ছুটি

West Bengal – পুজোর আগে ফের 2 দিন বন্ধ স্কুল কলেজ অফিস। বড় ছুটির প্রাক্কালে সত্যিই কি এই অচলাবস্তার দরকার ছিলো?

Adv

আগামী ২০ তারিখ পশ্চিমবঙ্গে (West Bengal) মহাষষ্ঠী। আর এখন থেকেই বাঙালির প্রাণের পুজো দুর্গা পুজো শুরু হচ্ছে। আর এই কয়েকটা দিনের জন্য সকলে সারা বছর অপেক্ষা করে থাকে। এই সময়ে সমগ্র রাজ্যের সকল সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান একেবারে বন্ধ থাকে এবং টানা ছুটি দেওয়া হয়ে থাকে। কিন্তু এবারে পুজোর আগে ফের একবারের জন্য অতিরিক্ত ২ দিন রাজ্যের সকল স্কুল, কলেজ, সরকারি অফিস বন্ধ থাকতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে।

Holiday On 10 Th And 11 Th October In West Bengal?

পুজোতে টানা অনেক দিন ছুটি আছে সরকারি কর্মীদের (Government Employees) সেপ্টেম্বর মাসেও অনেক ছুটি ছিল। এবার পুজোর আগে আবার দুই দিন ছুটি থাকতে পারে রাজ্যের (West Bengal) স্কুল,কলেজ, অফিস। মঙ্গল ও বুধবার এই দুই দিন ছুটি থাকতে পারে বলে জানা যাচ্চে। তবে এটি কোন সরকারি বা ধর্মীয় বা রাজনৈতিক দলের ডাকা বন্ধ নয়। এটি সংগ্রামী যৌথ মঞ্চের ডাকা কর্মবিরতি।

Ad

সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ 10 ও 11 অক্টোবর মঙ্গল ও বুধবার কর্মবিরতির ডাক দিয়েছে। ঐ দিন স্কুল, কলেজ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও অফিস কাছারি সব কিছুই বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে (West Bengal). দীর্ঘ দিন ধরে কেন্দ্রীয় হারে DA এর দাবিতে উত্তাল রাজ্য ও রাজনীতি। কেন্দ্রীয় হারে মহার্ঘ ভাতার দাবিতে আন্দোলনে নেমেছে রাজ্য সরকারি কর্মীরা (State Government Employees) হাইকোর্ট থেকে সুপ্রিম কোর্টে গেছে এই মামলা।

এখন সুপ্রিম কোর্টে চলছে মামলা। তবে কবে সেই সমস্যার নিস্পত্তি হবে জানা নেই। কারন সুপ্রিম কোর্ট বলেছে এই মামলার অনেক গুলো শুনানি দরকার এত তাড়াতাড়ি এই মামলার রায় দেওয়া যাবে না। প্রায় 200 এরও বেশি দিন ধরে আন্দোলন করে চলেছে বাংলার সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ। তাদের দাবি রাজ্যে (West Bengal) পুজোর আগেই তাদের বকেয়া DA বা মহার্ঘ ভাতা মেটানো হোক। আর এই দাবিতেই আবার কর্মবিরতির ডাক দিয়েছে তারা।

DA Hike (বকেয়া ডিএ বৃদ্ধির ঘোষণা)

প্রসঙ্গত কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা বর্তমানে 42 শতাংশ হারে মহার্ঘ ভাতা (Dearness Allowance) পান। আর সেখানে রাজ্যের সরকারি কর্মীরা পায় মাত্র 6 শতাংশ। অন্যান্য রাজ্যের মহার্ঘ ভাতাও এ রাজ্যের তুলনায় অনেকটা বেশি। আর তাই এই নিয়ে সরকারের (West Bengal Government) ওপরে চটে আছেন কর্মীরা। তাই বকেয়া DA এর দাবিতে ঐ দুই দিন কর্মবিরতির ডাক দিয়েছে তারা।

Food Safety – খবরের কাগজের ঠোঙা বাতিল করলো সরকার। ধরা পড়লে দোকানদার ও ক্রেতার কড়া শাস্তি।

যদিও গত ফেব্রুয়ারী মাসে সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ দুদিন কর্মবিরতির ডাক দিয়েছিল। তবে আন্দোলন প্রদর্শন করলেও তা কোনোভাবেই সফল হয়নি। রাজ্য সরকার সেদিকে দৃষ্টিপাতই করেনি। এবার ফের পুজোর আগে দুদিন কর্মবিরতির ডাক দিয়েছে সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ। এখন এটাই দেখার যে রাজ্য সরকার (West Bengal) পুজোর আগে তাদের দাবি মেনে নেয় কিনা।

অবশেষে পুজো উপলক্ষ্যে পশ্চিমবঙ্গের কর্মীদের বেতন বৃদ্ধির ঘোষণা। কোন কোন কর্মীদের জন্য কি কি

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(98) ""