ট্রেন্ডিং

House Rent – বাড়ি ভাড়া দেওয়ার নিয়ম বদল করলো রাজ্য সরকার। 1লা জানুয়ারি থেকে কার্যকর!!

Adv

House Rent বা বাড়ি ভাড়া নিয়ে নতুন বছরের শেষ দিনে এক গুরুত্বপূর্ণ খবর জেনে নেওয়া উচিত সকলের। কারণ আমাদের মধ্যে অনেকেই নিজেদের বাড়ি ছাড়া কাজের জন্য বা সব সময়ের জন্যই ভাড়া বাড়িতে থাকি। আর এই কারণের জন্য সকলের এই সম্পর্কে জেনে নেওয়া উচিত। বাড়ির মালিকদের জন্যে সুখবর। বাড়ি ভাড়ার নিয়মে (House Rent) বদল ঘটল। আমাদের দেশের প্রচুর মফসল এলাকার মানুষ সেই জায়গা ছেড়ে কাজের সূত্রে বিভিন্ন শহরে থাকছে থাকছে বাড়ি ভাড়া নিয়ে।

House Rent Rule Change.

যারা বাড়ি ভাড়া দেয় আর যারা ভাড়া (House Rent) নেয় তাদের দুজন কেই সরকারের দেওয়া কিছু নিয়ম মেনে চলতে হয়। আর এবার সেই সব নিয়মেরই পরিবর্তন আনা হল। কলকাতা শহরের গুরুত্বপূর্ণ জায়গা সল্টলেক কিংবা বিধাননগর। এই জায়গায় বহু আইটি অফিস সহ অনেক কোম্পানি ও গড়ে উঠেছে। আর সরকরি অনেক অফিস ও আছে সেখানে।

Ad

আর সেখানে বিভিন্ন জায়গার ও জেলার মানুষ কাজ করতে আসে। তার জন্য এখানে অনেক বাড়ি ভাড়া (House Rent) দেওয়া হয়। তবে এবার থেকে এই এলাকার বাড়ি ভাড়া সংক্রান্ত নিয়মে বড় সিদ্ধান্ত নিল সরকার। বর্তমানে নন রেসিডেন্সিয়াল বাড়ি গুলি ভাড়া দেবার নিয়মে আগের তুলনায় বেশ কিছুটা শিথিল করা হল। দেখে নিন কি কি নিয়ম শিথিল করেছে সরকার।

বাড়ি ভাড়া দেওয়ার নতুন নিয়ম

সাধারণত সল্টলেক কিংবা বিধাননগর এলাকাতে বাড়ি ভাড়া নিতে গেলে পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের অনুমতি নিতে হত। এর ফলে অনেক দিন অপেক্ষা করতে হত অনুমতি পাওয়ার জন্য। যার জন্যে বাড়ি ভাড়া (House Rent) দেবার বিষয়ে অসুবিধায় পড়তে হত সাধারন মানুষদের। এই বিষয় প্রশাসনের নজরে আসতেই নতুন নিয়ম চালু করল সরকার।

নতুন নিয়ম অনুযায়ী, আবেদনকারীকে আবেদন করার পরই দেওয়া হবে একটি প্রাথমিক অনুমতি বা শর্তসাপেক্ষ অনুমতি। এই অনুমতি পত্রের মেয়াদ থাকবে 90 দিন। এই সময়ের মধ্যে যিনি আবেদন করবেন তাকে অনুমতি নিতে হবে। সাথে অবশ্যই দেখাতে হবে জরুরী উপযুক্ত কাগজ, তাহলেই অনুমতি নেওয়া সম্ভব হবে। আর যাকে বাড়ি ভাড়া (House Rent) দেওয়া হবে তার CIN , চুক্তিপত্র, পরিচয় পত্র এবং 15 হাজার টাকা জমা দিতে হবে।

JIO Recharge Offer (জিও রিচার্জ প্ল্যান)

যদি সব নথি ঠিক থাকে তাহলে প্রভিশনার পারমিশন বা শর্ত সাপেক্ষে অনুমতি পাওয়া যাবে। কিন্তু মনে রাখতে হবে কেবল মাত্র তিন মাস বা 90 দিন বৈধ থাকবে এই অনুমতি। এরই মধ্যে স্থায়ী অনুমতির জন্য যাবতীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। বাড়ি ভাড়া (House Rent) দেবার অনেক নিয়ম আছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল বাড়ি ভাড়া নিতে গেলে কেন বাড়ি ভাড়া নেওয়া হচ্ছে তা স্পষ্টভাবে উল্লেখ করতে হবে চুক্তিপত্রে।

রান্নার গ্যাস নিয়ে বর্ষশেষে গুরুত্বপূর্ণ খবর। গরীব ও মধ্যবিত্তর জন্য এই সিদ্ধান্ত।

যে কাজের কথা উল্লেখ থাকবে তার বাইরে অন্য কোনও কাজ করা যাবে না। আবার যদি ভাড়া (House Rent) নেওয়া বাড়িতে তথ্য প্রযুক্তির কাজ করা হয় তার জন্য কিন্তু এই অনুমতি নিতে হবে তথ্য প্রযুক্তি দফতরের থেকে। আবেদনকারী যদি অস্থায়ী অনুমতি পাওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে যাবতীয় শর্তের খুঁটিনাটি পালন করতে পারে তাহলেই পাবে স্থায়ী অনুমতি পত্র। আর যদি 90 দিনের মধ্যে স্থায়ী অনুমতি না পাওয়া যায় তাহলে 30 দিনের মধ্যে বাড়ি খালি করতে হবে।
Written by Ananya Chakraborty.

প্রধানমন্ত্রীর ‘স্বর্ণিমা প্রকল্পে’ 2 লক্ষ টাকা দিচ্ছে। কিভাবে এই টাকা পাবেন জেনে

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(89) ""