রোজগার

5 Rs Old Note – মাত্র 5 টাকার নোট রাতারাতি ঘরে আনবে 8 লাখ টাকা, কোন ওয়েবসাইটে বিক্রি করা যাবে? চটপট দেখে নিন।

Adv

টাকা থাকলেই জীবনের প্রায় সকল সমস্যার সমাধান করা সম্ভব। তাই কঠোর পরিশ্রম করে হলেও টাকা সঞ্চয় করার চেষ্টা করেন সকলে। কিন্তু যদি আপনার কাছে এই 5 Rs Old Note থাকে তাহলে আর পিছনে ফিরে দেখতে হবে না ভবিষ্যতে ভালো থাকার চাবি কাঠি আপনার হাতেই। তবে জানেন কি কোনো পরিশ্রম না করেও লাখ লাখ টাকা পাওয়া যাবে। না, লটারির মাধ্যমে নয়। লটারির টিকিট কেটে কোটি টাকা পাওয়া যায়, এটা ঠিক। কিন্তু সকলে সেই সুযোগ পান না। তার জন্য প্রয়োজন হয় ভাগ্যের। না হলে টিকিটের সম্পূর্ণ টাকাই জলে।

আজকে একটি অন্য উপায়ে বিনা পরিশ্রমেই বাড়িতে বসে লাখ লাখ টাকা কমানোর সম্পর্কে জানানো হবে। উপায়টি অবশ্য অনেকেই জানেন। তাহলে চটপট দেখে নেওয়া যাক। প্রসঙ্গত, এটি হল পুরোনো নোট বা কয়েন বিক্রি। এই উপায়টি সম্পর্কে অনেকের জানা থাকলেও, কত টাকা বিক্রিতে কেমন আয় হবে? কিভাবে বিক্রি করতে হবে? তা জানা নেই।

Ad

অক্ষয় তৃতীয়ার আগে সোনার দাম নিয়ে বড় খবর, গহনা কেনা ও বিনিয়োগ করার আগে দেখুন।

5 Rs Old Note নোট বৃত্তান্ত-

যদি কোনো ব্যক্তির কাছে থাকে 5 Rs Old Note তাহলে পাবেন ৪ লাখ টাকা। তাও আবার বাড়িতে বসেই। তবে যে কোনো 5 Rs Old Note থাকলে চলবে না। সেই নোটে থাকতে হবে ৩ অঙ্কের বিশেষ সংখ্যা। সংখ্যাটি হল ৭৮৬। এই সংখ্যাগুলিকে মুসলিম ধর্মাবলম্বীর মানুষেরা অত্যন্ত শুভ এবং পবিত্র বলে মনে করেন। তাছাড়া হিন্দু ধর্মের মানুষেরাও শুভ বলে মানেন। তাছাড়া নোটের পেছন দিক থেকে ট্রাক্টর চালাচ্ছেন কৃষক, এমন ছবি থাকাতে হবে। যদি ব্যক্তির কাছে এই ধরণের ২ টি নোট থাকে, পেয়ে যাবেন ৮ লাখ টাকা।

5 Rs Old Note বিক্রির পদ্ধতি-
বর্তমানে যে কোনো কাজ বাড়িতে বসে অনলাইনের মাধ্যমে সহজেই করে ফেলা সম্ভব। সেরকমই অনলাইনে এই ধরণের পুরোনো নোট বা কয়েক বিক্রি করেও মোটা অঙ্কের টাকা রোজগার করা যাবে। তার জন্য রয়েছে বিভিন্ন ই-কমার্স ওয়েবসাইট।

ট্রাক্টর মার্কা ৫ টাকার পুরনো নোট থাকলেই মালামাল, বিক্রয় করলেই লাখ টাকা।

ই_কমার্স ওয়েবসাইটের নাম- ebay. এছাড়াও রয়েছে Indiamart, Quikr ইত্যাদি।
এই ধরণের ওয়েবসাইট ওপেন করে ব্যক্তিকে বিক্রেতা হিসেবে রেজিস্টার করতে হবে। নির্দিষ্ট নিয়ম মেনে দিতে হবে বৈধ ও সক্রিয় মোবাইল নম্বর। একটি স্পষ্ট ছবি আপলোড করতে হবে। ক্রেতা যদি নোটের ছবি দেখে কিনতে ইচ্ছুক থাকেন, তিনি বিক্রেতার সঙ্গে যোগাযোগ করে নেবেন।

অনেক মানুষেরই চাকরি নয়, বরং নিজস্ব ব্যবসা শুরু করা স্বপ্ন থাকে ছোটবেলা থেকেই। বাড়িতে পুরোনো নোট বা কয়েন থাকা সত্বেও তারা জানেন না কিভাবে বিক্রি করতে হবে, তাই পুরোনো বা বাতিলের খাতায় জায়গা হয় এগুলির। সঠিক পদ্ধতিতে এই নোট বা কয়েন বিক্রি করতে পারলেই রাতারাতি একাউন্টে ঢুকবে বা নগদে মিলবে লাখ লাখ টাকা। যা দিয়ে নিজের স্বপ্ন সহজেই পূরণ করা সম্ভব।

আপনার কাছে আছে এই অতি মুল্যবান 5 টাকার নোট? সঠিক ক্রেতার কাছে বিক্রি করে লক্ষ্য টাকা উপার্জন করুন।

উল্লেখ্য, অনলাইনে কেনাবেচার ক্ষেত্রে ক্রেতা এবং বিক্রেতা উভয় ব্যক্তিকেই সতর্ক থাকতে হবে। না হলে সমস্যায় পড়তে পারেন।
এই সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(101) ""