ব্যাবসা

আজই শুরু করুন সাইবার কাফের ব্যবসা এবং প্রতি মাসে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত আয় করুন

Adv

বর্তমানে সমস্ত কাজই ডিজিটাল মাধ্যমের মারফত করা হয়ে থাকে, তা সে আধার সংশোধন হোক কিংবা ভোটার কার্ডের জন্য আবেদন অথবা টাকার লেনদেন কিংবা কোনো প্রয়োজনীয় বিষয়ের ফর্ম ফিলাপ। সকলের হাতে স্মার্ট ফোন থাকলেও সব জায়গায় ইন্টারনেট স্পিড একই নয় আবার অনেক ক্ষেত্রে সমস্ত কাজ স্মার্টফোনের মাধ্যমে করা যায় না তার জন্য কম্পিউটার কিংবা ল্যাপটপের প্রয়োজন হয়। স্মার্টফোন সকলের থাকলেও ল্যাপটপ বা কম্পিউটার হাতেগোনা কিছু মানুষেরই রয়েছে। এমনকী অনেক মানুষই স্মার্টফোনের মাধ্যমে সমস্ত কাজ সঠিকভাবে করতে পারেন না। আর এই সমস্ত মানুষের সমস্যা সমাধানের একমাত্র উপায় হলো সাইবার ক্যাফে কিংবা ইন্টারনেট ক্যাফে।

মানুষের এই প্রয়োজনকে কাজে লাগিয়েই আপনিও নিজস্ব সাইবার ক্যাফের ব্যবসা শুরু করতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার কম্পিউটার বিষয়ক দক্ষতা থাকতে হবে। কিন্তু ব্যবসা শুরু করব বললেই তো হলোনা, ব্যবসা শুরু করার ক্ষেত্রে জানতে হবে এই ব্যবসায় কতো টাকা বিনিয়োগ প্রয়োজন, কি কি উপকরণ প্রয়োজন, সম্ভাব্য আয় কত হতে পারে, টার্গেট গ্রাহক কারা এসকল তথ্যগুলি। আর আজ আমরা আপনাদের জন্য এই সমস্ত প্রশ্নগুলির উত্তর নিয়ে হাজির হয়েছি।

Ad

সাইবার ক্যাফে করার ক্ষেত্রে কেমন জায়গা প্রয়োজন?
সাইবার ক্যাফে করার জন্য সবথেকে প্রয়োজনীয় বিষয়টি হলো আপনি সাইবার ক্যাফেটি করার জন্য কোন জায়গাটি বেছে নেবেন তা দেখা। আপনাকে অবশ্যই এমন জায়গা নির্বাচন করতে হবে যেখানে মানুষজন খুব সহজে পৌঁছোতে পারবে এবং যে জায়গা সকলের নজরে পড়বে। স্থান নির্ধারণ করার ক্ষেত্রে আপনার এলাকায় যে জায়গাগুলিতে সব থেকে বেশি জনসমাগম হয় সেই সমস্ত জায়গাগুলির মধ্যে কোন একটি বেছে নিলে আপনি সর্বাধিক সুবিধা পাবেন।

বিনিয়োগ:-
সাইবার ক্যাফের এই ব্যবসা শুরু করার ক্ষেত্রে ২০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ প্রয়োজন হতে পারে।

সাইবার কাছে শুরু করার ক্ষেত্রে কি কি উপকরণ প্রয়োজন?
সাইবার ক্যাফে শুরু করার ক্ষেত্রে সব থেকে প্রয়োজনীয় উপাদানটি হলো ইন্টারনেট কানেকশন এবং কম্পিউটার কিংবা ল্যাপটপ। এক্ষেত্রে আপনি আপনার সামর্থ্য অনুসারে দুটি অথবা তিনটি ল্যাপটপ দিয়ে ব্যবসা শুরু করতে পারেন। এছাড়া কোনো সমস্যা ছাড়া ইন্টারনেট কানেকশনের জন্য আপনাকে ওয়াইফাই কানেক্টিভিটি নিতে হবে। এছাড়াও কম্পিউটার টেবিল, চেয়ার প্রয়োজন হবে। এছাড়াও আপনি নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য সিসিটিভি ক্যামেরা ইনস্টল করতে পারেন। এর পাশাপাশি গ্রাহকদের সুবিধার জন্য প্রিন্টার, জেরক্স মেশিন রাখতে হবে। তবে প্রথমেই এত কিছুর ব্যবস্থা না রাখলেও, ধীরে ধীরে লাভের টাকা উঠে আসলে গ্রাহকদের প্রয়োজন অনুসারে আপনি বিভিন্ন জিনিস কিনে আপনার ব্যবসাটিও বাড়াতে পারবেন।

আবেদন করুন প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় এবং পেয়ে যান কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে বিনামূল্যে পাকা বাড়ি

কিভাবে সাইবার ক্যাফের ব্যবসা শুরু করবেন?
আপনাকে প্রথমে একটি ছোট দোকান ভাড়া নিতে হবে কিংবা আপনার বাড়িতেই যদি জায়গা থাকে এবং আপনার বাড়ির আশেপাশে যদি যথেষ্ট জনসমাগম হয়ে থাকে তাহলে আপনি আপনার বাড়িতে এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন। এরপর লোককে আকর্ষণ করতে পারে এরকম ব্যানার টাঙাতে হবে। দোকানে আপনার সামর্থ্য অনুযায়ী দুটি তিনটি কিংবা তার বেশি কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপ সেট করতে হবে। এর পাশাপাশি প্রিন্টার, জেরক্স মেশিনও সেট করতে পারেন। এছাড়া আপনার অফিসিয়াল বিভিন্ন কাজকর্মের জন্য একটি কম্পিউটার রাখতে পারেন। এই কম্পিউটারটির মাধ্যমে যেসমস্ত গ্রাহক নিজেরা কম্পিউটারে কাজ করতে পারবেন না আপনি টাকার বিনিময়ে তাদের জন্য ইমেইল, ফর্ম ফিলাপ সহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় জিনিসের জন্য আবেদনসহ অন্যান্য কাজগুলি করে দিতে পারবেন।

আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে যাতে কোনোভাবেই কোনো গ্রাহক ফিরে না যান। এর পাশাপাশি গ্রাহকদের আকর্ষণ করার জন্য আপনার এলাকার বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যানার কিংবা পোস্টার লাগাতে হবে, বিশেষত যেসমস্ত এলাকায় স্কুল, কলেজ রয়েছে সেই সমস্ত এলাকাগুলিতে পোস্টার লাগাতে হবে কারণ আপনার ব্যবসার প্রধান গ্রাহক হতে চলেছে ছাত্র-ছাত্রীরা। এর পাশাপাশি আপনি বিভিন্ন সোশ্যাল সাইট এর মাধ্যমেও নিজের ব্যবসার প্রমোশন করতে পারেন।

সম্ভাব্য আয়:- সাইবার ক্যাফে থেকে আপনি একমাসে সম্ভাব্য ৩০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(114) ""