স্কলারশিপ

National Scholarship – ন্যাশনাল স্কলারশিপ দিচ্ছে আপনার পড়াশোনার সব খরচ, এখনি আবেদন করুন।

Adv

National Scholarship এ আবেদন করেননি? ৪ মার্চ (শনিবার) শেষ হচ্ছে মাধ্যমিক পরীক্ষা। এরপরই শুরু হবে রাজ্যে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা। বিশেষত মাধ্যমিক পরীক্ষার পরই স্ট্রিম (সায়েন্স, আর্টস, কমার্স) পরিবর্তিত হয়ে থাকে। আর উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার পর শিক্ষার্থীরা উচ্চশিক্ষার উদ্দেশ্যে কলেজে ভর্তি হন। কিন্তু ভালোভাবে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করতে হলে প্রয়োজন হয় অর্থের।

যদিও অনেক পড়ুয়াই এর অভাবে পড়াশোনা ছেড়ে দিতে বাধ্য হন। বর্তমানে এই সমস্যা থেকে শিক্ষার্থীদের মুক্তি দিতেই সরকারি বেসরকারি স্কলারশিপের চালু করা হয়েছে। তেমনই একটি স্কলারশিপের নাম হল National Scholarship. এর মাধ্যমে বার্ষিক বৃত্তি প্রদান করা হয়ে থাকে প্রথম শ্রেণী থেকে স্নাতকোত্তর স্তরের পড়ুয়াদের।

Ad

National Scholarship এর তিনটি স্তর রয়েছে-

Pre Matric Scholarship,
Post Matric Scholarship,
Merit Cum Means Scholarship.
এর মধ্যে Pre Matric Scholarship প্রদান করা হবে প্রথম শ্রেণী থেকে দশম শ্রেণীর পড়ুয়াদের।
Post Matric Scholarship- একাদশ থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর পড়ুয়াদের।
Merit Cum Means Scholarship- প্রফেশনাল এবং টেকনিক্যাল কোর্স করা পড়ুয়াদের।
Post Matric for Under Graduate- স্নাতক স্তরের পড়ুয়াদের।

এই নতুন স্কলারশিপে আবেদন করলেই পাবেন বছরে সর্বোচ্চ 1 লাখ টাকা।

National Scholarship টাকা বৃত্তি পাবেন-
Pre Matric Scholarship- প্রথম শ্রেণী থেকে দশম শ্রেণীর পড়ুয়াদের বার্ষিক ১,০০০ টাকা দেওয়া হবে।
Pre Matric Scholarship- ষষ্ঠ শ্রেণী থেকে দশম শ্রেণীর পড়ুয়াদের বার্ষিক ৫,০০০ টাকা দেওয়া হবে।
Post Matric Scholarship- একাদশ থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর পড়ুয়াদের বার্ষিক ৬,০০০ টাকা দেওয়া হবে।
Merit Cum Means Scholarship- প্রফেশনাল এবং টেকনিক্যাল কোর্স করা পড়ুয়াদের বার্ষিক ২৫,০০০ থেকে ৩০,০০০ টাকা দেওয়া হবে।
Post Matric for Under Graduate- স্নাতক স্তরের পড়ুয়াদের বার্ষিক ৬,০০০ থেকে ১২,০০০ টাকা দেওয়া হবে।

National Scholarship এ আবেদনের যোগ্যতা-
১) অবশ্যই ভারতীয় নাগরিক হতে হবে।
২) আবেদনকারীদের পূর্ববর্তী শ্রেণীতে ৫০% নম্বর নিয়ে পাশ করতে হবে।
আবেদনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় নথিপত্র-
১) পূর্ববর্তী শ্রেণীর পরীক্ষায় পাশের প্রমানপত্র হিসাবে মার্কশিট।

২) আধার কার্ড।
৩) আবেদনকারীর নিজের নামে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে। বৃত্তির টাকা সরাসরি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাঠানো হবে।
জন্মের শংসাপত্র।
৪) পরিবারের ইনকাম সার্টিফিকেট।
৫) ঠিকানার প্রমানপত্র।
৬) আবেদনকারীর রঙিন পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
৭) ভর্তির রশিদ।

আবেদন পদ্ধতি- অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন জানাতে হবে। প্রথমে অফিশিয়াল ওয়েবসাইট ওপেন করতে হবে। এরপর প্রথমবারের জন্য আবেদন করলে login করতে হবে। এরপর বৈধ মোবাইল নম্বর বা ইমেল আইডি দিয়ে রেজিস্টার করতে হবে। Application Corner এ গিয়ে ‘New Registration’ অপশনে ক্লিক করতে হবে। ‘NSP For AY 2023–2024’ সিলেক্ট করতে হবে। আবেদনের শর্তাবলি ভালোভাবে পড়ে নিয়ে ‘Continue’ অপশনে ক্লিক করতে হবে। অনলাইন ফর্ম ওপেন হলে আবেদনকারীর নাম, জন্মের তারিখ, রাজ্যের নাম, জেন্ডার, মোবাইল নম্বর, ব্যাংকের সকল তথ্য, ইমেল আইডি লিখতে হবে। তারপর দিতে হবে আধার কার্ড নম্বর।

এরপর একটি আইডি নম্বর প্রদান করা হবে। সেটি কপি করে বা লিখে রাখতে হবে। আবারও একবার login করতে হবে। অনলাইন ফর্মে তথ্য দেওয়া হবে। সেটিতে আবেদনকারীর বর্তমান শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের নাম সিলেক্ট করতে হবে। দিতে হবে অন্যান্য প্রয়োজনীয় তথ্য। তার সঙ্গে পূর্বে প্রদান করা সকল নথিপত্র আপলোড করতে হবে। শেষে দেখানো হবে কত টাকা বৃত্তি পাবেন আবেদনকারীরা। আবেদনের লিংক নিচে দেওয়া হয়েছে।

এখনো ন্যাশনাল স্কলারশিপে আবেদন করেননি? এই সুযোগ আর পাবেন না।

Apply Now-
www.scholarships.gov.in
আবেদনের সময়সীমা- এখনও পর্যন্ত শুরু হয়নি। তবে ওয়েবসাইট চেক করে দেখে নিতে পারেন।
শিক্ষা সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(107) ""