ট্রেন্ডিং

শিক্ষক নিয়োগে আনা হলো দুই বড়ো পরিবর্তন। চাকরি পাওয়া এখন আরো কঠিন

Adv

ইতিপূর্বে যেসমস্ত চাকরিপ্রার্থীরা টেট পরীক্ষা দিয়েছিলেন তাদের নিয়োগের প্রক্রিয়া কার্যকরী করা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের তরফে। ফলত কারা এই নিয়োগ প্রক্রিয়ায় আবেদন করতে পারবেন তা সম্পর্কেও যোগ্যতা নির্ধারণ করা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের পক্ষ থেকে। আর তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে পশ্চিমবঙ্গের অন্যান্য চাকরিপ্রার্থীরা। যার ফলে কারা নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করতে পারবে তা নিয়ে চাকরিপ্রার্থীদের যোগ্যতায় দুটি বিরাট পরিবর্তন আনা হয়েছে। যার ফলে আগামী দিনে বহু সংখ্যক চাকরিপ্রার্থী নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন বলেই মনে করা হচ্ছে।

পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের তরফে ইন্টারভিউয়ের জন্য নির্দেশিকা জারি করা হলে সেই নির্দেশিকা নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়ে ছিল চাকরিপ্রার্থীরা। আর চাকরিপ্রার্থীদের সুবিধার কথা মাথায় রেখে আদালতের তরফে দুটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে পর্ষদের তরফে আদালতের এই দুটি সিদ্ধান্তকে মান্যতা দেওয়া হয়েছে। আদালতে তরফে জারি করা এই দুটি সিদ্ধান্তের মধ্যে প্রথমটিতে বলা হয়েছে, যে সমস্ত চাকরিপ্রার্থীরা CTET এ উত্তীর্ণ হয়েছেন তারাও নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন। ইতিপূর্বে যখন টেট পরীক্ষা শুরু হয় তখনই বিভিন্ন সূত্র জানা গিয়েছিলো যে, সকল চাকরিপ্রার্থীরা সেন্ট্রাল টেটে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারাও এই নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

Ad

তবে পর্ষদের তরফে নিয়োগ সংক্রান্ত নির্দেশিকা প্রকাশ করা হলে দেখা গিয়েছিল যে সি-টেট উত্তীর্ণদের কথা তাতে উল্লেখ করা হয়নি। আর তাতেই সেন্ট্রাল টেটে উত্তীর্ণ হওয়া চাকরিপ্রার্থীরা আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন এবং আদালতে নির্দেশ অনুসারেই পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছে যে, যেসমস্ত চাকরিপ্রার্থীরা সি-টেটে উত্তীর্ণ হয়েছেন তারাও নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণের সুযোগ পাবেন।

আবেদন করুন রিলায়েন্স স্কলারশিপে এবং প্রতি বছর পান ৫০ হাজার টাকা

অন্যদিকে, যেসমস্ত চাকরিপ্রার্থীদের বয়স ৪০ পেরিয়েছে তারাও ইন্টারভিউ অংশগ্রহণের জন্য দাবি জানিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। তবে আদালতের তরফে তাদের দাবিকে আংশিকভাবে মান্যতা দেওয়া হয়েছে। আদালতে জারি করা নির্দেশে বলা হয়েছে যে, ২০১৭ সালে যেসমস্ত চাকরিপ্রার্থীরা টেট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন তাদের বয়স ৪০ উত্তীর্ণ হলেও তারা নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন। তবে ২০১৪ সালে টেট পাশ করা চাকরিপ্রার্থীদের মধ্যে যাদের বয়স ৪০ বেড়িয়েছে তারা কোনোভাবেই নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন না।

৪০ উত্তীর্ণ চাকরিপ্রার্থীদের নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ নিয়ে বিতর্ক শুরু হলেও আদালতের এই সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত চাকরিপ্রার্থীরা। তবে আদালতের এই সিদ্ধান্তের ফলে আগামী দিনে রাজ্যে বিভিন্ন প্রাইমারি স্কুলগুলিতে শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে প্রতিযোগিতা আরও বাড়তে চলেছে বলে মনে করা হচ্ছে ওয়াকিবহাল মহলের কর্তা ব্যক্তিদের মতে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(90) ""