চাকরি

Primary TET 2014 নিয়ে সুখবর, 36000 নয়, চাকরি বাতিলের সংখ্যা কমে গেল, নতুন তালিকা দেখুন।

Adv

Primary TET নিয়োগ দুর্নীতির জট এখনও কাটেনি। তার মাঝে আবারও চাকরি বাতিলের নির্দেশ। ইতিমধ্যেই কলকাতা আদালতের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের নির্দেশে প্রাথমিকের (Primary TET) ৩৬ হাজার চাকরি বাতিলের খবর উঠে এসেছে। তবে সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, চাকরি বাতিলের সংখ্যা আরো কমতে পারে। তাহলে মোট কতজনের চাকরি বাতিল হচ্ছে? কারাই বা স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন? জানতে হলে সম্পূর্ণ প্রতিবেদনটি পড়তে ভুলবেন না। প্রসঙ্গত, টেটের ২০১৪ সালের প্যানেলে যেসকল প্রার্থীরা ট্রেইন্ড বা প্রশিক্ষিত হিসেবে জয়েন করেছিলেন, তাদেরকে কোনও সমস্যা পড়তে হবে না।

Primary TET

তবে যেসকল প্রার্থীরা অপ্রশিক্ষিত হিসেবে জয়েন করেছেন, তারা বর্তমানে অপ্রশিক্ষিত থাকলে বাতিল হবে চাকরি। ৪২৫০০ শিক্ষকের নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছিল। যদিও আদালতের পর্যবেক্ষণ এই নিয়োগে সংরক্ষণ নীতিও মানা হয়নি। গত ১২ মে প্রাথমিকের ৩৬ হাজার শিক্ষকের চাকরি বাতিলের নির্দেশ দেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। পাশাপাশি ৩ মাসের মধ্যে নতুন নিয়োগের নির্দেশও দিয়েছেন৷

Ad

Primary TET এ কাদের চাকরি থাকবে, সেই প্রসঙ্গে তিনি জানান, যেসকল প্রার্থী জয়েনিং এর পর প্রশিক্ষণ সম্পূর্ণ করেছেন, তাদের চাকরি থাকবে৷ যদিও সমস্যা সৃষ্টি হচ্ছে চাকরি বাতিলের সংখ্যা নিয়ে।সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, সেই সংখ্যা কমে প্রায় ২৭৪১৫ সংখ্যায় পৌঁছচ্ছে। তবে কী বাকিদের চাকরি বাতিল হচ্ছে না? এই প্রশ্নই রয়েছে সকলের মনে।

শুক্রবার বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় চাকরি বাতিলের নির্দেশে জানান, বহু বেনিয়ম লুকিয়ে রয়েছে। অ্যাপটিটিউড টেস্ট ও ইন্টারভিউও সঠিক ভাবে নেওয়া হয়নি। মানা হয়নি প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ার সংরক্ষণ নীতিও। ইতিমধ্যেই ৩৬০০০ চাকরি বাতিলের সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তিতে পড়েছেন মামলাকারীরা। মামলাকারীদের যুক্তি, আদালতের নির্দেশ মেনে প্রশিক্ষিতরা চাকরিতে বহাল থাকলে, ৩৬ হাজার থেকে বেশ অনেকটাই কমবে চাকরি বাতিলের সংখ্যা।

36000 শিক্ষকের চাকরি বাতিল, কোন শর্তে চাকরি বাঁচতে পারে?

টাইপোগ্রাফিকাল ত্রুটির কারণে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হতে পারে। সেক্ষেত্রে মোট চাকরি বাতিল হবে ২৭৪১৫ জনের। আর চাকরি বাতিলের সংখ্যা কমবে ৮৫৮৫ জনের। ৩৬ হাজার জনের চাকরি বাতিলের নির্দেশ দেওয়া হলেও সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, সংখ্যাটি হবে ৩০,১৮৫। যদিও তার মধ্যে কয়েকজন প্রশিক্ষনপ্রাপ্ত প্যারা টিচার থাকছেন। সেই সংখ্যাটি আনুমানিক প্রায় ২৭৭০ জন।

ফলে সেই ৩০১৮৫ সংখ্যা থেকে ২৭৭০ বাদে প্যারা টিচারের সংখ্যাটি বাদ দিলে হবে ২৭,৪১৫।
যদিও এই রায়ে দ্বিমত রয়েছে বাতিল হওয়া শিক্ষক শিক্ষিকা, পর্ষদের সঙ্গে সঙ্গে সরকারেরও।
শনিবার দুপুরে প্রায় ৬০০ জন প্রাথমিক শিক্ষক হাওড়া সদর তৃণমূল কংগ্রেসের অফিসের সামনে জমায়েত হন। সেখানে সংগঠনের নেতারা হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চের রায়ের সমালোচনা করেন।

অতিরিক্ত 6 নম্বর দেওয়া নিয়ে সমস্যা বৃদ্ধি, ৪৩ হাজার শিক্ষক নিয়োগ প্রভাবিত হবে।

তারা দাবি জানান, আদালতের নির্দেশে তাদের প্রশিক্ষণহীন বলা হলেও সেটি একেবারেই ঠিক নয়। আজ তারা ডিভিশন বেঞ্চে যাওয়ার দাবি জানান। পাশাপাশি রাজ্য সরকারের তরফেও আজকে অর্থাৎ সোমবার সিঙ্গেল বেঞ্চের চাকরি বাতিলের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ডিভিশন বেঞ্চে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।
Primary TET সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(99) ""