অর্থনীতি

LIC Bima Ratna policy তে সামান্য টাকা বিনিয়োগেই মিলবে দ্বিগুন রিটার্ন সহ 11 টি দারুন সুবিধা।

Adv

LIC Bima Ratna Policy আছে? দেশে বহু বেসরকারি বিমা সংস্থা রয়েছে। কিন্তু বিনিয়োগের ক্ষেত্রে এখনও মানুষ এই রাষ্ট্রয়ত্ব বিমা সংস্থা (LIC) এর উপর ভরসা করেন। প্রতি বারই গ্রাহকদের সুবিধার্থে লাইফ ইনস্যুরেন্স কর্পোরেশন দুর্দান্ত পলিসি চালু করে থাকে। সেগুলিতে টাকা সঞ্চয়ের মাধ্যমে পাওয়া যায় দারুন সকল সুবিধা। বর্তমানে LIC আরো একটি পলিসির মাধ্যমে তিনটি বড়োসড় সুবিধা প্রদান করছে, পলিসির নাম অনেকেই শুনে থাকবেন। কিন্তু সেই পলিসির সুবিধা সম্পর্কে অনেকেই জানেন না। এই পলিসিতে বিনিয়োগের দ্বিগুন রিটার্ন মিলবে। আর কোন কোন সুবিধা পাওয়া যাবে?

LIC Bima Ratna পলিসির 11 টি বড় সুবিধা জেনে নিন।

LIC এর এই দুর্দান্ত পলিসির নাম LIC Bima Ratna পলিসি। পলিসির সুবিধা-
১) এই পলিসিটি একটি নন-লিঙ্কড, ব্যক্তিগত, সেভিংস জীবন বিমা পরিকল্পনা।
২) বিনিয়োগের পাশাপাশি বোনাসও পাওয়া যাবে।
৩) মেয়াদপূর্তির আগেই টাকা ফেরত পাবেন
৪) ডেথ বেনিফিট পাওয়া যাবে। অর্থাৎ বিমার মেয়াদ থাকাকালীন পলিসি হোল্ডারের মৃত্যু হলে তার পরিবারও আর্থিক সহায়তা পাবেন।
৫) মাসিক, ত্রৈমাসিক, অর্ধ বাষির্কী বা বার্ষিক কিস্তিতে প্রিমিয়াম দেওয়া যায়।

Ad

SBI Annuity Deposit Scheme এ নূন্যতম বিনিয়োগে পাবেন মাসিক 10000 টাকা করে।

অন্যান্য সুবিধা-
১) LIC Bima Ratna (এল আই সি বিমা রত্ন) পরিকল্পনায় বিনিয়োগের ন্যূনতম বয়স ৯০ দিন। এই পলিসির সর্বোচ্চ বয়স রাখা হয়েছে ৫৫ বছর। এই স্কিমে, ন্যূনতম ৫ লাখ টাকা রিটার্ন মিলবে। সর্বোচ্চ রিটার্ন অঙ্কের পরিসীমা নেই।
২) পলিসি ল্যাপস হয়ে গেলে, মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার আগেই আবার চালু করা যায়। সেক্ষেত্রে প্রথম প্রিমিয়াম জমা দেওয়ার ৫ বছরের মধ্যে ল্যাপস বা বন্ধ হয়ে যাওয়া পলিসি চালু করা যায়।

৩) বিনিয়োগকারী ২ বছর ধরে প্রিমিয়াম দিলে পলিসি বা বিমার সাপেক্ষে ঋণের সুবিধা পেতে পারেন।
৪) LIC Bima Ratna Policy র ১৫ বছর, ২০ বছর বা ২৫ বছর। ১৫ বছরের মেয়াদে বিনিয়োগ করলে ১৩ তম এবং ১৪ তম বছরে প্রায় ২০ থেকে ২৫% টাকা ফেরত পাবেন। একইভাবে ২০ বছরের মেয়াদের হিসেবে ১৮ এবং ১৯ তম বছরে এবং ২৫ বছরের মেয়াদের হিসেবে ২৩ তম এবং ২৪ তম বছরে টাকা ফেরত পাওয়া যাবে।

৫) বিনিয়োগের মেয়াদে প্রতি ৫ বছরের প্রিমিয়ামে, প্রতি হাজার টাকায় ৫০ টাকা বোনাস পাওয়া যাবে। তারপর ৬ থেকে ১০ বছরের জন্য বিনিয়োগে ৫৫ টাকা একটি বোনাস এবং পরবর্তী সময়কাল থেকে মেয়াদপূর্তিতে ৬০ টাকা বোনাস পাওয়া যাবে।
৬) LIC Bima Ratna পলিসিতে বিনিয়োগের নূন্যতম বয়স ৫ বছর হতে হবে। সেক্ষেত্রে বিনিয়োগের মেয়াদ ১৫ বছর হবে। সর্বাধিক ৫৫ বছর বয়স পর্যন্ত বিনিয়োগ করা যেতে পারে। সেক্ষেত্রে বিমার মেয়াদ ২৫ বছর হবে। বিমার ম্যাচুরিটির সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৭০ বছর।

এপ্রিলে বাজারে এলো LIC এর নতুন পলিসি, হাত খরচের টাকা জমিয়ে পান 5 লাখ টাকা।

উল্লেখ্য পলিসি হোল্ডার যদি ২ বছরের কম মেয়াদে প্রিমিয়াম জমা দিয়ে থাকেন। সেই পলিসিকে বাতিল বলে ধরা হবে। আরো বিশদে জানতে হলে নিকটবর্তী LIC এর শাখায় গিয়ে সংশ্লিষ্ট আধিকারিকের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন। অথবা অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে চেক করতে পারেন।
বিনিয়োগ সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(98) ""