প্রকল্প

আর 500 টাকা নয়, লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে দেওয়া হবে 2000 টাকা!! কারা পাবেন?

Adv

২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গে জনসাধারণকে আর্থিক সাহায্য প্রদানের উদ্দেশ্যে চালু করা হয়েছিল লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্প। বিশেষত এই প্রকল্পে রাজ্যের মহিলারাই আবেদন জানাতে পারেন। বর্তমানে এই প্রকল্পে আবেদনকারীর সংখ্যা লক্ষ লক্ষ মহিলা। লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে জেনারেল এবং ওবিসি ক্যাটাগরীর আবেদনকারীরা পেয়ে থাকেন মাসিক ৫০০ টাকা কাপড়ে। কিন্তু শীঘ্রই তার বদলে পাবেন ৪গুন টাকা। অর্থাৎ মাসে ৫০০ টাকার বদলে পাবেন ২০০০ টাকা করে। কবে থেকে এই সুবিধা পাওয়া যাবে? কারা এই সুবিধা পাবেন না? বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া যাক।

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে কারা পাবেন ২০০০ টাকা করে?

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে আবেদনের ক্ষেত্রে থাকে নির্দিষ্ট কিছু শর্তাবলী, যেগুলি না মানলে আবেদন জানাতে পারেন না আবেদনকারীরা। আবেদনের শর্তাবলী মেনে আবেদনের মাধ্যমে পাওয়া যায় মাসিক ৫০০ টাকা (জেনারেল এবং ওবিসি ক্যাটাগরীর মহিলারা) এবং ১,০০০ টাকা (sc/st ক্যাটাগরীর মহিলারা)। কিন্তু আর ৫০০ নয়, এই প্রকল্পের মাধ্যমে ২,০০০ টাকা করে দেওয়া হবে, আশ্বাস দেন কংগ্রেস নেতা।

Ad

সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, রবিবার পূর্ব মেদিনীপুরের হলদিয়ায় দলীয় অনুষ্ঠানে এই মন্তব্য করেন কংগ্রেস নেতা নেপাল মাহাত। তিনি বলেন, রাজ্যে কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের টাকা চার গুণ বাড়িয়ে দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই কর্নাটকে ভোটে কংগ্রেস জয়লাভ করেছে। কর্নাটকে বিধানসভা ভোটের আগেই কংগ্রেসের পক্ষ থেকে মোট পাঁচ প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। জানানো হয়েছিল রাজ্যে দল সরকার গঠন করলে প্রতিশ্রুতি পূরণ করা হবে।

পিএম কিষান সম্মান নিধি যোজনায় এই কাজ না করলে কৃষকেরা পাবেন না 4000 টাকা, বিস্তারিত জানুন, বদলেছে নিয়ম।

পাঁচটি প্রতিশ্রুতি হল
১) ‘গৃহলক্ষ্মী’ যোজনায় প্রত্যেক মহিলাকে মাসে ২,০০০ টাকা ভাতা দেওয়া হবে।
২) প্রত্যেক পরিবারকে ‘গৃহজ্যোতি’ যোজনায় বিনামূল্যে ২০০ ইউনিট বিদ্যু‍ৎ সরবরাহ করা হবে।
৩) ‘অন্নভাগ্য’ যোজনায় দারিদ্র্য সীমার নিচে থাকা পরিবারকে প্রতি মাসে ১০ কিলোগ্রাম খাদ্যশস্য দেওয়া হবে।
৪) মহিলাদের বিনামূল্যে বাসে চড়ার সুযোগের পাশাপাশি বেকার যুবক-যুবতীদের মাসে তিন হাজার টাকা করে ভাতা দেওয়া হবে।
৫) ডিপ্লোমাধারীদের মাসে দেড় হাজার টাকা ভাতা দেওয়া হবে।

কর্নাটকে সিদ্দারামাইয়ের নেতৃত্বাধীনে নয়া মন্ত্রিসভার প্রথম বৈঠকেই ভোটের আগে দেওয়া কংগ্রেসের 5 টি নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পূরণের জন্য ছাড়পত্র দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে প্রথমেই পশ্চিমবঙ্গের ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার’ এর মতো ‘গৃহলক্ষ্মী যোজনা’ চালু করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া জানান, বাকি ৪ টি প্রতিশ্রুতিও আগামী মন্ত্রিসভার বৈঠকের পরে কার্যকর হবে। তবে এ রাজ্যেও কংগ্রেস নেতার লক্ষ্মীর ভাণ্ডার নিয়ে ৪ গুন টাকার প্রতিশ্রুতি অনেক জল্পনা বাড়াচ্ছে।

লক্ষ্মীর ভাণ্ডার সহ বাকি সকল প্রকল্পের টাকা জুন মাসে কবে পাবেন? তারিখ জানিয়ে দিলো নবান্ন।

উল্লেখ্য, বর্তমানে লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পে আবেদনকারীরা আবেদন জানালেও একাউন্টে ঢুকছে না টাকা। তার সবথেকে বড় কারণ হল ব্যাংক একাউন্টের সঙ্গে আধার লিংক না করা। এছাড়া আরো কয়েকটি কারণ হল আবেদনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় তথ্য বা সার্টিফিকেট জমা না দেওয়া। অনেক ক্ষেত্রে দেখা গেছে প্রকল্পে আবেদনের যোগ্য না হয়েও আবেদন করেভ্যোন অনেকে। সেক্ষেত্রেও পাওয়া যাবে না টাকা।
এই সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(100) ""