শিক্ষা

স্কুল বা কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা ট্রেনের টিকিটে পান ৭৫% ছাড়। এই নিয়ম আপনি জানতেন কি?

Adv

ভারতীয় রেলের তরফে বরাবরই যাত্রীদের কথা মাথায় রেখে টিকিটের দামে নানারকম ছাড় দেওয়া হয়ে থেকে। এমনকী ভারতের সর্বস্তরের স্কুল পড়ুয়া বা কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের কথা মাথায় রেখে ভারতীয় রেলের তরফে ছাত্রছাত্রীদের জন্য টিকিটের দামে ছাড় দেওয়া হয়ে থেকে। ভারতীয় রেলের পক্ষ থেকে বেশ কিছু নির্দিষ্ট বিভাগ এবং শর্তের অধীনে স্কুল এবং কলেজ পড়ুয়া ছাত্রছাত্রীদের টিকিটের দামে এইরূপ ছাড় দেওয়া হয়ে থাকে। এই সমস্ত বিভাগের অধীনে ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনার জন্য বা ভারতস্থিত বিভিন্ন স্কুল, কলেজের জন্য ট্রেনের মাধ্যমে যাতায়াতের ক্ষেত্রে ছাত্রছাত্রীদের টিকিটের দামে ছাড় দেওয়া হয়। আর অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ছাত্র-ছাত্রীরা এই সমস্ত তথ্যগুলি না জানার কারণে যাতায়াতের ক্ষেত্রে তাদের প্রাপ্য ছাড়গুলি পান না।

আর তাই আজকের এই পোস্টে আমরা ভারতীয় রেলের তরফে ছাত্র ছাত্রীদের জন্য বিশেষভাবে কার্যকরী এমন কতোগুলি ছাড় সম্পর্কে তথ্য নিয়ে হাজির হয়েছি যেগুলির মাধ্যমে পড়ুয়ারা ট্রেনের টিকিটের দামের উপর ২৫ শতাংশ ছাড় থেকে শুরু করে বিনামূল্যে ভ্রমণের সুবিধা পর্যন্ত পেতে পারেন।

Ad

ভারতীয় রেলের তরফে মহিলা শিক্ষার্থীদের অর্থাৎ ছাত্রীদের বিশেষভাবে সুবিধা প্রদানের জন্য এক বিশেষ নিয়ম কার্যকরী করা হয়েছে, যার মাধ্যমে ছাত্রীরা বিনামূল্যে ভ্রমণের সুবিধা পেতে পারেন। রেলের কার্যকরী এই নিয়মে বলা হয়েছে যে, ট্রেনের সাধারণ শ্রেণীর MST (মাসিক সিজন টিকিট) তে সঠিক উদ্দেশ্য নিয়ে স্কুল-কলেজের উদ্দেশ্যে যেসমস্ত ছাত্রীরা যাতায়াত করেন তারা বিনামূল্যে ভ্রমণের সুবিধা পাবেন। স্কুল থেকে শুরু করে স্নাতক স্তরে পাঠরত মেয়েদের এই সুবিধা দেওয়া হয়ে থাকে।

তবে এই বিশেষ নিয়ম শুধু মেয়েদের জন্য নয়, ছেলেদের জন্যও এরূপ বিশেষ নিয়ম কার্যকরী করেছে ভারতীয় রেল। ট্রেনের সাধারণ শ্রেণির MST-তে ছাত্ররাও বিনামূল্যে ভ্রমণের সুবিধা পেয়ে থাকেন, তবে এক্ষেত্রে কেবলমাত্র স্কুল স্তরের দ্বাদশ শ্রেণী পর্যন্ত ছাত্রদের এই সুবিধা প্রদান করা হয়ে থাকে। এমনকী নিবন্ধিত মাদ্রাসার অধীনে পাঠরত ছাত্র-ছাত্রীরাও ট্রেনে বিনামূল্যে ভ্রমণের সুবিধা ভোগ করে থাকেন।

গ্রামীন এলাকায় যেকোনো সরকারি স্কুলে পাঠরত ছাত্রছাত্রীরা এবং যেকোনো প্রবেশিকা পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছেন এরূপ ছাত্র-ছাত্রীরা ভারতীয় রেলের নিয়ম অনুসারে টিকিটের দামে ৭৫ শতাংশ ছাড় পেয়ে থাকেন। তবে ছাত্র-ছাত্রীরা শুধুমাত্র সাধারণ শ্রেণীতে ভ্রমণ করলেই এই ছাড় পেয়ে থাকেন।
এর পাশাপাশি ভারতীয় রেলের তরফে ইউনিয়ন পাবলিক সার্ভিস কমিশন (UPSC) এবং সেন্ট্রাল স্টাফ সিলেকশন কমিশন অধীনে লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ছাত্র-ছাত্রীদের শ্রেণীর টিকিটের দামের ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দেওয়া হয়ে থাকে। তবে অন্যান্য ক্ষেত্রগুলির মতোই এক্ষেত্রেও কেবলমাত্র সাধারণ শ্রেণীতে ভ্রমণের ক্ষেত্রেই ছাত্রছাত্রীরা এই ছাড় পেয়ে থাকেন।

