়ের উৎস এবং সমস্ত তথ্য (কেন সোনা কেনা হয়েছে?, কোথা থেকে কেনা হয়েছে? ইত্যাদি প্রশ্নের উত্তর) আয়কর দফতরকে জানাতে হবে। যথাযথ তথ্যপ্রমাণ দেখাতে না পারলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির জেল পর্যন্ত হতে পারে। তাছাড়া আয়কর দফতর ব্যক্তির কাছ থেকে অতিরিক্ত সোনা বাজেয়াপ্ত করতে পারবে।

 অটল পেনশন যোজনায় 210 টাকা জমা করে প্রতিমাসে 5000 টাকা পেনশন পান আজীবন।

কোন কোন ক্ষেত্রে Gold Jewellery রাখলে কর দিতে হবে না?
১) উত্তরাধিকার সূত্রে সোনার মালিকানা পেলে,
২) আয়ের উৎস গোপন না রেখে সোনা কেনা হলে,
৩) নিজস্ব টাকা জমিয়ে সোনা কেনা হলে।

উল্লেখ্য, কোনো ব্যক্তির বার্ষিক আয় ৫০ লাখের বেশি হলে আয়কর রিটার্ন ফাইল করার সময় ব্যক্তিকে জানাতে হবে, তার কাছে কত পরিমান সোনা রয়েছে, সেই সোনা কত টাকায় কেনা হয়েছে। বর্তমানে সেই সোনার মূল্য কত?
সোনা বিক্রি করতে হলে কোন নিয়ম অনুসারে কর দিতে হবে?
সোনা কেনার পর ৩ বছর বা তার চেয়ে কম সময়ের মধ্যে ব্যক্তি তা বিক্রি করতে চাইলে, শর্ট টার্ম ক্যাপিটাল গেইনের অধীন গ্রাহককে কর দিতে হয়।

আবারও একধাপে অনেকটা কমলো সোনা রুপোর দাম, আজকে প্রতি গ্রামে কত টাকা খরচ করতে হবে?

আর যদি সোনা কেনার ৩ বছর পর তা বিক্রি করা হয়, লং টার্ম ক্যাপিটাল গেইন অনুযায়ী গ্রাহককে কর দিতে হয়। তাই সোনা কিনলে বা বাড়িতে জমা করলেই হল না। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী নির্দিষ্ট পরিমান সোনা নিজের কাছে রাখতে হবে।
এই সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(101) ""