শিক্ষা

National Education Policy – 4 বছরের স্নাতক কোর্সে ভর্তি নিয়ে বড়ো আপডেট, গেজেট নোটিশ জারি করল শিক্ষা দফতর।

Adv

National Education Policy বদলাতে চলেছে। গত ২৪ মে (বুধবার) প্রকাশিত হয়েছে চলতি বছরের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার রেজাল্ট। এবার পালা উচ্চশিক্ষার জন্য ভর্তি হওয়ার। এইক্ষেত্রেও শিক্ষার্থীদের কিছু সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়ে (যেমন- কলেজে ভর্তির ক্ষেত্রে দুর্নীতি ইত্যাদি)। এই বছর থেকে শিক্ষার্থীদের আর এই ধরণের সমস্যার সম্মুখীন হতে হবে না। কারণ রাজ্যে চালু করা হয়েছে নতুন জাতীয় শিক্ষানীতি (National Education Policy). এই শিক্ষানীতি চালু করার মাধ্যমে স্নাতকে ভর্তির জন্য বিভিন্ন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে আর আলাদা করে আবেদন জানাতে হবে না।

National Education Policy কেমন হবে শিক্ষা ব্যবস্থা?

কেবলমাত্র একটি কেন্দ্রীয় পোর্টালের মাধ্যমে একাধিক কলেজে আবেদন জানাতে পারবেন শিক্ষার্থীরা। তবে এতদিন ধরে রাজ্যে ৪ বছরের স্নাতক শিক্ষানীতি লাগু করার বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সিলমোহর ও সবুজ সংকেতের জন্য অপেক্ষা করছিলো রাজ্য উচ্চ শিক্ষা দপ্তর। সেই বিষয়ে কী আপডেট মিলল? গত বছরই কেন্দ্রীয় সরকার নতুন ন্যাশনাল এডুকেশন পলিসি বা জাতীয় শিক্ষানীতি (National Education Policy) সূচনা করেছিল।

Ad

সেই সময় রাজ্যের শিক্ষা ব্যবস্থার পরিকাঠামোয় অপ্রস্তুতি থাকার কারণে এই শিক্ষানীতি রাজ্যে চালু করা সম্ভব হয়নি। চলতি বছর থেকে শিক্ষার্থীরা এই সুবিধা পাবে। কেবলমাত্র একটি কেন্দ্রীয় পোর্টালের মাধ্যমে সর্বোচ্চ ৫ টি কলেজে আবেদন জানাতে পারবেন শিক্ষার্থীরা। পাশাপাশি স্নাতক কোর্সের সময়সীমার বিষয়েও বক্তব্য রাখলেন শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু।

উচ্চমাধ্যমিকের রেজাল্টের পর উচ্চশিক্ষার জন্য 4 টি স্কলারশিপ, পাবেন মোটা টাকা।

গত শনিবার রাজ্যে জাতীয় শিক্ষানীতি (National Education Policy) চালু প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী জানান, ২০২৩ সাল থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন কলেজে স্নাতকে ভর্তি এবং ৪ বছরের স্নাতক কোর্স দুটি নীতিই গ্রহণ করা হবে। গত বছর রাজ্যে প্রয়োজনীয় পরিকাঠামোর অপ্রস্তুতি থাকার কারণে তা চালু করা সম্ভব হয়নি। তবে এই বছর থেকে প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো তৈরি করেছে রাজ্য সরকার (National Education Policy)।

কেন্দ্রীয় ওয়েবপোর্টালে আবেদন জানানোর মাধ্যমে কোন কোন সুবিধা পাওয়া যাবে?
সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, ২০২৩ সালের নতুন নিয়মে কলেজে ভর্তি নিয়ে উচ্চ শিক্ষা দপ্তর-বিকাশ ভবন থেকে ইতিমধ্যেই গেজেট নোটিশ জারি করা হয়েছে। এই বছর থেকে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য কেবলমাত্র একটি মাত্র ফর্ম বা আবেদনপত্র ফিলাপ করতে হবে।

এই পোর্টালের মাধ্যমেই শিক্ষার্থীরা জানতে পারবেন কোন কলেজে কোন কোর্স রয়েছে? মোট কয়টি সিট খালি রয়েছে? ইত্যাদি সকল প্রশ্নের উত্তর।
EWS সার্টিফিকেট থাকলে মিলবে বিশেষ সুবিধা-
মেধাবী হওয়া সত্বেও উচ্চশিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পান না অনেকেই। তাই যে সকল শিক্ষার্থীর EWS বা Economical Weaker Section শ্রেণীর সার্টিফিকেট রয়েছে, তারা ২০২৩ সাল থেকে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেত্রেও সংরক্ষণের সুবিধা পাবেন।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করলেই পাবেন বিদ্যাসারথি স্কলারশিপ, কিভাবে আবেদন করবেন, কত টাকা পাবেন, জেনে নিন।

উল্লেখ্য, উচ্চশিক্ষার স্বপ্ন থাকলেও, পূরণ করার সাধ্য অনেক পড়ুয়ার পরিবারের থাকে না। তাদের সেই স্বপ্ন পূরণ করতে বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি স্কলারশিপ চালু করা হয়েছে। যেটিতে আবেদনের মাধ্যমে পাওয়া যাবে মাসিক বা বার্ষিক মোটা টাকা। স্কলারশিপের নাম, আবেদন পদ্ধতি ইত্যাদি বিষয়ে জানতে হলে বা শিক্ষা সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(106) ""