শিক্ষা

Mid Day Meal – রাজ্যের স্কুলে মিড ডে মিলের সমীক্ষা শুরু। কবে আসবে? কি কি নথি দরকার হবে?

Adv

পশ্চিমবঙ্গের প্রতিটি সরকারি স্কুল গুলোতে পাঠানো হয়েছে নির্দেশিকা (Mid Day Meal). এই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি স্কুল গুলোতে মিড ডে মিলের উপরে সমীক্ষা চালানো হবে। এই সমীক্ষার উপরে ভিত্তি করে প্রতিটি স্কুল কে দেওয়া হবে মার্কস। রাজ্যের সরকারি স্কুল গুলোতে মিড ডে মিল চালু করা হয় 2013 সালে।

Mid Day Meal Survey Start In West Bengal.

রাজ্যের অধীনে যে সব সরকারি প্রাথমিক, মাধ্যমিক স্কুল আছে সে সব স্কুল গুলোতে এই মিড ডে মিলের মাধ্যমে দুপুরের খাবার দেওয়া পড়ুয়াদের। আগে এই Mid Day Meal অষ্ঠম শ্রেণী পর্যন্ত খাবার দেওয়া হত। তবে এবার থেকে দশম শ্রেণী পর্যন্ত মিড ডে মিল দেওয়া হয়। মিড ডে মিল প্রকল্প রূপায়ণে রাজ্য সরকার কতটা সার্থক হয়েছে সেই বিষয়েই সমীক্ষা চালাতে চলেছে রাজ্য সরকার। কি কি বিষয়ে সমীক্ষা চালান হবে? সমীক্ষার দ্বায়িত্বে কারা থাকবেন? এই সব বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

কি কি বিষয় নিয়ে সমীক্ষা করা হবে?

সব পড়ুয়ারা Mid Day Meal ঠিক মত পাচ্ছে কিনা। আর পেলেও তা পুষ্ঠিযুক্ত কিনা। সেই সব খাবারের উপরে ভিত্তি করেই মার্কস দেওয়া হবে। স্কুল শিক্ষা কেন্দ্র ও মাধ্যমিক শিক্ষা কেন্দ্র গুলিতে মিড ডে মিল রাঙ্কিং এর আওতায় আনা হয়েছে। জানা গিয়েছে গত 15ই এপ্রিল থেকে এই সমীক্ষা শুরু হয়ে গিয়েছে এবং এই সমীক্ষা টানা একমাস চলবে।

কিভাবে সমীক্ষা চালানো হবে?

এক মাস ধরে রাজ্য গুলোর প্রতিটি স্কুলে চলবে পরিদর্শন। এবং মোট 30 টি বিষয়ে নজর রাখা হবে। সেখান থেকে সংগ্রহ করা হবে তথ্য। এই সমীক্ষায় জানতে চাওয়া হবে স্কুল এর মোট পড়ুয়ার সংখ্যা কত? তারা সবাই ঠিক মত Mid Day Meal পাচ্ছে কিনা? ঠিক মত পুষ্ঠিসম্মত খাবার পাচ্ছে কিনা? চালের গুণগত মান কিরকম? সঠিক পদ্ধতিতে রান্না করা হয় কিনা?

এই সব বিচার করে দেখা হবে। এছাড়া Mid Day Meal কুক ও হেল্পারদের নিয়মিত মাসিক ভাতা দেওয়া হচ্ছে কিনা এবং স্কুলে ডাইনিং হল এর ব্যবস্থা আছে কিনা সেই বিষয় গুলোর উপরেও নজর রাখা হবে। আর এই সকল কিছু বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষিকাদের থেকে জানতে চাওয়া হবে। আর এই Mid Day Meal সম্পর্কে সকল নথি আগেভাগে তৈরি করে রাখা উচিত।

Primary TET (প্রাথমিক টেট)

সমীক্ষার দায়িত্ব কাদের উপরে দেওয়া হবে?

এই Mid Day Meal সমীক্ষার দ্বায়িত্ব দেওয়া হবে স্বাস্থ্য বিভাগের ভার প্রাপ্ত আধিকারিকদের উপরে। তারা এই সমীক্ষার দ্বায়িত্বে তথ্য সংগ্রহ করে থাকবেন। অনেক ক্ষেত্রেই পাশের স্কুলের শিক্ষক শিক্ষাবন্ধু কিংবা এডুকেশন সুপারভাইজার হিসেবে পার্শ্ববর্তী কোন স্কুলের প্রধান শিক্ষককেও এই দায়িত্বের ভার দেওয়া হতে পারে। এই সমীক্ষা চলাকালীন রাজ্যের স্কুলের প্রতিটি পড়ুয়াদের ভালো মন্দ খাবারের।

বছরে 10টি করে রান্নার গ্যাস বিনামূল্যে দেবে তৃণমূল সরকার। কারা এই সুবিধা পাবেন?

যেমন – মাছ , মাংস, ডিম এর ব্যবস্থা করা হচ্ছে কিনা সেই বিষয়ের উপরে জোর দেওয়া হবে। এই সমীক্ষা চলাকালীন পড়ুয়ারা Mid Day Meal এ ভালো খাবার পেয়ে যাবে। আর এই সকল কিছুর মধ্যে কোন খামতি থাকলে সেই নিয়ে কি পদক্ষেপ নেওয়া হবে সেই সম্পর্কে এখনো কিছু জানানো হয়নি। তাহলে এর মাধ্যমে রাজ্যে মিড ডে মিল ব্যবস্থাকে আরও উন্নত করাই লক্ষ্য।
Written by Ananya Chakraborty.

হটাৎ টাকার দরকার হলে, কেন্দ্রের এই প্রকল্পে আবেদন করুন। রিজার্ভ ব্যাংকের নিয়ম মানলেই একাউন্টে টাকা ঢুকবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(109) ""