স্কলারশিপ

Aikyashree Scholarship – রাজ্যের পড়ুয়াদের জন্য ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ, এক আবেদনেই মিলবে বার্ষিক 33000 টাকা।

Adv

রাজ্যের মেধাবী পড়ুয়াদের জন্য প্রকল্প Aikyashree Scholarship. এখানে অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া শিক্ষার্থীদের যাতে অর্থের অভাবে ভালো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে উচ্চশিক্ষার সুযোগ না হারায় তাই এই প্রকল্প। দেশের সেই সকল সংখ্যালঘু মেধাবী পড়ুয়াদের জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকারের তরফে স্কলারশিপ চালু করা হয়েছিল। বর্তমানে এই স্কলারশিপের সুযোগ-সুবিধা পাওয়ার মাধ্যমে বহু পড়ুয়া, তাদের উচ্চশিক্ষা সম্পন্ন করতে পারছেন। মোট ৩ টি ভাগে ভাগ করা হয়েছে, এই স্কলারশিপটিকে।

Aikyashree Scholarship প্রকল্পে কীভাবে আবেদন করবেন?

প্রতিটি ভাগের ক্ষেত্রে আবেদনকারীর যোগ্যতা, বৃত্তির অঙ্ক সকল কিছু বিস্তারিতভাবে নিচে জানানো হয়েছে। আর দেরি না করে চটপট দেখে নেওয়া যাক।
স্কলারশিপের নাম- ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ (Aikyashree Scholarship).
উল্লেখ্য, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান, জৈন, মুসলিম, পার্সি এবং শিখ সম্প্রদায়ের মেধাবী পড়ুয়াদের জন্য এই স্কলারশিপ প্রদান করা হয়ে থাকে। স্কলারশিপটিকে ৩ টি ভাগে ভাগ করা হয়েছে।

Ad

প্রধানমন্ত্রী স্কলারশিপ আবেদন করলেই মিলবে 36 হাজার টাকা – Pradhan Mantri Scholarship Yojana 2023.

১) প্রি-ম্যাট্রিক স্কলারশিপ,
২) পোস্ট ম্যাট্রিক স্কলারশিপ,
৩) মেরিট কাম মিনস স্কলারশিপ।
প্রি-ম্যাট্রিক স্কলারশিপে আবেদনের যোগ্যতা-
পশ্চিমবঙ্গ সরকার স্বীকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাঠরত প্রথম থেকে নবম শ্রেণীর পড়ুয়ারা আবেদন জানাতে পারবেন। এছাড়া পরিবারের বার্ষিক আয় সর্বোচ্চ ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত হতে হবে।
বৃত্তির অঙ্ক- বার্ষিক ১১০০ টাকা থেকে ১১০০০ হাজার টাকা বৃত্তি প্রদান করা হবে (প্রকৃত খরচ সাপেক্ষে)।

পোস্ট ম্যাট্রিক স্কলারশিপ- পশ্চিমবঙ্গ সরকার স্বীকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাঠরত একাদশ থেকে পিএইচডি কোর্সের (অর্থাৎ উচ্চ মাধ্যমিক, ডিপ্লোমা, আই আই টি, স্নাতক , স্নাতকোত্তর, এম ফিল্ড, বি এড ইত্যাদি কোর্স ইত্যাদি) পড়ুয়াদের এই স্কলারশিপ প্রদান করা হয়ে থাকে। এছাড়া পরিবারের বার্ষিক আয় সর্বোচ্চ ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত হতে হবে।
বৃত্তির অঙ্ক- Aikyashree Scholarship এ বার্ষিক সর্বোচ্চ ১৬,৫০০ টাকা পর্যন্ত বৃত্তি প্রদান করা হবে (প্রকৃত খরচ সাপেক্ষে)।

মেরিট কাম মিনস স্কলারশিপ-
পশ্চিমবঙ্গ সরকার স্বীকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পাঠরত পেশাদারি ও কারিগরি শিক্ষার পড়ুয়ারা আবেদন জানাতে পারবেন। উল্লেখ্য, পশ্চিমবঙ্গের বাইরে থেকে আইআইটি, আইআইএম, এনআইটি, এনআইএফটি, আইআইএফটি ইত্যাদি প্রতিষ্ঠানে পড়াশুনো করলেও আবেদন জানানো যাবে। সেক্ষেত্রে আবেদনকারীর পরিবারের বার্ষিক আয় সর্বোচ্চ ২.৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত হতে হবে।
বৃত্তির অঙ্ক- বার্ষিক সর্বোচ্চ ৩৩,০০০ টাকা পর্যন্ত বৃত্তি প্রদান করা হবে (প্রকৃত খরচ সাপেক্ষে)।

আবেদনের শর্ত-
১) অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
২) আবেদনকারীকে শেষ পরীক্ষায় নূন্যতম ৫০ শতাংশ নম্বর পেতে হবে (প্রথম শ্রেণীর জন্য প্রযোজ্য হবে না)।
৩) একজন আবেদনকারী একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকেই বৃত্তি পাবেন।
৪) আবেদনে রেজিস্ট্রেশনের সময় আবেদনকারীকে একটি বৈধ ও সক্রিয় মোবাইল নম্বর ব্যবহার করতে হবে। উল্লেখ্য, প্রি-ম্যাট্রিক স্কলারশিপের ক্ষেত্রে দুটি মোবাইল নম্বর দেওয়া যাবে।
৫) ব্যাংকের পাসবুকের জেরক্স সহ অ্যাকাউন্ট নম্বর ও IFSC কোড দিতে হবে।
৬) আবেদন করার পর ভবিষ্যতের জন্য আবেদনপত্রের প্রিন্টআউট সংশ্লিষ্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে জমা করতে হবে।

আবেদন পদ্ধতি-
আবেদনের জন্য অফিশিয়াল ওয়েবসাইট ওপেন করতে হবে। যে সকল পড়ুয়ারা প্রথমবার আবেদন জানাবেন, তাদের ‘রেজিস্ট্রেশন’ বাটনে ক্লিক করতে হবে।
ইতিমধ্যেই আগের বছর যে সকল আবেদনকারীরা স্কলারশিপের টাকা পেয়েছেন, তাদের ‘রিন্যুয়াল’ এ ক্লিক করতে হবে। আবেদনের লিংক নিচে দেওয়া হয়েছে।
Apply Now-
https://serv6.wbmdfcscholarship.org/aikya_app/home_app.php

এখনো ন্যাশনাল স্কলারশিপে আবেদন করেননি? এই সুযোগ আর পাবেন না।

আরো বিশদে জানতে হলে নিচে দেওয়া হেল্প লাইন নম্বরে কল করতে পারবেন।
হেল্প লাইন নম্বর-
1800-120-2130
হোয়াটস্যাপ নম্বর-
8017071714
টেকনিক্যাল হেল্পলাইন নম্বর-
6290875550
Aikyashree Scholarship সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(101) ""