প্রকল্প

লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা বন্ধ, এই ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট থাকলেই জুন মাস থেকে পাবেন না টাকা।

Adv

২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে পশ্চিমবঙ্গে চালু হয়েছিল লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের অনুপ্রেরণায় ও তত্বাবধানে এই জনকল্যাণমুখী প্রকল্প চালু করা হয়েছিল। কেবলমাত্র রাজ্যের মহিলারাই এই প্রকল্পে আবেদন জানাতে পারবেন। ইতিমধ্যে এই প্রকল্পে আবেদনকারীর সংখ্যা লক্ষ লক্ষ মহিলা। পরিবারের মহিলা সদস্যদের আর্থিক সুবিধা দিতে এই প্রকল্প চালু করা হয়েছিল। যেটিতে আবেদনের মাধ্যমে বার্ষিক ৬,০০০ টাকা থেকে ১২,০০০ টাকা প্রদান করা হয়েছে থাকে।

লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা কেন পাবেন না?

তবে আগামী মাস অর্থাৎ জুন মাস থেকে আবেদনকারী মহিলারা আর টাকা পাবেন না লক্ষ্মীর ভান্ডারের, যদি তাদের অ্যাকাউন্ট নির্দিষ্ট কয়েকটি ব্যাংকে থেকে থাকে। কেন হঠাৎ এই সিদ্ধান্ত জারি করা হল? কোন কোন ব্যাংকের নাম তালিকায় রয়েছে? জানতে সম্পূর্ণ প্রতিবেদনটি পড়তে ভুলবেন না। বিশেষত, পঞ্চায়েত ভোটার আগে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের আবেদনকারীদের উদ্দেশ্যে জানানো হয়েছিল, এবার থেকে বিধবা ভাতা পেলেও এই প্রকল্পে আবেদন জানানো যাবে।

Ad

অর্থাৎ দুটির টাকাই পাওয়া যাবে। গত এপ্রিল মাসে আয়োজিত হয়েছিল দুয়ারে সরকার ক্যাম্প। এই ক্যাম্প বা শিবিরের মাধ্যমেই এই প্রকল্পে আবেদন জানানো যাবে। পাশাপাশি লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে আবেদনের মাধ্যমে আর্থিক সুবিধা প্রদান করা হলেও, সরকারি দফতরের খবর পৌঁছেছিলো, অনেক আবেদনকারী অযোগ্য হওয়া সত্বেও আবেদন জানাচ্ছেন। আর আর্থিক সুবিধা পাচ্ছেন। সেই সুবিধা বন্ধ করতেই কিছু নিয়মে পরিবর্তন আনা হয়েছে।

আর 500 টাকা নয়, লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে দেওয়া হবে 2000 টাকা!! কারা পাবেন?

কোন কোন ব্যাংকে পাসবই থাকলে টাকা পেতে সমস্যা হবে?
সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, PNB, BOI, Indian Bank, Bank of Baroda, Central Bank, Indusland Bank, Canara Bank এর মধ্যে যেকোনো ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট থাকলে আর নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম না মানলে জুন মাস থেকে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা আর পাওয়া যাবে না। সরকারিভাবে ইতিমধ্যেই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে,

১) আবেদনকারী মহিলার সিঙ্গেল ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নেই। তাই এতদিন ধরে জয়েন্ট অ্যাকাউন্টেই টাকা পাচ্ছিলেন। জুন মাস থেকে নতুন সিঙ্গেল ব্যাংক অ্যাকাউন্ট না থাকলে আর টাকা পাবেন না। সিঙ্গেল ব্যাংক অ্যাকাউন্টের তথ্য শীঘ্রই দুয়ারে সরকার ক্যাম্প বা বিডিও অফিসে জমা করতে হবে।

২) এর আগে ৩১ মার্চ সরকারি দফতরের তরফে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছিল, ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে আধার লিংক করা না থাকলে লক্ষ্মীর ভান্ডারের টাকা অ্যাকাউন্টে ঢুকবে না।
৩) গত কয়েক বছর আগে দুটি করে ব্যাংক মার্জ অর্থাৎ একত্রিত হয়ে গিয়েছিলো সেই সংবাদ আমরা সকলেই জানি। ফলে IFS কোডেও পরিবর্তন এসেছে, এটি অনেকেরই অজানা।

জাগো প্রকল্পে আবেদন করলেই পশ্চিমবঙ্গের মহিলারা পাবেন প্রতিমাসে 5 হাজার টাকা।

ব্যাংক মার্জ হওয়ার আগে পাসবইয়ে থাকা ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ও আইএফএস কোড লক্ষ্মী ভান্ডারের আবেদনপত্র পূরণের সময় দেওয়া হয়েছিল। বর্তমানে তাতে পরিবর্তন আসার ফলে এই প্রকল্পের টাকা ঢোকার ক্ষেত্রে সমস্যা হতে পারে। ব্যাংক পাসবইয়ে নতুন IFS কোড সিল ও সই করিয়ে সেটির জেরক্স দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে জমা করতে হবে, তাহলেই অ্যাকাউন্টে টাকা ঢুকবে।
প্রকল্প সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(88) ""