প্রকল্প

লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা তারাই পাবেন যারা এই ডকুমেন্ট গুলি জমা দিয়েছেন, আগের সব নাম বাতিল করে নতু্ন তালিকা দিল।

Adv

রাজ্য সরকারের তরফে ইতিমধ্যেই একাধিক প্রকল্প (কন্যাশ্রী, রূপশ্রী, যুবশ্রী ইত্যাদি) শুরু করা হয়েছে। কিন্তু বর্তমানে এগুলির মধ্যে অন্যতম হল লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প। এই প্রকল্পে আবেদনের মাধ্যমে রাজ্যের মহিলারা প্রতি মাসে আর্থিক সাহায্য পেয়ে থাকেন। তবে ক্যাটাগরি অনুসারে, এই অনুদানের পরিমান আলাদা। SC/ ST ক্যাটাগরীর মহিলারা প্রতি মাসে পাবেন ১০০০ টাকা। জেনারেল এবং ওবিসি ক্যাটাগরীর মহিলারা পাবেন মাসিক ৫০০ টাকা করে। রাজ্যের লক্ষ লক্ষ আবেদনকারী আবেদন জানিয়েও এখনও এই প্রকল্পের টাকা পাননি।

লক্ষ্মীর ভান্ডারে কোন ডকুমেন্ট লাগবে?

তাই লক্ষীর ভান্ডারের টাকা উপভোক্তাদের অ্যাকাউন্টে যাতে সঠিকভাবে পৌঁছোয় তার জন্য KYC- এর দিকে বিশেষ নজর দেওয়ার নির্দেশ দিল নবান্ন।
লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের টাকা অ্যাকাউন্টে কবে ঢুকবে?
গত ১ এপ্রিল থেকে রাজ্য জুড়ে বিভিন্ন জায়গায় অনুষ্ঠিত হচ্ছে দুয়ারে সরকার শিবির। আগামী ২০ এপ্রিল পর্যন্ত এই শিবির আয়োজিত থাকবে। যেখানে ১ এপ্রিল থেকে ১০ এপ্রিল পর্যন্ত দুয়ারে সরকারের ক্যাম্পে বিভিন্ন প্রকল্পে আবেদন করা যাবে, এমন ঘোষণা করা হয়েছিল।

Ad

আর তারপর শুরু হবে পরিষেবা প্রদানের কাজ। সেইমতো আগামী ২০ এপ্রিলের মধ্যে প্রকল্পে আবেদনের টাকা যাতে সরাসরি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পৌঁছে যায়, সেই নির্দেশ দিল নবান্ন। এই নিয়ে বুধবার মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী রাজ্যের জেলাগুলির জেলাশাসক ও আধিকারিকদের নিয়ে বৈঠক করেন। নবান্নের নির্দিষ্ট করা দিনের মধ্যেই যাতে উপভোক্তাদের অ্যাকাউন্টে টাকা ঢুকে যায়, সেই দিকেই বিশেষ জোর দেওয়া হচ্ছে।

বাংলার মানুষের জন্য 385 কোটি টাকা দিলো নবান্ন, পঞ্চায়েত ভোটের আগে কোন কোন প্রকল্পের টাকা পাবেন দেখে নিন।

কিন্তু এই একটি কাজ না করলে পাবেন না টাকা, কোন কাজ?
লক্ষীর ভাণ্ডার প্রকল্পে আবেদন জানালেও অনেক জায়গাতে kyc এর সমস্যা রয়েছে। ফলে আবেদন জানালেও অ্যাকাউন্টে টাকা ঢুকছে না।
তাহলে কি করতে হবে?
গত ৩১ মার্চ নারী, শিশু ও সমাজকল্যাণ দফতরের পক্ষ থেকে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প নিয়ে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছিল। বিজ্ঞপ্তি অনুসারে, ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে আধার কার্ডের লিঙ্ক করাতে হবে। এই লিংক যাদের করা থাকবে, এই প্রকল্পের টাকা উপভোক্তাদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ঢুকবে।

লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের টাকা পাওয়ার জন্য সকলকে মানতে হবে এই নিয়ম, জানিয়ে দিলো রাজ্য সরকার।

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে কারা আবেদন যোগ্য?
১) পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
২) আবেদনকারীর বয়স ২৫ বছর থেকে ৬০ বছরের মধ্যে হতে হবে।
৩) কেবলমাত্র মহিলারাই আবেদনযোগ্য।
৪) পরিবার আয়করের অধীনে পড়লে কোনো সদস্যই এই প্রকল্পের জন্য আবেদন জানাতে পারবেন না।
এই সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(102) ""