অর্থনীতি

Savings Scheme – পোস্ট অফিসের কিছু স্কিম, কম বিনিয়োগেই মিলবে উচ্চ হারে রিটার্ন, অল্প টাকা বিনিয়োগে লাখপতি।

Adv

Savings Scheme এ বিনিয়োগ করেছেন? উপার্জন কম হোক বা বেশি, সঞ্চয় তো সকলেই করে থাকেন। ভবিষ্যতের সুরক্ষিত জীবন সকলেই চান, পাশাপাশি চান সন্তানের উচ্চশিক্ষা। তবে সঞ্চয়ের ক্ষেত্রে কোন স্কিম বেশি রিটার্ন দেবে তা জানেন কী? কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে সাধারণ মানুষকে সুবিধা দিতে একাধিক স্কিম চালু করা হয়েছে। তাছাড়া এখনও অনেকেই সুরক্ষিত এবং নিশ্চিত রিটার্নর জন্য পোস্ট অফিসের স্কিমগুলিকে বেছে নেন। আপনিও কী সঞ্চয়ের পরিকল্পনা করছেন (Savings Scheme)? তার আগে জেনে নিন কোন Savings Scheme এ বিনিয়োগের ফলে কত সুদের হার মিলছে।

পোস্ট অফিসের কোন Savings Scheme কত শতাংশ সুদ মিলছে? তালিকা দেখুন।

বর্তমানে পোস্ট অফিসের অনেক স্কিমেই বাড়ানো হয়েছে সুদের হার। যার ফলে বিনিয়োগে মিলছে উচ্চ হারে রিটার্ন।
১) ন্যাশনাল সেভিংস সার্টিফিকেট (National Savings Scheme)-
এটি একটি পঞ্চবার্ষিকী স্কিম। অর্থাৎ তার বিনিয়োগকারী এই স্কিমে ৫ বছরের জন্য বিনিয়োগ করতে পারবেন। অর্থ মন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ন্যাশনাল সেভিং সার্টিফিকেট বা NSC- তে ২০২৩-২৪ অর্থবছরের প্রথম ত্রৈমাসিকের জন্য ৭.৭ শতাংশ হারে সুদ মিলছে৷ আর একটি বড় সুবিধা হল এই স্কিমে আয়কর আইনের ধারা ৮০সি -এর অধীনে প্রতি বছরের ১.৫ লাখ টাকা পর্যন্ত বার্ষিক কর ছাড় পাওয়া যায়।

Ad

২) পোস্ট অফিস মান্থলি ইনকাম স্কিম বা POMIS-
পোস্ট অফিসের এই স্কিম সাধারণ মানুষের কাছে খুবই জনপ্রিয়। যেখানে এককালীন টাকা জমালে তা থেকে প্রতি মাসে সুদ সহ পাওয়া যায় নির্দিষ্ট টাকা। POMIS এ বিনিয়োগের মেয়াদ ৫ বছর। মেয়াদপূর্তি হলে অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তোলা যাবে। আবার বিনিয়োগও করা যাবে। বর্তমানে পোস্ট অফিসের এই স্কিমে সুদের হার ৭.৪%. প্রতি ত্রৈমাসিকে কেন্দ্রীয় সরকার এই সুদের হার সংশোধন করে থাকে।

৩) সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা-
সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনাটি দেশের নাবালিকাদের জন্য চালু করা হয়েছে। তাদের ভবিষ্যত জীবন সুরক্ষিত করতে এবং উচ্চশিক্ষার সময় যাতে কোনও সমস্যা না হয়, তাই জন্য পোস্ট অফিসে ‘সুকন্যা সমৃদ্ধি অ্যাকাউন্ট’ ওপেন করা যাবে। বর্তমানে সুকন্যা সমৃদ্ধি যোজনা: সঞ্চয়ের উপর বার্ষিক সুদের হার ৮.০%.
১০ বছর পূর্ণ হওয়ার আগে নাবালিকার নামে এই স্কিমে অ্যাকাউন্ট ওপেন করা যাবে। অ্যাকাউন্ট হোল্ডারের বয়স ২১ বছর হলে অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে যাবে। পাশাপাশি জমা টাকাও ফেরত পাওয়া যায়।
উল্লেখ্য, ১৮ বছর পূর্ণ হওয়ার পরে বা বিয়ে বা উচ্চশিক্ষার জন্যও টাকা তোলা যাবে।

2000 টাকার নোট বাতিল নিয়ে RBI এর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত, সময় পাবেন 30 সেপ্টেম্বর পর্যন্ত।

৪) পাবলিক প্রভিডেন্ট ফান্ড-
বেতনভুক্ত কর্মীদের জন্য এই একইম বিনিয়োগ দারুন রিটার্ন দেবে। সবথেকে বড়ো সুবিধা PPF -এ বার্ষিক সুদের হার চক্রবৃদ্ধি হারে প্রদান করা হয়ে থাকে। তাই উচ্চ হারে রিটার্ন পাওয়া যায়। যেখানে ৫০০ টাকা থেকে ১.৫ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করা যাবে। আর আয়কর আইনের ধারা ৮০ সি অনুসারে বিনিয়োগের উপর করছাড়ের সুবিধা থাকছে। বর্তমানে পিপিএফ অ্যাকাউন্ট স্কিমে বার্ষিক সুদের হার ৭.১%.

৫) সিনিয়র সিটিজেন সেভিং স্কিম বা SCSS (Senior Citizen Savings Scheme)-
এই স্কিমে সাধারণত ৬০ বছরের বেশি বয়স হলে বিনিয়োগ করা যায়। যেখানে স্বামী বা স্ত্রী একক অ্যাকাউন্ট ওপেন করতে পারেন বা একসঙ্গে একটি যৌথ অ্যাকাউন্ট ওপেন করতে পারেন। SCSS স্কিমে আয়কর আইন, ১৯৬১ এর ধারা ৮০সি অধীনে কর ছাড়ের সুবিধা পাওয়া যায়। এই স্কিমে বিনিয়োগে বার্ষিক সুদের হার ৮.২%।

আবারও নোটবন্দি! বাজারে 2000 টাকার নোট বন্ধের সিদ্ধান্ত নিলো RBI, নোট কীভাবে বদলাবেন?

৬) কিষাণ বিকাশ পত্র বা KVP-
এই স্কিমে বিনিয়োগ করা অর্থ প্রায় ১১৫ মাসেই দ্বিগুণ হয়ে যায়। যেখানে সর্বনিম্ন মাত্র ১০০০ টাকা দিয়ে বিনিয়োগ করে অ্যাকাউন্ট ওপেন করা যায়। সর্বোচ্চ বিনিয়োগের সীমা নির্ধারণ করা হয়নি। KVP তে চক্রবৃদ্ধি সুদের সুবিধা পাওয়া যায়। পূর্বে কিষাণ বিকাশ পত্রে বিনিয়োগে মিলত ৭.২% সুদ। বর্তমানে জমা এই স্কিমে বার্ষিক সুদের হার ৭.৫%.
বিনিয়োগ সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(95) ""