প্রকল্প

Swasthya Sathi – স্বাস্থ্য সাথী কার্ড নিয়ে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের বড় ঘোষণা। রাজ্যবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ।

Adv

পশ্চিমবঙ্গের মানুষদের সুবিধার জন্য Swasthya Sathi বা স্বাস্থ্য সাথী কার্ড নিয়ে এক দারুণ খবর পাওয়া গেল। গতকালই লোকসভা ভোটের (Lok Sabha Election 2024) দিন ঠিক হয়ে গেল। আর তাই লোকসভা ভোট যত এগিয়ে আসছে বিরোধী শাসক সব দলের তোড়জোড় আরও বেড়ে যাচ্ছে। রাজ্য সরকার লোকসভা নির্বাচনের আগে আর একটি দীর্ঘ দিনের দাবি পূরণ করা হল।

West Bengal Swasthya Sathi Scheme New Announcement.

এই Swasthya Sathi অন্য নামে অনেক দিন আগেই চালু করা হয়েছিল। কিন্তু তখন এই প্রকল্প সকল মানুষদের জন্য ছিলনা। তবে এই প্রকল্পটিকে আবার নতুন করে নিয়ে এসেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার (Government Of West Bengal). এবার বাংলার মানুষদের জন্যে আরও এক ধরনের Swasthya Sathi Card চালু করল রাজ্য। আর এই কার্ড ভিন রাজ্যে কর্মরত বাংলার পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্যে চালু করা হল।

Ad

এর ফলে এবার ভিন রাজ্যে কর্মরত বাসিন্দারা কোনো কারনে বিপদে পড়লে অথবা অসুস্থ হয়ে পড়লে সেই Swasthya Sathi কার্ড দেখিয়ে সেখানকার স্বাস্থ্য কেন্দ্র অথবা নার্সিংহোম থেকে চিকিৎসা করাতে পারবে। জানা যাচ্ছে এই Swasthya Sathi এ প্রত্যেক পরিবারে পিছু বার্ষিক 5 লক্ষ টাকার বীমা (Medical Insurance) পাওয়া যাবে।তবে ‘ইনশিয়োরেন্স’ এর পরিবর্তে ‘অ্যাশিয়োরেন্স’ ভিত্তিতে এই কার্ডের পরিষেবা দেওয়া হবে।

শিলিগুড়ির দীনবন্ধু মঞ্চে বৈঠক ছিল মুখ্যমন্ত্রীর। সেখানে জনজাতি সম্প্রদায় এবং বিভিন্ন বোর্ড এর সাথে সেই দিন বৈঠক ছিল আই বৈঠকের এই ঘোষনা করেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা ব্যানার্জি (CM Mamata Banerjee). তার দাবি বর্তমানে রাজ্যে প্রায় 28 লক্ষ মানুষ ভিন রাজ্যে পরিযায়ী শ্রমিক হিসেবে কাজ করে। ওই দিন শিলিগুড়ি থেকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “আমাদের অনেক শ্রমিক মজদুর রয়েছেন যারা বাইরে কাজ করেন।

আজ থেকে ওদের হাতে একটা আলাদা Swasthya Sathi Card দিচ্ছি। এরা বাইরে কাজ করেন। যখন শরীর খারাপ হয় তখন ঘরে খবর পাঠান যে ঘরের মানুষ তা ভাববে দেখবে। কিন্তু তাদের চিকিৎসা করানোর টাকা থাকে না। আমাদের 28 লক্ষ বাইরের কাজ করেন এমন শ্রমিক মজদুরদের জন্য Swasthya Sathi কার্ড আলাদা আলাদা ভাবে দিচ্ছি।

Lakshmi Bhandar (লক্ষ্মীর ভাণ্ডার)

প্রসঙ্গত, ইতিপূর্বে কর্মসূত্রে রাজ্যের বাইরে গিয়ে নানা ধরণের দুর্ঘটনার কবলে পড়ছেন বাংলার বহু পরিযায়ী শ্রমিক। এই পরিস্থিতেই বরাবরই রাজ্যের অস্বস্তি বাড়িয়েছে বাংলায় কর্মসংস্থানের অভাবের বিষয়টি। তাই বিশেষজ্ঞদের মতে ভোটের আগেই বাংলার কয়েক লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিকদের নতুন স্বাস্থ্য সাথী কার্ড দিয়ে শ্রমিক ও তাদের পরিবারের মন জয় করতে চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী।

আধার কার্ড চালু থাকলেই পেতে পারেন 5 লক্ষ টাকা। এইভাবে আবেদন করলেই 2 মিনিটে টাকা ব্যাংক একাউন্টে ঢুকবে।

আর ধীরে ধীরে রাজ্যেবাসীর অনেকদিনের দাবি ছিল যে পশ্চিমবঙ্গে (West Bengal) বাইরে মানে দেশের বিভিন্ন স্থানে যেন এই স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের মাধ্যমে সঠিকভাবে যাতে স্বাস্থ্য পরিষেবা পাওয়া যায় এবং তাদের যেন কোন ধরণের অসুবিধা না হয়। আর এই সম্পর্কে আপনাদের মত নিচে কমেন্ট করে জানাবেন। সঙ্গে থাকুন এই ধরণের আরও খবরের আপডেট পাওয়ার জন্য।
Written by Ananya Chakraborty.

কেন্দ্র সরকারের এই কার্ড করলেই 5 লক্ষ টাকার সুবিধা পাবেন। নতুন আবেদন কিভাবে করবেন?

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(100) ""