অর্থনীতি

Personal Loan – ব্যাংক থেকে ঋণ নিয়েছেন? এই কাজটি অবশ্যই করুন। নইলে টাকা কাটতেই থাকবে।

Adv

মানুষের কখন কোন সময় বিপদ আসবে তা কেউ বলতে পারে না (Personal Loan). প্রত্যেকটি মানুষ যতই উপার্জন করুক না কেনো কোনো সময় এমন বিপদ আসে যে সেই অর্থও কম পরে যায়। বিপদের হাত থেকে বাঁচার জন্যে বেশিরভাগ মানুষ পার্সোনাল লোন (Loan) নয়ে থাকে। হঠাৎ কোনো প্রয়োজনে দারুন উপকারে আসে পার্সোনাল লোন। তবে পার্সোনাল লোন নেওয়ার আগে এর যেই সব নিয়ম গুলো থাকে তা জেনে রাখা দরকার।

Know This Information Before Take Instant Personal Loan.

Personal Loan নেওয়ার সময় যেমন অনেক নিয়ম থাকে অনেক তেমন লোন শোধ হওয়ার পরেও কিছু নিয়ম থাকে। পার্সোনাল লোনের ক্ষেত্রে লোন শোধ করার পরের যে সব নিয়ম থাকে সে সব যদি না মানেন তাহলে ব্যাংক আপনাকে সম্পূর্ণ দায় মুক্ত করবে না। আর আপনার থেকে ক্রমশ টাকা কাটবে। তাই যদি নিজের টাকা বাঁচাতে চান তাহলে লোন শোধের পরের নিয়ম গুলো সম্পর্কে জেনে নিন। কারণ আগে থেকে জেনে নিলে সুবিধা আপনারই।

What Is Personal Loan?

পার্সোনাল লোন বা ব্যক্তিগত ঋণ হল অসুরক্ষিত ঋণ যা সরকারি বা বেসরকারি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান গুলো দিয়ে থাকে। আপনার নিজস্ব আয় এবং অতীতের নেওয়া ঋণের উপরে ভিত্তি করে ব্যাংক এই ঋণ অনুমোদন করে। এই লোন যে কোনো ব্যক্তিগত প্রয়োজন মেটাতে দেওয়া হয়। যেমন ধরুন বিবাহের জন্য, পড়াশোনার জন্য, ব্যবসা, বাড়ি কেনা, গাড়ি কেনা, আরো অনেক কিছুর জন্য এই Personal Loan দেওয়া হয়।

এই পার্সোনাল লোনের (Personal Loan) ক্ষেত্রে বর্তমান সুদের হার 8.55 থেকে 8.36 শতাংশ। লোন নেওয়ার সময় চুক্তিতেই লোন এর মেয়াদ উল্লেখ করে দেওয়া হয়। আর সেই সময়ের মধ্যে যদি আপনি টাকা শোধ করে দিতে না পারেন তাহলে আপনার শাস্তি হতে পারে। তবে যদি কোন ব্যক্তি মেয়াদের আগেই টাকা শোধ করে দিতে পারেন তাহলে আরো ভালো।

এই জন্য প্রী ক্লোজিং এর (Personal Loan Pre Closing) ব্যবস্থা ফলো করতে হয় ব্যাংকের। আর এই জন্যই আপনাদের দরকার এই সম্পর্কে সকল নিয়ম সম্পর্কে জেনে নিয়ে বাকি সব কিছুর ব্যবস্থা নেওয়া। আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সম্পর্কে আপনাদের জেনে নেওয়া উচিত এই সম্পর্কে। যাতে আপনাদের ভবিষ্যতে কোন ধরণের সমস্যা না হয়।

KYC Rules (কেওয়াইসি করার নিয়ম)

What Will You Do After Closing Personal Loan?

1) টাকা সম্পূর্ণ শোধ করার পর ব্যাংকে গিয়ে দেখতে হবে সব বকেয়া টাকা শোধ হয়েছে কিনা।
2) কোনো মাসে সুদ জমা দিতে দেরি হওয়ার কারনে অতিরিক্ত চার্জ এসে পড়েছে কিনা।
3) ঋণ শোধ হয়ে যাবার পর একটি ক্লোজার সার্টিফিকেট (Loan Closer Certificate) পাঠানো হয় ঋণ গ্রহীতার ইমেইল আইডিতে।
4) তা নিশ্চিত করতে হবে আপনি সেই সার্টিফিকেটটি পেয়েছেন কিনা। না পেয়ে থাকলে তা ব্যাংকে জানান।

মাসিক আয় কম হলেও ধনবান হওয়া সম্ভব। এই 5 উপায়ে টাকা বিনিয়োগ করুন।

5) এই প্রক্রিয়ার জন্যে কিছু নথি ও টাকা লাগবে। যা সঙ্গে করে নিয়ে যেতে হবে।
6) Personal Loan শোধের পর একটি নো অবজেকশন সার্টিফিকেট দেওয়া হয় ব্যাংকের তরফ থেকে।
7) এটি প্রমাণ যে আপনি লোনের পাঠ সম্পূর্ণ চুকিয়ে দিচ্ছেন।
8) এই সার্টিফিকেট সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন প্রমাণ Personal Loan পরিশোধের। তাই এটি নিতে কোনভাবেই ভুলবেন না।Written by Ananya Chakraborty.

সোনা লেনদেন নিয়ে কড়া হলো রিজার্ভ ব্যাংক। সোনা বন্ধক ঋণ এর নতুন নিয়ম চালু হলো।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(103) ""