চাকরি

Pension Scheme – পেনশন ভোগীেদের ইনকাম ট্যাক্স নিয়ে নতুন নিয়ম, কাদের লাভ হলো, কাদের ক্ষতি?

Adv

চাকরি থেকে অবসরের পর পেনশনই (Pension Scheme) হল আর্থিক সঙ্গী। অবসরের পর শরীর আবারও কাজ করতে সায় নাও দিতে পারে। প্রতি মাসে সংসারের খরচ থেকে শুরু করে প্রয়োজনীয় চাহিদা মেটায় এই পেনশনের টাকা। কিংবা যে কোনো সমস্যায় পড়লে এই টাকাই খরচ করা যায়। আমরা সকলেই জানি, চাকরিকালীন সময় বার্ষিক বেতনের পরিমানের উপর ভিত্তি করে দিতে হয় আয়কর বা ট্যাক্স। কিন্তু পেনশন পাওয়ার সময়ও কী দিতে হবে ট্যাক্স? কাদের জন্য প্রযোজ্য এই ট্যাক্স সিস্টেম?

Pension Scheme এ ট্যাক্স এ কত ছাড়?

অনেকেই জানেন না Pension Scheme আয়কর আইন ১৯৬১-এর অধীন করযোগ্য। তবে সকলের জন্য মোটেই নয়। প্রসঙ্গত, Pension Scheme হল একপ্রকার মাসিক আয়, যেটি চাকরিজীবীরা কর্মস্থল থেকে অবসর নেওয়ার পর পেয়ে থাকে। এই পেনশন ২ ভাবে প্রদান করা হয়ে থাকে। ব্যক্তি নিজের পছন্দ অনুসারে পেনশন মোড বেছে নিতে পারেন। একটি কমিউটেড পেনশন। এর মানে হল একবারেই পুরো টাকা পেনশনের মাধ্যমে প্রদান করা হয়।

Ad

অন্যটি আনকমিউটেড পেনশন, এর মাধ্যমে ব্যক্তি প্রতি মাসে পেনশন পেয়ে থাকেন।
Pension Scheme মাধ্যমে কিভাবে কর দিতে হয়?
আয়কর আইন, ১৯৬১ অনুসারে আনকমিউটেড পেনশনকে বেতন হিসাবে ধরা হয়, তাই এটি করযোগ্য। আয়কর প্রদানের আগে ট্যাক্স ফর্মের বিষয়ে জানাটা জরুরি।

 এই মুহুর্তে ব্যাংক না পোষ্ট অফিস, কোথায় টাকা রাখা বেশি লাভ ও নিরাপদ, এই হিসেব দেখে সিদ্ধান্ত নিন।

বেতনভোগীদের জন্য ৪ ধরনের আয়কর ফর্ম রয়েছে। যেখানে ITR- 1 এবং ITR- 2 পেনশনভোগীদের জন্য। অর্থাৎ পেনশনকেও বেতন হিসেবে ধরা হয়, তাই আয়কর দিতে হয়। এর মধ্যে ITR- 1 কাদের জন্য প্রযোজ্য? বেতন/ বাড়ির সম্পত্তি/ পেনশন/ অন্যান্য উৎস থেকে ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত আয় করেন। ITR- 2 ফর্ম ফিলাপ করতে হবে, যাদের বেতন/ বাড়ির সম্পত্তি/ পেনশন/ অন্যান্য উৎস/ বিদেশি আয়/ সম্পদ/ কৃষিকাজ থেকে ৫ হাজার টাকার উপর আয় রয়েছে।

করছাড়ের সুবিধাও প্রযোজ্য, কিভাবে?
ধারা ৮৯(১)-এর অধীন ব্যাংকের মাধ্যমে প্রতি মাসে পেনশন দেওয়া হয়, সেই সকল পেনশনভোগীদের কিছু ছাড় দেওয়া হয়। পাশাপাশি TDS কাটার সময় ধারা ৮৮ এবং ৮৮ বি -এর অধীন ব্যাংকের তরফে ট্যাক্স রিবেট দেওয়া হয়।

তবে আরো একটি সুবিধা পাবেন পেনশনভোগীরা, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ ২০২১ সালের কেন্দ্রীয় বাজেটে ঘোষণা করেছিলেন, পেনশনভোগীদের মধ্যে ৭৫ বছরের বেশি বয়স হলে আয়কর রিটার্ন দাখিল করতে হবে না। এক্ষেত্রে তাদের একমাত্র আয় পেনশন হতে হবে। দেশে বর্তমানে এমন মানুষের সংখ্যা নেহাতই কম নয়, যাদের অবসরের পর একমাত্র ভরসা হল পেনশন।

কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত ঘোষণা করলো রাজ্য সরকার, কতো টাকা বেশি পাবেন দেখুন।

বাজেটের ঘোষণা অনুযায়ী, তাদের আয়কর দাখিল করতে হবে না। যদিও আয়কর নিয়ম অনুসারে, ৭৫ বছরের বেশি বয়সী প্রবীণ নাগরিকদের করছাড় দেওয়া হচ্ছে না।
এই সংক্রান্ত খবরের নতুন আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েবপোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(108) ""