চাকরি

Dearness Allowance – পশ্চিমবঙ্গের বকেয়া মহার্ঘ ভাতা নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ইঙ্গিত পাওয়া গেল।

Adv

রাজ্য সরকারির কর্মীদের দুঃখ লেগেই রয়েছে। তারা মহার্ঘ ভাতার (Dearness Allowance) জন্যে আন্দোলন করে চলেছেন কিন্তু তার কোন ফল তারা পাচ্ছেন না। রাজ্য সরকার তাদের গুরুত্ত্বই দিচ্ছে না। এদিকে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের মহার্ঘ ভাতা বাড়িয়েছে কেন্দ্র সরকার। তাদের DA এখন 46 শতাংশ। আর সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে রাজ্যের কর্মীদের মহার্ঘ ভাতা 6 শতাংশ মানে 40 শতাংশ পার্থক্য আছে।

West Bengal Dearness Allowance.

2024 সালে আবার ও কেন্দ্র তাদের কর্মীদের Dearness Allowance বাড়াবে তখন তাদের মহার্ঘ ভাতা দাঁড়াবে 50 শতাংশে যেটি তাদের বেসিকের সাথে যুক্ত হবে। এর ফলে তাদের বেতন অনেক বৃদ্ধি পাবে। দেশের আরও অনেক রাজ্য তাদের কর্মীদের DA বাড়িয়েছে। এই রাজ্যের সরকরি কর্মীরা (WB Government Employees) যত বঞ্চনার শিকার হচ্ছে ততটা বঞ্চনার শিকার অন্য রাজ্যের সরকরি কর্মীরা হন না।

Ad

তাই সরকারের সাথে আলোচনায় বসার জন্যে আবেদন জানান হয়েছে শিক্ষক সংগঠনের তরফ থেকে। বঙ্গীয় শিক্ষক ও শিক্ষকর্মী সমিতির নেতা স্বপন মন্ডল বলেন, এর আগেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারি কর্মীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন। Dearness Allowance নিয়ে আলোচনা করেছেন। আমরাও চাই মুখ্যমন্ত্রী আমাদের সঙ্গে আলোচনায় বসুন। সেখানে উনি ঠিক করুন করুন কারা বৈঠকে যাবেন আর কর যাবেন না। কেন্দ্রীয় সরকার ফের জানুয়ারি মাসের দিকে ডিএ বাড়াতে পারে।

তাদের Dearness Allowance 50 শতাংশ হয়ে গেলে তা বেসিকের সঙ্গে যুক্ত হবে। ফলে আগামী বছর যখন ডিএ ঘোষণা করবে কেন্দ্র তখন বিপুল হারে বেতন পাবেন কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা। আমরা মাত্র 6 শতাংশ ডিএ পাচ্ছি। ক্রমাগত দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির জন্য যে ডিএ পাচ্ছি তাতে আমরা বিপদে পড়ে গেছি। আমরা চজ্ব মুখ্যমন্ত্রী হস্তক্ষেপ করুন। আমাদের জন্যে DA ঘোষনা করুন।

সরকারি কর্মীদের যে Dearness Allowance প্রয়োজন তা স্বীকার করেছেন সরকারি কর্মী ফ্রেডারেশন। ওই সংগঠনের নেতা প্রতাপ নায়েক বলেন, ডিএর প্রয়োজনিয়তা রয়েছে সরকারি কর্মী বা শিক্ষকদের। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্য়ায় ডিএ দেবেনও। তিনি কোনওদিন বলেননি যে DA দেবেন না। তবে কেন্দ্রীয় সরকারের বঞ্চনার বিষয়টাও মাথায় রাখতে হবে। তিনি আরও বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী এর আগেও সরকারি কর্মীদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন।

Banking Service (ব্যাংকিং পরিষেবা)

তাদের কথা শুনেছেন। ভবিষ্যতেও শুনবেন। আমাদের সঙ্গেও তার বৈঠক হবে। সেদিন এখনও স্থির হয়নি। তবে আমরাও মুখ্যমন্ত্রীর কাছে সরকারি কর্মীদের বিষয় গুলো তুলে ধরব। এই সরকার এমনিতেই কর্মীদের উপর দরদী। আমরা আশাবাদী ডিএ নিয়েও ঘোষণা হবে। তবে কেন্দ্রীয় বঞ্চনাটাও মাথায় রাখতে হবে সরকারি কর্মীদের। সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ এর তরফ থেকে Dearness Allowance এর দাবিতে একাধিক কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে।

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার নিয়ে নতুন সিদ্ধান্ত, 1লা জানুয়ারির আগে জানুন।

নবান্ন (Nabanna) ঘেরাও কর হবে বলে ঘোষনা করা হয়েছে তাদের পক্ষ থেকে। তবে যৌথ মঞ্চ কে গুরুত্ব দিতে নারাজ প্রতাপ নায়েক। তিনি তাদের বলেন, সংগ্রামী যৌথ মঞ্চের আন্দোলনের ঝাঁঝ আর নেই। তাদের উচিত কেন্দ্রের কাছে গিয়ে দরবার করা এবং সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ যত বেশি আন্দোলন করবে, সরকারি কর্মীরা তত বেশি আন্দোলন করবে, সরকারি কর্মীরা (Dearness Allowance) তত বেশি তাদের বিরুদ্ধে যাবে। এটা তাদের বোঝা উচিৎ।
Written by Ananya Chakraborty.

রোজগার মেলায় আরও 51000 জনকে সরকারী চাকরি দেবে। পশ্চিমবঙ্গের প্রার্থীরা

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(97) ""