ট্রেন্ডিং

Local train – বনগাঁ-শিয়ালদহ লাইনে ট্রেন চলাচল ব্যাহত, সমস্যায় বহু যাত্রী।

Adv

প্রতিদিন যাতায়াতের জন্য যাত্রীদের কাছে Local train ই ভরসা। কিন্তু আবারও ট্রেন চলাচল ব্যাহত হওয়ার কারণে দুর্ভোগ হল যাত্রীদের। বৃহস্পতিবার শিয়ালদা- বারাসত, হাসনাবাদ ও বনগাঁ শাখায় এমনই সমস্যার মুখে পড়লেন আমজনতা। সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, ডাউন লাইনে সিগনালিং এর সমস্যার জন্য প্রায় অনেক্ষণের জন্য বনগাঁ, বারাসত থেকে শিয়ালদামুখী ডাউনে ট্রেন পরিষেবা বন্ধ হয়ে যায়। যার জেরে ডাউন ট্রেনগুলি বিভিন্ন স্টেশনে দাঁড়িয়ে পড়ে।

কেবল Local train নয়, ভোগান্তির মুখে এক্সপ্রেস ট্রেনও, বিশদে জানুন।

তবেই কেবল Local train নয়, এদিন একই সমস্যার মুখে পড়ে এক্সপ্রেস ট্রেনও। প্রসঙ্গত, প্রায়শই ট্রেন যাত্রীদের সিগন্যালের কাজ হওয়ার কারণে সমস্যায় পড়তে হয়। বিশেষত, সারাদিন কাজ করার পরে অফিস থেকে বাড়ি ফেরার পথে ট্রেন লেট বা সিগন্যালের কাজ হলে তা কষ্টসাধ্য হয়ে ওঠে সাধারণ মানুষের কাছে।

Ad

233 টি ট্রেন বাতিল শিয়ালদহ, হাওড়া সহ বেশ কয়েকটি শাখায়, এর কারন কী, কবে থেকেই বা স্বাভাবিক হবে?

তেমনই গতকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবার ডাউন লাইনে সিগন্যালের কাজ হওয়ার কারণে ট্রেন স্বাভাবিকের থেকে বেশ কিছুটা ধীরে চলছিল। এদিন সন্ধ্যায় হৃদয়পুর ও মধ্যমগ্রাম স্টেশনের মাঝে হঠাৎ সিগন্যালিং সমস্যা শুরু হয়। তাতেই পরপর দুটি Local train অনেক্ষণের জন্য হৃদয়পুর স্টেশনে দাঁড়িয়ে পড়ে। এর সঙ্গে সঙ্গে কলকাতা খুলনা বন্ধন এক্সপ্রেসও আটকে পড়ে।

সন্ধ্যায় একই কারণে দুটি ট্রেন পর পর দাঁড়িয়ে পড়ে হৃদয়পুর স্টেশনে। এরপর সিগন্যালিংয়ের কাজ দ্রুত সম্পন্ন করে যাত্রী পরিষেবা ফের স্বাভাবিক করার চেষ্টা করে রেল কর্তৃপক্ষ। এক্সপ্রেস ট্রেনটিকে আগে পাশ করানো হয়। পরে দাঁড়িয়ে থাকা দুটি Local trainকে পাশ করানো হয়। তবে এদিন কেবল ডাউনেই নয়, পাশাপাশি বনগাঁ-শিয়ালদা আপ লাইনেও কিছুটা প্রভাব পড়ে।

বেশিরভাগ সাধারণ মানুষই ট্রেনের উপর ভরসা করে যাত্রাপথে রওনা দেন। মাঝে কিছুক্ষনের জন্য সময় নষ্ট হলেও ভোগান্তি হয় যাত্রীদেরই। যদিও যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে এই ভোগান্তি। এ নিয়ে বারাসত জি আর পি ওসি জানিয়েছেন, বর্তমানে যাত্রী পরিষেবা আবারও শুরু হয়েছে, যদিও বেশ খানিকক্ষন দেরিতে চলছে ট্রেন।

জরুরি খবর, আজ অর্থাৎ ১০ মার্চ রাজ্য সরকারি কর্মীরা ডিএ এর দাবিতে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন। একই সঙ্গে মাধ্যমিকের উত্তরপত্র দেওয়ার দিনই ঘোষণা করেছে পর্ষদ। স্কুল কর্তৃপক্ষকে এ বিষয়ে জানানো হলেও, শিক্ষক- শিক্ষিকাদের একাংশ মনে করছেন, এর জেরে কিছুটা প্রভাব পড়তে পারে।

ভারতে নিষিদ্ধ হলো KDM লোকাল সোনা, হলমার্ক ছাড়া সোনা কেনাবেচা করা যাবে না।

যদিও ট্রেন চলাচল ব্যাহত হয়েছে, এমন আপডেট এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।
এই সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(91) ""