টেট

Primary TET – প্রাথমিক টেট নিয়ে ফের জলঘোলা! শিক্ষকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ।

Adv

রাজ্যে যে দুর্নীতি (Primary TET Scam) চলছে তা চোখের সামনেই দেখতে পাচ্ছে রাজ্যবাসী। একের পর এক দুর্নীতির কথা সামনে আসছে রেশন নিয়ে দুর্নীতি, চাকরি নিয়ে দুর্নীতি। আরো কত যে দুর্নীতি চলছে এই রাজ্যে তা বলা মুশকিল। তবে সব দুর্নীতির মধ্যে সব থেকে বড় দুর্নীতি হল এই চাকরির নিয়োগ সংক্রান্ত দুর্নীতি। শুধু যে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি হয়েছে এমনটা নয়। প্রাথমিক থেকে উচ্চ প্রাথমিক সব জায়গায় দুর্নীতি হয়েছে।

WBBPE Primary TET 2017 Question Update.

আর এই দুর্নীতির জেড়ে প্রায় 26 হাজার শিক্ষকদের চাকরি বাতিল (SSC Scam) হল। পরীক্ষায় সাদা খাতা জমা দিয়ে টাকা দিয়ে চাকরি পাওয়ার অভিযোগে চাকরি গিয়েছে তাদের। কিন্তু এই 26 হাজার জনই যে অবৈধ্য ভাবে চাকরি পেয়েছে এমনটা নয়। এদের মধ্যে বেশির ভাগই যোগ্য শিক্ষক (Primary TET) রয়েছে যারা পরীক্ষা দিয়ে পাস নম্বর পেয়ে তারপরেই চাকরি পেয়েছে।

Ad

কিন্তু SSC এই অবৈধ্য শিক্ষকদের সঠিক লিস্ট পেশ করতে না পারায় 2016 সালের গোটা প্যানেলটাই বাতিল করে দিয়েছে আদালত। এর ফলে কিছু জনের দোষে শাস্তি পেতে হচ্ছে নির্দোষদের। 2016 সালের শিক্ষক নিয়োগ মামলায় এই রায় দেওয়ার পর পর ই আবার 2017 সালের প্রাথমিকের টেট পরীক্ষায় (Primary TET 2017) এক দুটো প্রশ্ন ভুল নয় 21টি প্রশ্ন ভুল থাকার অভিযোগ সামনে এলো।

আর এই অভিযোগ কলকাতা হাইকোর্টে (Calcutta High Court) দাখিল হওয়ার পরই হাইকোর্টের বিচারপতি অসন্তোষের সুরে বলেন, একটা প্রশ্নপত্রে এতো প্রশ্ন ভুল হয় কি করে? পরীক্ষার্থীরা কি আইনস্টাইন হয়ে ভুল প্রশ্ন খুঁজে সঠিক উত্তর দেবে? গত মঙ্গলবার 2017 এর প্রাথমিক নিয়োগের (Primary TET Recruitment) প্রশ্নপত্রে ভুল থাকার মামলা দায়ের হয়।

এই মামলার শুনানিতে বিচারপতি জানিয়েছেন 1 দিন সময় দেওয়া হল সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্যে। যদি সত্যি প্রশ্নপত্রে ভুল থাকে তাহলে সবাইকে সেই প্রশ্নের জন্য নম্বর দিতে হবে। আর তাই প্রশ্নপত্র ভুলের অভিযোগ যাচাই করার নির্দেশ দেয় বিচারপতি। সেই নির্দেশ মত একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠনের নির্দেশ দেয় বিচারপতি। Primary TET Exam এর ভুল প্রশ্নের বিষয়টি দেখবে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের গঠন করা কমিটি।

Loan On Aadhaar Card (আধার কার্ডের মাধ্যমে লোন)

আগামী এক মাসের মধ্যে এই নিয়ে রিপোর্ট পেশ করতে হবে হাইকোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলের কাছে। এর আগে 2014 সালের পরীক্ষার প্রশ্নপত্রে (Primary TET) ভুল থাকায় বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়কে দ্বায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল প্রশ্নপত্র যাচাই করার। আর ততে 6টি প্রশ্ন ভুল বেরিয়েছিল। তাই এই 6টি ভুল প্রশ্নের জন্য পরীক্ষার্থীদের নম্বর দেওয়া হয়।

এপ্রিল মাসের বেতন পাবেন তো 26000 বাতিল শিক্ষক? সিদ্ধান্ত জানালো রাজ্য সরকার।

শেষ পর্যন্ত যদি 2017 সালের প্রাথমিক টেটের (Primary TET Exam 2017) প্রশ্নপত্রে ভুল বের হয় আর বিচারপতির নির্দেশ কার্যকর করার প্রয়োজন পরে তাহলে মেধা তালিকায় বড় পরিবর্তন হয়ে চলেছে। এক্ষেত্রে আরো বেশ কিছু শিক্ষকদের চাকরি নিয়ে টানা টানি হতে পারে। এই মামলার পরবর্তী শুনানি রয়েছে 11ই জুন। আর এর ফলে কয়েক হাজার প্রাথমিক শিক্ষকদের কপালে ফের চিন্তার ভাঁজ।
Written by Ananya Chakraborty.

সুপ্রিম কোর্টে চাকরির সুবর্ণ সুযোগ। আকর্ষণীয় বেতন সঙ্গে অন্যান্য সুবিধা পাবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

string(103) ""