অর্থনীতি

SIM Swap Scam – লক্ষ লক্ষ টাকা গায়েব OTP ছাড়া 1 মিনিটের মধ্যে। সাবধান না হলে দেউলিয়া হবেন।

Adv

বর্তমানে আমাদের দেশ সহ আরো বহু দেশ ধীরে ধীরে ডিজিটাল হচ্ছে। SIM Swap Scam বা সিম কার্ডের মাধ্যমে দুর্নীতি করা হচ্ছে। এই ডিজিটাল হওয়ার ফলে যেমন মানুষদের কাজের স্পিড যেমন বাড়ছে তেমন বাড়ছে প্রতারণার জালও। অনেক মানুষ মাঝে মধ্যে বিভিন্ন রকম দুর্নীতিতে ফেঁসে যাচ্ছে। এর ফলে অনেক মানুষের আর্থিক দিক থেকে ক্ষতি হচ্ছে অনেকের মানসিক।

SIM Swap Scam In India.

আজ আপনাদের সাথে SIM Swap Scam সম্পর্কে আলোচনা করবো যা আপনাদের জানা তা অত্যন্ত জরুরী। কারন এই Scam করে মানুষদের Bank Account থেকে টাকা গায়েব হয়ে যাচ্ছে। চলুন এই SIM Swap Scam সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন। প্রযুক্তির যুগে একের পর এক প্রতারনার ফাঁদ পেতে চলছে প্রতারকরা। চলতি বছরের শুরুর দিকেই উত্তর দিল্লির এক অ্যাডভোকেট শুধু মাত্র সিম অদলবদল করেই লাখ টাকা হারিয়েছেন।

Ad

যদিও তিনি কারো সাথে OTP শেয়ার করেননি তবুও তার থেকে টাকা গায়েব হয়ে গিয়েছে। কেবল মাত্র তার ফোন নম্বর এ এসেছিল বেশ কয়েকটি মিসড কল। ঠিক একি ঘটনা ঘটেছে আবার দক্ষিন দিল্লির এক ব্যবসায়ীর সাথে। কিভাবে চলছে এই প্রতারণা? কিভাবে মিসড কল দিয়ে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতারকরা? বিপদে পড়ার আগে জেনে নিন এসব। বিশেষজ্ঞরা এই প্রতারণার নাম দিয়েছে সিম অদলবদল কেলেঙ্কারি বা SIM Swap Scam.

SIM Swap Scam এর সাহায্যে প্রথমে প্রতারকরা ফিশিং বা ভিশিং এর সাহায্যে ব্যক্তিগত সব বিবরণ নাম, ফোন নম্বর Bank Account এর বিবরণ, ঠিকানা সব তথ্য জেনে নেয়। তবে এর ব্যাপারে আপনাদের ফিশিং এর ব্যাপারে জানিয়ে রাখি। এই সকল স্ক্যাম এর মাধ্যমে গ্রাহকদের কোটি কোটি টাকার জালিয়াতি হয়ে যাচ্ছে।

What Is Phising Scam?

এটি হল এমন একটি কৌশল জার দ্বারা প্রতারকরা মেল বা SMS এর মধ্যে একটি লিঙ্ক পাঠায়। সেই লিঙ্কে হাত পরে গেলেই খুব সহজে প্রতারকরা আপনার সব তথ্য জেনে যাবে। তারপরে তারা চলে যায় মোবাইল অপারেটরের খুচরা আউটলেটে। সেখান থেকে জাল আইডি বানিয়ে মোবাইল ফোন জাল চুরির রিপোর্ট করেন। এই ভাবেই ফিশিং করা হয় (SIM Swap Scam).

এবার জেনে নিন কীভাবে প্রতারকরা টার্গেট ব্যক্তির ব্যাংক একাউন্ট থেকে তুলে নিচ্ছেন টাকা। ফিসিং আক্রমণের মাধ্যমে যেহেতু ইতিমধ্যেই তাদের হাতে চলে এসেছে সমস্ত তথ্য তাই খুব সহজেই টার্গেট ব্যক্তির ব্যাংকের একাউন্ট নম্বর এবং পাসপোর্ট নিয়ে সরাসরি ওই টার্গেট ব্যক্তির ব্যাংকের পোর্টালে লগইন করতে পারেন, এরপর পেয়ে যান OTP. যেহেতু ভিকটিম এর অ্যাক্সেস আছে প্রতারকের কাছে তাই সহজেই OTP SIM Swap Scam পেয়ে যায় তারা।

SBI Personal Loan (স্টেট ব্যাংক পার্সোনাল লোন)

আর এই OTP পাওয়ার ফলেই কোনো রকম ফোন বা SMS ছাড়াই সহজেই হাতিয়ে নিতে পারবেন ব্যাঙ্ক এর টাকা। এই জালিয়াতির হাত থেকে বাঁচতে কি করবেন? এই জালিয়াতির হাত থেকে বাঁচার জন্যে প্রথমেই আপনাকে যেনতেন প্রকারে ফিশিং বা ভিশিং এর হাত থেকে বাঁচতে হবে। যদি দেখেন ফোনে একই নাম্বার থেকে বারে বারে মিসড কল আসছে তাহলে সেটিকে এড়িয়ে যাবেন না কিংবা মোবাইল কখনোই সুইচ অফ করে দেবে না বরং অবিলম্বে মোবাইল অপারেটরের সঙ্গে যোগাযোগ করুন (SIM Swap Scam).

31 লক্ষ রিটার্ন দিচ্ছে এই LIC পলিসি। হাত খরচের টাকায় ভবিষ্যৎ সুরক্ষিত করুন।

মাঝে মধ্যেই পরিবর্তন করুন ব্যাংক একাউন্টের পাসওয়ার্ড। যদি কোনোরকম সন্দেহ জেগে থাকে মনে তাহলে অবিলম্বে ব্যাংক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করুন। তাও যদি সমস্যার সমাধান না হয় তাহলে ব্লক করে দিন ওই অ্যাকাউন্ট। তবে ব্লক করার আগে এত সব টাকা অপর Account এ ট্রান্সফার করে দিন। এইভাবেই বাঁচতে পারবেন প্রতারণার হাত থেকে (SIM Swap Scam).
Written by Ananya Chakraborty.

দেশের 40 কোটি গ্রাহকের একাউন্টে সর্বোচ্চ 10 টাকা টাকা পর্যন্ত দেবে সরকার। অনলাইনে এইভাবে আবেদন করুন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(97) ""