স্কলারশিপ

OASIS Scholarship – ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদন শুরু হল, নয়া আবেদন প্রক্রিয়া দেখুন।

Adv

পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষার্থীদের জন্য OASIS Scholarship বা ওয়েসিস স্কলারশিপ নিয়ে এক খুশির খবর পাওয়া যাচ্ছে। আমরা অতি প্রাচীনকাল থেকেই আমরা শুনে আসছি যে শিক্ষার্থীরা দেশের ও দশের ভবিষ্যৎ এবং এই ভবিষ্যতকে সুরক্ষিত করার জন্য রাজ্য বা কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে অনেক ধরণের স্কলারশিপ (Scholarship) দেওয়া হয়ে থাকে। আর পশ্চিমবঙ্গ সরকারের (West Bengal Government) তরফে রাজ্যের পড়ুয়াদের জন্য OASIS Scholarship নিয়ে এসেছে।

OASIS Scholarship Latest Update.

আবার এক মাস পর চালু হল ওয়েসিস স্কলারশিপে (OASIS Scholarship) আবেদন গ্রহণ প্রক্রিয়া। এটি পশ্চিমবঙ্গ সরকারের একটি জনপ্রিয় স্কলারশিপ। এই স্কলারশিপটি SC, ST, OBC পড়ুয়াদের জন্য। এই স্কলারশিপে পড়ুয়ারা অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। যারা এই স্কলারশিপে আবেদন করবেন তাদের ব্যাংক একাউন্টে সরাসরি টাকা ঢুকে যাবে। এবার চলুন জেনে নেই এই স্কলারশিপ সম্পর্কে। যারা জানেন না কিভাবে আবেদন করবেন আর কি কি নথি লাগবে তারা জেনে নিন।

Ad

ওয়েসিস স্কলারশিপে (OASIS Scholarship) আবেদন করার নতুন নিয়ম: 2023-24 শিক্ষাবর্ষের জন্যে আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হলেও কিন্তু হঠাত ই কয়দিন পর থেকে ওয়েবসাইট বন্ধ করে দেওয়া হয়। এই বন্ধ করার কারন হল ওয়েবসাইট আপগ্রেডেশনের। এর জন্যেই মূলত বন্ধ রাখা হয় ওয়েবসাইট। ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদন প্রক্রিয়াটি ওটিপি সহযোগে আধার ভিত্তিক (E – Kyc) করার জন্যই ওয়েবসাইটটি পুনরায় নবীকরণ করা হয়েছে।

ওয়েসিস স্কলারশিপে (OASIS Scholarship) আবেদন করার জন্যে নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছে ওয়েসিস পোর্টালে। আবেদন করার আগে নির্দেশিকাগুলো পড়ে আবেদন করবেন। ওয়েসিস স্কলারশিপে আবেদন করার সময় জাতিগত শংসাপত্র এর নম্বরটি ঠিক ভাবে লিখতে হবে। বাংলার শিক্ষা পোর্টালে (Bangla Sikkha Portal) আবেদনকারীর যে নাম আছে সেই নাম আধার কার্ড (Aadhaar Card) এর সাথে এক হতে হবে। যদি তা না থাকে তাহলে আবেদন পত্র বাতিল হয়ে যাবে।

যদি নাম একই না থাকে তাহলে ছাত্র ছাত্রী তাদের নিজেস্ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যোগযোগ করে নাম ঠিক করতে পারবে। আবেদনকারীকে নিজের ব্যাংক একাউন্ট দিতে হবে। এছাড়াও ব্যাংক একাউন্ট এর সাথে আধার লিংক থাকতে হবে। একজন প্রাথী এই স্কলারশিপে একবারই আবেদন করতে পর্বে। বারবার আবেদন করলে আবেদন পত্রটি বাতিল করা হবে।

Minimum Balance (মিনিমাম ব্যালেন্স)

আবেদন করার সময় আবেদনকারীকে সক্রিয় ফোন নম্বর দিতে হবে। কোর্স শেষ হওয়া না পর্যন্ত নম্বরটি চালু রাখতে হবে। অবেদন করার সময় আবেদন পত্রের সঠিক স্থানে বয়স, নাম, লিঙ্গ, শিক্ষাগত যোগ্যতা লিখতে হবে।
ওয়েসিস স্কলারশিপ থেকে কোনো রকম ভুল তথ্য দিয়ে আবেদন করে টাকা পেলে বা মিথ্যে তথ্য দিয়ে আবেদন করলে অর্থাৎ OASIS Scholarship জালিয়াতি করলে স্কলারশিপ এর টাকা পুনরুদ্ধার করা হবে এবং আবেদনকারীর উপর আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

PMVVY Scheme – নতুন প্রকল্প আনল কেন্দ্র, প্রতিমাসে টাকা পাওয়া যাবে।

আবেদন করার জন্যে কি কি নথি লাগবে? আবেদন করার জন্যে আবেদনকারীর – পারিবারিক ইনকাম সার্টিফিকেট, আবেদন প্রার্থীর জন্ম তারিখের প্রমাণপত্র, আবেদনকারীর নিজস্ব জাতিগত শংসাপত্র, আবেদনকারীর শেষ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার মার্কসিট এবং আবেদনকারী নিজস্ব ব্যাংকের পাসবুক ইত্যাদি লাগবে। এই স্কলারশিপে আবেদন করার শেষ তারিখ সম্মন্ধে এখনো কিছু জানান হয় নি ওয়েসিস পোর্টালে।
Written by Ananya Chakraborty.

Dearness Allowance – এই মাস থেকেই বন্ধ হল DA! মাথায় হাত রাজ্য সরকারি কর্মীদের।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(101) ""