প্রকল্প

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা পেয়েছেন? এই মাসে কবে, কত পাবেন, বাড়িতে বসেই মাত্র 5 মিনিটে জেনে নিন।

Adv

রাজ্যের মহিলাদের আর্থিক সুবিধা প্রদান করতে ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে চালু করা হয়েছিল লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প। এই প্রকল্পের মাধ্যমে বর্তমানে রাজ্যের লাখ লাখ মহিলারা আর্থিক সাহায্য পাচ্ছেন। সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, এই প্রকল্প শুরু করার সময় বাজেট ছিল ১২৯০০ কোটি টাকা। এর মাধ্যমে রাজ্যের আবেদনকারী মহিলারা বার্ষিক ৬,০০০ টাকা থেকে ১২,০০০ টাকা অনুদান পাচ্ছেন। তবে সম্প্রতি এই প্রকল্প নিয়ে অনেকের মনেই বেশ কয়েকটি প্রশ্ন উঠছে।

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প

যেমন কারো একাউন্টে টাকা ঢুকছে না, আবার অনেকে আবেদন পদ্ধতি সম্পর্কে জানেন না, কেউবা জানতে ইচ্ছুক কবে প্রকল্পের টাকা ব্যাংক একাউন্টে ঢুকবে? আজকে এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে এই সকল প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হবে। তার সঙ্গে সঙ্গে জানানো হবে কিভাবে বাড়িতে বসেই মাত্র ৫ মিনিটে জানা যাবে লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের টাকা একাউন্টে ঢুকেছে কিনা।

Ad

প্রথমত জানিয়ে রাখি, লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে আবেদনের সাধারণ শর্ত-
১) পশ্চিমবঙ্গের মহিলারাই আবেদন জানাতে পারবেন।
২) ২৫ বছর থেকে সর্বোচ্চ ৬০ বছর হতে হবে।
৩) অন্য কোনো প্রকল্পের সুবিধা নেওয়া যাবে না।
৪) সরকারি চাকরি করেন/ ইনকাম ট্যাক্স দেন, এই প্রকল্পে আবেদনযোগ্য হবেন না।

কত টাকা পাওয়া যাবে?
জেনারেল ও ওবিসি ক্যাটাগরীর আবেদনকারীরা পাবেন মাসিক ৫০০ টাকা করে বার্ষিক ৬,০০০ টাকা।
আর এসসি এবং এসটি ক্যাটাগরীর আবেদনকারীরা পাবেন মাসিক ১,০০০ টাকা করে বার্ষিক ১২,০০০ টাকা।
আবেদন পদ্ধতি-
রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বিভিন্ন সময়ে দুয়ারে সরকার শিবিরের আয়োজন করা হয়ে থাকে। যেমন গত ২০ এপ্রিল ছিল দুয়ারে সরকার ক্যাম্প বা শিবিরের শেষ তারিখ ছিল। সেখানে সবথেকে বেশি লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে আবেদনপত্র জমা পড়েছিল। তাই কেউ যদি অফলাইনে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে চান, তাহলে আবার যখন দুয়ারে সরকার ক্যাম্প আয়োজিত হবে, সেখানে গিয়ে সংশ্লিষ্ট আধিকারিকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে।

এবার আসা যাক প্রকল্পে আবেদন সত্বেও কেন একাউন্টে টাকা ঢুকছে না?
সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, অনেক জায়গাতে এখনও kyc এর সমস্যা রয়েছে। ফলে আবেদন জানালেও অনেক আবেদনকারীর একাউন্টে টাকা ঢুকছে না। এনিয়ে গত ৩১ মার্চ নারী, শিশু ও সমাজকল্যাণ দফতরের পক্ষ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছিল। বিজ্ঞপ্তি অনুসারে, ব্যাংক একাউন্টের সঙ্গে আধার কার্ডের লিংক করাতে হবে। এই লিংক না করা থাকলে এই প্রকল্পের টাকা উপভোক্তাদের ব্যাংক একাউন্টে ঢুকবে না। তাই আর্থিক সাহায্য পেতে শীঘ্রই করতে ভুলবেন না এই কাজটি।

রাজ্যের মহিলাদের জন্য সুখবর, জাগো প্রকল্পে এক আবেদনেই পাবেন 5000 টাকা।

কিভাবে চেক করবেন লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের টাকা একাউন্টে ঢুকেছে কিনা?
অনেক সময়ই ব্যাংকে টাকা ঢুকলেও রেজিস্টার্ড মোবাইল নম্বরে মেসেজ আসে না। সেক্ষেত্রে কিভাবে জানা যাবে প্রকল্পের টাকা একাউন্টে ঢুকেছে কিনা। প্রথমে লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ওপেন করতে হবে।https://socialsecurity.wb.gov.in/login এরপর হোম পেজ ওপেন করে নির্দিষ্ট জায়গায় রেজিস্টার্ড মোবাইল নম্বর বসাতে হবে।

তাহলে সংশ্লিষ্ট মোবাইল নম্বরে একটি OTP পাঠানো হবে। তা নির্দিষ্ট জায়গায় বসিয়ে ক্লিক করলেই login হবে। এরপর একটি স্ট্যাটাস পেজ ওপেন হলে লক্ষ্মীরর ভাণ্ডারের পেমেন্ট সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য দেখা যাবে। এছাড়া লক্ষ্মীর ভাণ্ডারে প্রথম নাম তুললে কোন মাস থেকে অনুদান দেওয়া শুরু হবে, এর আগে কোন মাসে কত তারিখ টাকা পাঠানো হয়েছিল, আগামী অনুদান কত তারিখ পাওয়া যাবে ইত্যাদি প্রশ্নের উত্তর দেখা যাবে।

এই সরকারি প্রকল্পে অতিরিক্ত ৩ হাজার টাকা পাবেন সকলে, টাকা কবে ঢুকবে দেখে নিন।

পাশাপাশি আগামী দিনে প্রকল্পের টাকা দেওয়া হবে কিনা তাও লেখা থাকবে। আরো একটি পদ্ধতিতে জানা যাবে টাকা ঢুকেছে কিনা, ব্যাংক একাউন্ট রয়েছে নিকটবর্তী সেই ব্যাংকের শাখায় গিয়ে পাসবুক আপডেট করতে হবে। তাহলেই পাসবুকে প্রিন্ট হওয়া সব তথ্য দেখা যাবে।
যোজনা বা প্রকল্প সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(105) ""