টেট নিয়ে ১৬ দফা গাইডলাইন প্রকাশ করলো স্কুল শিক্ষা দপ্তর। না মানলে পরীক্ষা বাতিল

যেসমস্ত ছাত্র-ছাত্রীরা পড়াশোনার জন্য বাড়ি থেকে দূরে বসবাস করেন, তারা বাড়ি যাওয়ার ক্ষেত্রে কিংবা বাড়ি থেকে শিক্ষাক্ষেত্রে আসার জন্য ট্রেনের মাধ্যমে যাতায়াত করলে টিকিটের দামে ছাড় পেয়ে থাকেন। এমনকী যেকোনো এডুকেশনাল ট্যুরের ক্ষেত্রেও এই একই নিয়মের অধীনে ছাত্র-ছাত্রীরা টিকিটের ক্ষেত্রে ছাড় পেয়ে থাকেন। এক্ষেত্রে সাধারন শ্রেণীতে স্লিপার ক্লাসে ভ্রমণকারী ছাত্র-ছাত্রীদের টিকিটের দামে ৫০ শতাংশ ছাড় দেওয়া হয়ে থাকে ভারতীয় রেলের তরফে। এমনকী যেসমস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের MST বা QST (ত্রৈমাসিক সিজন টিকিট) তারাও উপরোক্ত ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় পেয়ে থাকেন।

অন্যদিকে, তপশিলি জাতি এবং উপজাতি সম্প্রদায়ভুক্ত ছাত্র-ছাত্রীরা সাধারণ শ্রেণীতে স্লিপার ক্লাসে যাত্রাকালে টিকিটের দামে ৭৫ শতাংশ ছাড় পেয়ে থাকেন। এক্ষেত্রে যেসমস্ত ছাত্র-ছাত্রীদের MST এবং QST রয়েছে তারাও টিকিটের দামে ওই একই ছাড় অর্থাৎ ৭৫ শতাংশ ছাড় পেয়ে থাকেন।

বর্তমানে যেকোনো বিষয় নিয়ে গবেষণা করছেন এইরূপ ছাত্র-ছাত্রীদের ক্ষেত্রেও ভারতীয় রেলের তরফে যাতায়াতের খরচের উপরে ছাড় দেওয়া হয়ে থাকে। গবেষণার ক্ষেত্রে ছাত্রদের ৩৫ বছর বয়স পর্যন্ত টিকিটের দামে ৫০ শতাংশ ছাড় দেওয়া হয়ে থাকে। তবে এক্ষেত্রে খেয়াল রাখতে হবে কেবলমাত্র সাধারণ শ্রেণীতে স্লিপার ক্লাসে যাত্রাকালে এই ছাড় পাওয়া যাবে।

যেকোনো কর্মশিবিরে যোগ দেওয়ার ক্ষেত্রে ছাত্রদের টিকিটের দামে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দেওয়া হয়ে থাকে। তবে একজন ছাত্র এই ছাড় কেবলমাত্র তখনই পাবেন যখন তিনি সাধারণ শ্রেণীতে স্লিপার ক্লাসে যাত্রা করবেন। এমনকী যেকোনো গ্রামীণ স্কুলে পাঠরত ছাত্র-ছাত্রীরা এডুকেশনাল ট্যুরের জন্য সাধারণ শ্রেণিতে স্লিপার ক্লাসে যাত্রাকালে ৭৫ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় পেতে পারেন।

ভারতের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত বিদেশি ছাত্ররা ভারত সরকার কর্তৃক আয়োজিত যেকোন সেমিনারে কিংবা কর্মসূচিতে যোগ দেওয়ার ক্ষেত্রে সাধারণ শ্রেণীতে স্লিপার ক্লাসে যাত্রাকালে টিকিটের দামে ৫০ শতাংশ ছাড় পেয়ে থাকেন। এমনকি যেকোন ছুটির দিনে ঐতিহাসিক স্থানে ভ্রমণের ক্ষেত্রেও একই ছাড় প্রদান করা হয়ে থাকে রেলের তরফে।

ভারতীয় রেলওয়ে ক্যাডেট এবং মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং এর ছাত্র যারা মার্চেন্ট মেরিন শিপিং বা ইঞ্জিনিয়ারিং প্রশিক্ষণের জন্য বিভিন্ন ক্ষেত্রে যাতায়াত করে থাকেন, তাদের ভারতীয় রেলের তরফে টিকিটের দামের উপরে ৫০ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় দেওয়া হয়ে থাকে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই ছাড় কেবলমাত্র প্রশিক্ষণ কর্মসূচির রাউন্ড ট্রিপের জন্যই দেওয়া হয়ে থাকে।

Related Articles

One Comment

  1. আমি দাসনগর গভর্মেন্ট পলিটেকনিক কলেজে ভর্তি হয়েছি। আমাকে প্রতিদিন ট্রেনে যাতায়াত করতে হয়। তাই আমি কি বিনামূল্যে মাসিক ট্রেনের টিকিট কাটতে পারবো। please suggestions.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(92) ""