প্রকল্প

উচ্চমাধ্যমিক পাশে রাজ্যের সকল বেকার যুবক যুবতীরা পাবেন প্রতি মাসে 2500 টাকা, আবেদন পদ্ধতি জেনে নিন।

Adv

দেশের সাধারণ মানুষের জন্য সুখবর। বিশেষত উচ্চমাধ্যমিক পাশের পর বহুদিন ধরে কাজের সন্ধান করছেন? এমন প্রার্থীরা সুখবর পেতে চলেছেন। এবার সরকারের তরফে বেকারত্ব কমাতে নেওয়া হল বিশেষ পদক্ষেপ। যেখানে আবেদন জানালে পাওয়া যাবে মাসিক মোটা টাকা। সংবাদ মাধ্যমসূত্রে খবর, রাজ্য সরকার এই প্রকল্পের জন্য ২৫০ কোটি টাকার বাজেট তৈরি করেছে। আবেদনকারীদের কত টাকা দেওয়া হবে? কারা আবেদন জানাতে পারবেন? আবেদনের অন্যান্য শর্ত? বিস্তাতিভাবে জানানো হল।

উচ্চমাধ্যমিকে কত নম্বর লাগবে?

গত ১ এপ্রিল থেকে রাজ্যের বেকার যুবক এবং যুবতীরা উচ্চমাধ্যমিক পাসে এই প্রকল্পে আবেদন জানাতে পারবেন। আবেদনকারীরা প্রতি মাসে মাসে পাবেন ২,৫০০ টাকা। এক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতার ভিত্তি হিসেবে উচ্চমাধ্যমিক পাশ করলেই জানানো যাবে আবেদন। তবে পশ্চিমবঙ্গে নয়, ছত্তিশগড়ের বাসিন্দারা এই সুযোগ সুবিধা পাবেন। সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, গত ৬ মার্চ ছত্তিশগড়ের বিধানসভায় ২০২৩-২৪ সালের বাজেট পেশ করেন মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেল।

Ad

রমজান মাসে পাবেন অতিরিক্ত রেশন সামগ্রী, কোন প্রকার কার্ডে কতটা Free রেশন পাবেন জেনে নিন।

সেই সময় তিনি বেকারত্ব ভাতা প্রকল্পের ঘোষণা করেছিলেন। বাজেটের মোট পরিমান ১,২১,৫০০ কোটি টাকা। যার মধ্যে এই ভাতার জন্য বাজেট হল ২৫০ কোটি টাকা। ছত্তিশগড় বেকারত্ব ভাতা প্রকল্পের আবেদনকারী বেকার যুবক ও যুবতীদের প্রথমে বিশেষ ট্রেনিং দেওয়া হবে। এরপর তাদের কাজ দেওয়ার চেষ্টাও করা হবে বলে জানানো হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে।

আবেদনের শর্ত-
১) অবশ্যই ছত্তিশগড় রাজ্যের বাসিন্দা হতে হবে।
২) এপ্রিলের ১ তারিখ হিসেবে আবেদনকারীর বয়স ন্যূনতম ১৮ বছর থেকে সর্বোচ্চ বয়স ৩৫ বছর হতে হবে।
৩) উচ্চমাধ্যমিক/ 12th পাশ করতে হবে।

৪) ছত্তিশগড়ের স্ব-কর্মসংস্থান নির্দেশিকা কেন্দ্রের সঙ্গে আবেদনকারীর সম্পর্ক থাকতে হবে।
৫) আবেদনকারীর পরিবারের বার্ষিক আয় ২.৫ লাখের বেশি হওয়া যাবে না।
৬) আবেদনকারীর গত ২ বছরের এমপ্লয়মেন্ট রেজিস্ট্রেশন সঙ্গে রাখতে হবে।
উল্লেখ্য, নারী পুরুষ উভয়ই আবেদন জানাতে পারবেন।

আবেদন পদ্ধতি-
প্রথমে Employment এ অফিসে গিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করার জন্য আবেদনকারীর মোবাইল নম্বর, আধার কার্ড, রেশন কার্ড প্রয়োজন হবে। এছাড়া DBT-র জন্য নিজস্ব ব্যাংক একাউন্ট থাকতে হবে। পাশাপাশি ভাতার রেজিষ্ট্রেশনের জন্য অন্যান্য নথিপত্র লাগবে।

 স্বাস্থ্য সাথী কার্ড নিয়ে রাজ্য সরকারের নতুন সিদ্ধান্ত, এখন থেকে নতুন সুবিধা পাওয়া যাবে।

১) মাধ্যমিক,উচ্চ মাধ্যমিকের সার্টিফিকেট,
২) ইনকাম সার্টিফিকেট,
৩) বাসিন্দা হিসেবে প্রমাণপত্র,
৪) আবেদনকারীর পাসপোর্ট সাইজ ছবি,
৫) অন্যান্য নথিপত্র (প্রয়োজন হলে)।
এই সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(95) ""