প্রকল্প

Lakshmir Bhandar – লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের টাকা সবার একাউন্টে ঢুকছে। আপনি না পেলে কি করবেন?

Adv

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের (Government Of West Bengal) জনপ্রিয় প্রকল্প লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের (Lakshmir Bhandar) কথা আমরা সবাই জানি। এই প্রকল্প এতো জনপ্রিয়তা লাভ করেছে যে দেশের অন্য রাজ্য গুলোও এখন এই প্রকল্পের আদলে প্রকল্প নিয়ে এসেছেন তাদের রাজ্যের মহিলাদের জন্য। সম্প্রতি লোকসভা নির্বাচনের আগে এই লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ভাতার পরিমান বাড়ানো হয়েছে।

West Bengal Lakshmir Bhandar Scheme Money Update.

লোকসভা ভোটের আগে রাজ্য সরকার বাজেট পেশ করেছিল সেই বাজেটেই রাজ্যের অর্থমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টচার্য ঘোষনা করেন 1 লা এপ্রিল থেকে Lakshmir Bhandar এর টাকা বাড়ানো হবে। এপ্রিল মাস থেকেই যারা লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের ভাতা বাবদ 500 টাকা পেতেন তারা পাবেন 1000 টাকা, আর যারা 1000 টাকা পেতেন তারা পাবেন 1200 টাকা।

Ad

এই Lakshmir Bhandar প্রকল্পের নিয়ম অনুযায়ী যারা সরকারি কিম্বা বেসরকারি কোনো সংস্থাতেই কর্মরত নন সেই সব মহিলারাই এই প্রকল্পে আবেদন জানাবেন। সাধারন শ্রেনীর মহিলারা 1000 টাকা ও তপশিলি জাতি ও উপজাতির মহিলারা 1200 টাকা করে পাবেন। লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের টাকা বাড়ানোর ফলে গোটা আর্থিক বছরে রাজ্য সরকারের মোট 20 হাজার কোটি টাকারও বেশি খরচ হবে।

বর্তমানে রাজ্যের 2 কোটির বেশি মহিলা এই Lakshmir Bhandar প্রকল্পের সুবিধা পাচ্ছেন। গত মার্চ মাসে লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের জন্যে রাজ্য সরকারের খরচ হয়েছিল 1 হাজার 187 কোটি টাকা। এপ্রিল মাসে এই খরচ বেড়ে হয়েছে 2 হাজার 228 কোটি টাকা। এর আগেই 2021 সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের প্রতিশ্রুতি দেন মুখ্যমন্ত্রী।

নির্বাচনে জয় লাভ করার পর Lakshmir Bhandar প্রকল্প চালু করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি (WB CM Mamata Banerjee). চালু করার কিছুদিনের মধ্যেই জনপ্রিয় হয়ে ওঠে এই প্রকল্প। চলতি বছরের বাজেটে বরাদ্দ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত ঘোষনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশপাশি সাধারন, SC, ST মহিলাদের যে ভাতার ব্যবধান ছিল তাও অনেকটা কমিয়ে দিয়েছে রাজ্য সরকার। ওয়াকিবহাল মহলের দাবি, 2021 সালের মতই এবছরেও।

লোকসভা নির্বাচনের আগে Lakshmir Bhandar প্রকল্পের সাফল্যকেই তুরুপের তাস করতে চেয়েছেন রাজ্যের শাসক দল। আর তাই রাজ্য বাজেটে লক্ষ্মীর ভাণ্ডার প্রকল্পের ভাতা বাড়ানোর কথা ঘোষনা করে রাজ্য সরকার। আসন্ন নির্বাচনকে সামনে রেখে মহিলা ভোট ব্যাংককে হাতিয়ার বানিয়েছে রাজ্য সরকার। তাই সেই দিক দিয়ে লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের টাকা বাড়ান নিঃসন্দেহে গুরুত্বপুর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

LPG Gas Cylinder (রান্নার গ্যাস সিলিন্ডার)

রাজ্যে এখন নির্বাচনী আচরণবিধি লাগু হয়ে গিয়েছে। 19শে এপ্রিল প্রথম দফার ভোট। আর নির্বাচনী আচরণবিধি চালু করার আগে যেহেতু Lakshmir Bhandar ভাতা বাড়ানোর কথা ঘোষনা করা হয়েছিল। তাই সেই মত 2রা এপ্রিল থেকে যে সব মহিলা এই প্রকল্পের আওতায় আছেন তাদের ইতিমধ্যেই টাকা ঢুকে গিয়েছে। কিন্তু এখনো যারা এই টাকা পাননি, তারা কি করবেন?

তীব্র গরমে এগিয়ে এলো গরমের ছুটি। সমস্ত সরকারি স্কুল বন্ধ। প্রাইভেট স্কুল ও বন্ধের অনুরোধ।

Lakshmir Bhandar বা লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের টাকা যেহেতু সরাসরি ব্যাংকে দেওয়া হয়ে থাকে, সেই কারণের জন্য মহিলাদের ব্যাংক একাউন্টে কোন ধরণের সমস্যা থাকলে, যেমন – KYC, আধার কার্ড লিংক নিয়ে কোন ধরণের সমস্যা হলে এই টাকা ঢুকবে না। এই সম্পর্কে অনেকদিন আগেই জানানো হয়েছে। যত শীঘ্র পারেন এই সমস্যা ঠিক করে নিন। আর আপনারা অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের স্ট্যাটাস চেক করে নিতে পারবেন।
Written by Ananya Chakraborty.

পশ্চিমবঙ্গবাসীর একাউন্টে 40 হাজার টাকা করে ঢুকছে। কারা এই টাকা পাবেন?

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(109) ""