পশ্চিমবঙ্গের খবর

সরকারি কর্মীদের বেশি ছুটি দেওয়া নিয়ে তর্কবিতর্ক শুরু!! বিস্তারিত জেনে নিন।

Adv

মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি এবার পশ্চিমবঙ্গের সরকারি কর্মীদের (WB Government Employees) উৎসবে ছুটি দিয়েছে প্রচুর। প্রতি উৎসবে 1 দিন করে অতিরিক্ত ছুটি দিয়েছে সরকার। এবার এই ছুটি নিয়েও রাজনীতি শুরু হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী এই ছুটি নিয়ে মোদি সরকারকে খোঁচা দিতে ছাড়েনি। তিনি বলেছেন ” দিল্লী ছুটি দেয় না, আমাদের সরকার ঈদ ও ছটে দুই দিন ছুটি দেওয়া হয়। তবে মুখ্যমন্ত্রীর এই মন্তব্যকে কটাক্ষ করেছেন সুকান্ত ভট্টাচার্য ও দিলীপ ঘোষ।

সরকারি কর্মীদের অতিরিক্ত ছুটি দেওয়া নিয়ে খবর।

ছটে সরকারি কর্মীদের ছুটি প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষের মন্তব্য গতকাল দিলীপ ঘোষ পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার খড়গপুর শহরের মন্দির তলা পুকুরে সকালে ছট পুজো পরিদর্শন করতে গিয়ে ঢাকঢোল বাজিয়ে ছট পুজায় মাতেন। সেখানে মুখ্যমন্ত্রীর ছুটি নিয়ে কেন্দ্রকে যে খোঁচা দিয়েছেন সেই প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষকে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করায় তিনি বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী ঈদে তিন দিন ছুটি দেন। মুখ্যমন্ত্রী ছটে (Chatth Puja) দুদিন ছুটি দেন।

Ad

বেতনও দেন না, ডিএ দেন না। আর কেন্দ্র সরকার কাজ করে, ছুটি দেয় না এখানে ছুটি আছে বলে না বেতন, না ডিএ, রসাতলে যাচ্ছে। ছটের ছুটি প্রসঙ্গে সুকান্ত ভট্টাচার্য মন্তব্য মুখ্যমন্ত্রীর (CM Mamata Banerjee) এই ছটের ছুটি মোদি সরকারকে খোঁচা দেওয়া প্রসঙ্গে সুকান্ত ভট্টাচার্য মুখ্যমন্ত্রীকে পাল্টা জবাব দিয়েছেন তিনি বলেছেন, “পশ্চিমবঙ্গে তো খেলা মেলা ছাড়া কিছুই নেই, মমতা ডিভাইড এন্ড রুলে বিশ্বাসী।

সুভাষ সরকারকে ঘিরে বিক্ষোভ ঘিরে দিলীপ কি বলেন? বাঁকুড়ায় নিজের এলাকাতেই ছটের দিন বিক্ষোভের মুখে পরেন কেন্দ্রীয় শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী। 100 দিনের কাজের বকেয়া টাকার দাবিতেই সুভাষ সরকারকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় গ্রামবাসীরা। তবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বললেন এর পেছনে আছে তৃণমূল। এর আগে গত 12 ই সেপ্টেম্বর সুভাষ সরকারকে ঘরে তালাবন্দি করে তুমুল বিক্ষোভ দেখিয়েছিল বিজেপিরাই।

Gold Rate Today (আজকের সোনার রেট)

দুই মাসের মধ্যে আবার বিক্ষোভের মুখে পড়ায় রীতিমত অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে বিজেপিদের মধ্যে। সামনেই লোকসভা নির্বাচন আর তার আগেই এমন ঘটনায় অশান্তিতে বিজেপি। তবে এই প্রসঙ্গে দিলীপকে প্রশ্ন করায় তিনি বলেন, “তৃণমূল আর কিছু করতে পারছে না বিক্ষোভ দেখিয়ে রাস্তায় হেঁটে লোককে খুশি করার চেষ্টা করছে। কেন্দ্রীয় সরকার হাজার হাজার কোটি টাকা পাঠাচ্ছে তার কোনও হিসেব নেই।

Ration Card – সকল রেশন গ্রাহকদের 31 তারিখের মধ্যে এই কাজ করতেই হবে, সরকারের নির্দেশ।

কিন্তু যাতে DA বৃদ্ধি না করতে হয় সেই জন্য সরকারি কর্মীদের ছুটি বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। বাংলার মানুষ বুঝে গেছে এই সরকার যতদিন থাকবে, ততদিন মানুষ কিছু পাবে না, রেশন পর্যন্ত খেয়ে নিয়েছে। আজ খাদ্যমন্ত্রী জেলে, শিক্ষামন্ত্রী জেলে গেছে। তারপরও কি লোককে বোঝাতে হবে কারা চোর। আর এই অতিরিক্ত ছুটি পেয়েও খুশি হননি সরকারি কর্মীরা সেটা ভালো ভাবে বোঝাই যাচ্ছে। আর এই নিয়ে জরুরি বাক যুদ্ধ চলতেই আছে।
Written by Ananya Chakraborty.

Lottery Winning Tricks – রাতারাতি কোটিপতি হতে চান! তাহলে আজই জেনে নিন লটারি জেতার

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(87) ""