অর্থনীতি

LIC Jeevan Umang Policy – মাত্র 44 টাকায় দুর্দান্ত রিটার্ন দিচ্ছে LIC এই পলিসি, সাথে আকর্ষণীয় সুবিধাও।

Adv

সঞ্চয়ের জন্য ব্যক্তিরা বিভিন্ন স্কিম বেছে থাকেন। LIC Jeevan Umang Policy সম্পর্কে জানেন। কারো ভরসার স্থান ব্যাংক বা পোস্ট অফিস। আবার অনেকে বিনিয়োগের জন্য বেছে নেন LIC এর বিভিন্ন পলিসি পলিসি হোল্ডারদের সুবিধা দিতে এখনও পর্যন্ত দুর্দান্ত সব পলিসি চালু করেছে রাষ্ট্রয়ত্ব এই বিমা সংস্থাটি। আজকে যেই পলিসি সম্পর্কে জানানো হচ্ছে, তাতে প্রতিদিন নূন্যতম বিনিয়োগ করলে পাওয়া যাবে বিভিন্ন সব সুবিধা। পলিসির নাম, বিনিয়োগের নূন্যতম সীমা, বিনিয়োগের বয়স, অন্যান্য কোন কোন সুবিধা মিলবে এই নিয়ে জানানো হবে।

LIC Jeevan Umang Policy তে বিনিয়োগের বয়সসীমা জেনে নিন।

পলিসির নাম- এলআইসি জীবন উমাং পলিসি (LIC Jeevan Umang Policy)
পলিসির প্ল্যান নম্বর- ৯৪৫
এটি আসলে একটি দীর্ঘমেয়াদি পলিসি। যেখানে টানা বেশ কিছু বছরের জন্য নূন্যতম বিনিয়োগ করতে হয়। সামান্য বিনিয়োগেই মেয়াদ পূর্তির পর থেকে বছরে ৪০,০০০ টাকা করে রিটার্ন পাওয়া যাবে।কিভাবে তা জানতে হলে অবশ্যই পড়তে হবে সম্পূর্ণ প্রতিবেদনটি।

Ad

বিনিয়োগের বয়স- LIC এর এই পলিসিতে বিনিয়োগ করতে হলে বিনিয়োগকারীর নূন্যতম বয়স হতে হবে ৯০ দিন। সর্বোচ্চ বয়স হতে হবে ৫৫ বছর।
প্রিমিয়াম পরিশোধের সময়সীমা- ১৫ বছর, ২০বছর, ২৫ বছর, ৩০ বছর। যত কম সময়ের জন্য প্রিমিয়াম পরিশোধ করতে চাইবেন, তত বেশি পরিমান বিনিয়োগ করতে হবে।
বিনিয়োগের পরিমান- সর্বনিম্ন ২ লাখ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। আর সর্বোচ্চ বিনিয়োগের কোনো সীমা নেই। সেই হিসেবে সর্বনিম্ন ৩০ বছর থেকে সর্বোচ্চ ৭০ বছর বয়স পর্যন্ত প্রিমিয়াম জমা দেওয়া যাবে।

SBI গ্রাহকদের জন্য বড় খবর, 30 তারিখের মধ্যে সারতে হবে এই কাজ।

এবার আসা যাক কিভাবে বার্ষিক ৪০ হাজার টাকা পাওয়া যাবে?
এর জন্য বিনিয়োগকারীকে প্রতি মাসে ১,৩০২ টাকার প্রিমিয়াম জমা দিতে হবে। যা প্রতিদিনের হিসেবে প্রায় ৪৪ টাকা করে হয়। আর বার্ষিক ১৫,৬২৪ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। ব্যক্তি যদি এই পলিসিটি ৩০ বছরের জন্য কেনেন, তাহলে আপনাকে প্রায় ৪.৬৮ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে। মেয়াদপূর্তির পর এই পলিসির অধীন প্রতি বছর ৪০ হাজার রিটার্ন দেওয়া হবে। তাহলে বিনিয়োগকারী ৩০ বছর থেকে ১০০ বছরের মধ্যে মোট প্রায় ২৭.৬০ লক্ষ টাকা রিটার্ন পেতে পারেন।

অন্যান্য সুবিধা-
১) LIC Jeevan Umang Policy থেকে থেকে যে রিটার্ন মিলবে তা আয়কর আইন, ১৯৬১ এর ধারা ১০ (১০D) এর অধীনে সম্পূর্ণ করমুক্ত।
২) LIC Jeevan Umang Policy তে বিনিয়োগ করলে আয়করের ধারা ৮০সি অধীন সর্বোচ্চ ১.৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত কর ছাড়ের সুবিধা মিলবে।

৩) ১০০ বছর বয়স পর্যন্ত রিস্ক কভারেজের সুবিধা- LIC Jeevan Umang Policy হোল্ডার এর যত দিন না ১০০ বছর বয়সে পা দিচ্ছেন, সেই সময় পর্যন্ত মৃত্যুর ঝুঁকির জন্য কভার করা হয়।
৪) এই পলিসিতে রাইডারের সুবিধাও মিলবে। অর্থাৎ যদি কোনও পলিসিহোল্ডার সড়ক দুর্ঘটনায় অক্ষম হয়ে গেলে বা মারা গেলে তার করা নমিনি সেই সুবিধা পাবেন।

অল্প টাকা অল্প সময়ের জন্য রাখুন এই সরকারি স্কীমে, সবচেয়ে বেশি সুদ পাবেন গ্যারান্টি।

আরো বিশদে জানতে হলে নিকটবর্তী LIC এর অফিসে গিয়ে সংশ্লিষ্ট আধিকারিকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন। অথবা LIC এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইট ওপেনিং করে চেক করতে পারবেন।
বিনিয়োগ সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।
Written by Manika Basak.

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(94) ""